বাংলা নিউজ > ঘরে বাইরে > India-China LAC: চিনের নয়া বিদেশমন্ত্রীর মুখে শান্তি বার্তা, তবে LAC-তে রণংদেহী মনোভাব PLA-র

India-China LAC: চিনের নয়া বিদেশমন্ত্রীর মুখে শান্তি বার্তা, তবে LAC-তে রণংদেহী মনোভাব PLA-র

চিনের নয়া বিদেশমন্ত্রী কিন গাং

ওয়াং ই-র উত্তরসূরি হিসেবে গত শুক্রবারই নাম ঘোষণা করা হয়েছে কিন গাঙের। তিনি আমেরিকায় নিযুক্ত চিনা রাষ্ট্রদূত ছিলেন। এর আগে ২০১৪ থেকে ২০১৮ পর্যন্ত শি জিনপিংয়ের প্রটোকল অফিসারও ছিলেন কিন গাং।

বারবার মুখে শান্তির কথা বললেও আদতে সীমান্তে বিপুল সংখ্যক সেনা মোতায়েন রেখেছে চিন। লাদাখের পাশাপাশি সিকিম এবং অরুণাচলপ্রদেশের সীমান্ত বরাবর এলাকাতেও বিপুল সংখ্যক সেনা মোতায়েন করে রেখেছে চিন। দাবি করা হচ্ছে, চিনের তরফে সিকিম থেকে অরুণাচল পর্যন্ত প্রকৃত নিয়ন্ত্রণ রেখা বরাবর চারটি অতিরিক্ত ব্রিগেড মোতায়েন রাখা হয়েছে। তবে এসবের মাঝে নয়া চিনা বিদেশমন্ত্রী কিন গাং দাবি করেছেন, 'ভারত এবং চিন যৌথ উদ্যোগে সীমান্ত সমস্যা মিটিয়ে ফেলবে।' ওয়াং ই-র উত্তরসূরি হিসেবে গত শুক্রবারই নাম ঘোষণা করা হয়েছে কিন গাঙের। তিনি আমেরিকায় নিযুক্ত চিনা রাষ্ট্রদূত ছিলেন। এর আগে ২০১৪ থেকে ২০১৮ পর্যন্ত শি জিনপিংয়ের প্রটোকল অফিসারও ছিলেন কিন গাং।

গত ২৬ ডিসেম্বর গাঙের প্রকাশিত এক অপ-এড লেখা হয়, 'উভয় পক্ষই পরিস্থিতি শান্ত করতে এবং যৌথভাবে তাদের সীমান্তে শান্তি রক্ষা করতে ইচ্ছুক।' এদিকে চুশুলে ১৭তম কমান্ডার পর্যায়ের বৈঠকের পর চিনের বিদেশ মন্ত্রকের তরফে বলা হয়েছিল, 'উভয় পক্ষ পশ্চিম সেক্টরে স্থলভাগে নিরাপত্তা ও স্থিতিশীলতা বজায় রাখতে সম্মত হয়েছে।' তবে এই 'ইতিবাচক' মন্তব্যের পরও পরিস্থিতি পরিবর্তনের কোনও ইঙ্গিত সীমান্তে দেখা যাচ্ছে না। বরং দুই দেশের মধ্যে সংঘাত আরও দীর্ঘ হচ্ছে।

এদিকে নিজের প্রবন্ধে আমেরিকাকে ছেড়ে কথা বলেননি কিন। তিনি লখেন, চিনের উন্নয়ন মানে শান্তির জন্য একটি শক্তিশালী হয়ে ওঠা। 'স্থিতাবস্থা' নষ্ট করতে শক্তিশালী হয়ে উঠতে চায় না চিন। কেউ কেউ অবশ্য এই অভিযোগই আনে চিনের বিরুদ্ধে। তাইওয়ান প্রণালী জুড়ে উত্তেজনা ছড়ি স্থিতাবস্থা বদল করেনি চিন। বরং 'তাইওয়ানের স্বাধীনতাকামী' বিচ্ছিন্নতাবাদী এবং বহিরাগত শক্তিগুলি ক্রমাগত 'এক চিন' স্থিতাবস্থাকে চ্যালেঞ্জ করে চলেছে। পূর্ব চিন সাগরের ক্ষেত্রে, জাপানই দশ বছর আগে দিয়াওউ দাওকে 'জাতীয়করণ' করার চেষ্টা করেছিল। চিন ও জাপানের মধ্যকার 'স্থিতাবস্থাকে' পরিবর্তন করেছিল তারা।

