বাংলা নিউজ > ঘরে বাইরে > গদি টলমল নেপালের প্রধানমন্ত্রীর, এর জন্যেও দুষছেন ভারতকে
 নেপালে সরকার বিরোধী প্রতিবাদ  (REUTERS)
 নেপালে সরকার বিরোধী প্রতিবাদ  (REUTERS)

গদি টলমল নেপালের প্রধানমন্ত্রীর, এর জন্যেও দুষছেন ভারতকে

তবে এই কথাকে বিশেষ আমল দিতে চায়নি বাকিরা। সবাই বলে যে দল আপনাকে প্রধানমন্ত্রী বানিয়েছে। দল চাইলে আপনাকে সরে যেতে হবে। এখানে আবার ভারত কোথায়!

ভারতের বিরুদ্ধে হাওয়া গরম করেও সম্ভবত নিজের গদি বাঁচাতে পারবেন না নেপালের প্রধানমন্ত্রী কেপি শর্মা ওলি। দলীয় বৈঠকে তাঁর ইস্তফার দাবি করেছেন অন্যান্য বরিষ্ঠ নেতারা। নেপাল কম্যুনিস্ট পার্টির কো-চেয়ারম্যান পুষ্প কুমার দহল ওরফে প্রচন্ড-ও স্ট্যান্ডিং কমিটির এই বৈঠকে ওলির বিদায়ের দাবিতে সোচ্চার হয়েছেন। 

একই দাবি করেছেন মাধব নেপাল, ঝালা নাথ খানাল ও বামদেব গৌতম প্রভৃতি। বিভিন্ন ইস্যুতে সরকারের ব্যর্থতা ও নজর ঘোরানোর জন্য ভারত বিরোধী জিগির তোলার অভিযোগ উঠেছে ওলির বিরুদ্ধে। Thehimalayantimes.com এই খবর জানিয়েছে। 

সূত্রের খবর, বৈঠকে কার্যত একঘরে হয়ে যান ওলি। ওলির বিরোধী গোষ্ঠী বলছে একনয় প্রধানমন্ত্রীর পদ ছাড়ুন তিনি নয়তো দলীয় নেতৃত্ব থেকে সরে যান। ভারত বিরোধী ধুয়ো তুলে যে বোকা বানানো যাবে না মানুষকে, সেটাও স্পষ্ট করে বলে দেওয়া হয় ওলিকে। 

একই কথা জানিয়েছে  eKantipur.com যে ওলির ওপর মারাত্মক চাপ বাড়ছে গদি ছাড়ার। তিন দিন ব্যাপী এই সমাবেশে প্রথম দুই দিন সীমান্ত সমস্যা নিয়ে হলেও তৃতীয় দিন অর্থাত্ গত রবিবার আচমকা নয়া বাঁক নেয় আলোচনা। ওলি বলেন যে ভারতীয় হাইকমিশনে তাঁর সরকারকে সরানোর পরিকল্পনা চলছে। 

তবে এই কথাকে বিশেষ আমল দিতে চায়নি বাকিরা। সবাই বলে যে দল আপনাকে প্রধানমন্ত্রী বানিয়েছে। দল চাইলে আপনাকে সরে যেতে হবে। এখানে আবার ভারত কোথায়! 

মানস সরোবার যাত্রার জন্য লিপুলেখ অবধি ৮০ কিলোমিটার রাস্তা বানিয়েছে ভারত। এতে ক্ষুব্ধ হয়ে নেপাল জানায় তিনটি অঞ্চল তাদের যেখানে এই মুহূর্তেে ভারতীয়রা আছেন। এই দাবির পর নয়া মানচিত্র বার করে নেপাল যা সংবিধান স্বীকৃতিও পায়। কিন্তু ভারত বিরোধী ভাবাবেগকে সুড়সুড়ি দিয়ে মসনদে টিকে থাকার চেষ্টা করলেও তাতে চিঁড়ে ভিজছে না বলেই মনে হচ্ছে কেপি শর্মা ওলির। 

বন্ধ করুন