এদিকে ভারতের ক্ষেত্রেও 'শান্তির বাণী' শুনিয়েছেন কিন। তবে এই 'শান্তিকামী' চিনের ৩০০ সৈন্য তাওয়াঙের প্রকৃত নিয়ন্ত্রণরেখার কাছে এসেছিল গত ৯ ডিসেম্বর। এদিকে গত ২০ ডিসেম্বরই লাদাখের চুশুলে দুই দেশের সেনা কমান্ডার পর্যায়ের বৈঠক হয়েছিল। ভারত ও চিনের এই বৈঠকগুলির ফলে কোথাও কোথাও শান্তি ফিরেছে, তবে সার্বিক ভাবে সেনা প্রত্যাহার নিয়ে এখনও সামগ্রিক সমাধান সূত্র বেরিয়ে আসেনি। এরই মাঝে কয়েক মাস আগে জানা গিয়েছিল, প্যাংগং হ্রদ সংলগ্ন ফিঙ্গার ৮-এর থেকে মাত্র ১৬ কিলোমিটার দূরে একটি বড় সেতু বানাচ্ছে চিন। অপরদিকে অরুণাচলেও আগ্রাসী মনোভাব দেখিয়েছে চিন।

বর্তমানে লাদাখে প্রকৃত নিয়ন্ত্রণ রেখার দুই দিকেই ভারত-চিনের সমসংখ্যক সেনা মোতায়েন রয়েছে। রুডগ ঘাঁটি, প্যাংগং সোর দক্ষিণে এবং জিনজিয়াং সামরিক অঞ্চলের জিয়াদুল্লাতে মোতায়েন রয়েছে চিনের আর্মরড এবং রকেট রেজিমেন্টগুলি। ডেমচোক এবং জিনজিয়াংয়ের হোতান এয়ারবেসে তাদের যুদ্ধবিমান এবং বোমারু বিমান মোতায়েন করে রেখেছে পিএলএ এয়ার ফোর্স। এই আবহে আলোচনার মাধ্যমে পরিস্থিতি স্বাভাবিক রাখতে চাইছে ভারত ও চিন। তবে বেজিংয়ের আগ্রাসী মনোভাবের আবহে শান্তি ফেরাতে তাদের সদিচ্ছা নিয়ে সংশয় দেখা দিয়েছে বারবার।

ঘরে বাইরে খবর

Latest News

ভারী বৃষ্টিতে ভাসবে কলকাতা লাগোয়া একাধিক জেলা, কেমন থাকবে তিলোত্তমার আবহাওয়া? চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফির আগে ঘরোয়া ক্রিকেটে পরীক্ষা হার্দিকের!বোলিং ফিটনেস নিয়ে সংশয়… Women Asia Cup 2024: ভারতীয় দলে বড় ধাক্কা, চোটের কারণে ছিটকে গেলেন শ্রেয়াঙ্কা ট্রেনের নীচে রেল লাইন পরীক্ষা করছিলেন RPF জওয়ান, তখনই চলতে শুরু করল ইঞ্জিন ২০২৪ আইপিএলে ব্যর্থতার জের! গোটা কোচিং ইউনিট বদলাচ্ছে LSG!কোচ হতে পারেন লক্ষ্মণ… রূপঙ্করের ও চাঁদের সঙ্গে বলিউডি গান! সপ্তপর্ণীর পারফরমেন্স দেখে হতবাক ইমন-জোজো! ২১-এর সকালে ২৬-এর 'প্রতিপক্ষ' চিহ্নিত করলেন অভিষেক, বার্তা তৃণমূল সরকারকে TMC's Shahid Dibas LIVE: রাম সেজে একুশে জুলাইয়ের সমাবেশে তৃণমূল কর্মী শক্তিগড়ে এসব কী চলছে? ছত্রাকে ভরা বস্তা বস্তা ল্যাংচা মাটিতে পুঁতলেন আধিকারিকরা Paris Olympics-এ কটি দেশ আর ক'জন প্রতিযোগী অংশ নেবে?কী চমক থাকছে?জানুন খুঁটিনাটি

Copyright © 2024 HT Digital Streams Limited. All RightsReserved.