বাংলা নিউজ > ঘরে বাইরে > উপগ্রহের সঙ্গে মহাকাশে মোদীর ছবি, গীতা পাঠাচ্ছে ইসরো!
উপগ্রহের সঙ্গে মহাকাশে মোদীর ছবি, গীতা পাঠাচ্ছে ইসরো!। (ছবিটি প্রতীকী, সৌজন্য টুইটার @isro)
উপগ্রহের সঙ্গে মহাকাশে মোদীর ছবি, গীতা পাঠাচ্ছে ইসরো!। (ছবিটি প্রতীকী, সৌজন্য টুইটার @isro)

উপগ্রহের সঙ্গে মহাকাশে মোদীর ছবি, গীতা পাঠাচ্ছে ইসরো!

  • ওই উপগ্রহেই থাকতে চলেছে ভগবত গীতা, প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর ছবি এবং ২৫,০০০ জনের নাম থাকবে।

ফের চমক নরেন্দ্র মোদী সরকারের। আগামী ২৮ ফেব্রুয়ারি মহাকাশে পোলার স্যাটেলাইট লঞ্চ ভেহিকেলের (‌পিএসএলভি) সাহায্যে সতীশ ধাওয়ান মহাকাশ গবেষণাকেন্দ্র থেকে এসডি–স্যাট উপগ্রহ পাঠাচ্ছে ইসরো। কিন্তু এর পেছনে লুকিয়ে রয়েছে অন্য রহস্য। সেটি হল– ওই উপগ্রহেই থাকতে চলেছে ভগবত গীতা, প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর ছবি এবং ২৫,০০০ জন মানুষের পৃথক পৃথক নাম। 

গবেষণাকেন্দ্র সূত্রে খবর, এসডি–স্যাট উপগ্রহটির নাম ভারতীয় মহাকাশ গবেষণার অন্যতম পথিকৃৎ সতীশ ধাওয়ানের নামে রাখা হয়েছে। গবেষণারত ছাত্রছাত্রীরা যাতে আগামীদিন আরও এগিয়ে যেতে পারে তাই এই উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে। এর তিনটি বৈজ্ঞানিক পে–লোডস কাজ করবে। এক, মহাকাশে তেজস্ক্রিয়তার উপর গবেষণা চালাবে। দুই, ম্যাগনেটোস্ফিয়ার গবেষণা হবে এবং তিন, লো–পাওয়ার ওয়াইড–এরিয়া কমিউনিকেশন নেটওয়ার্ক তৈরির কাজ করবে। ‘স্পেসকিডজ ইন্ডিয়া’ নামে একটি সংস্থা ভারতীয় পড়ুয়াদের সাহায্যে এই উপগ্রহটি তৈরি করেছে।

এখন প্রশ্ন উঠছে, এখানে মোদীর ছবি বা ভগবত গীতা কেন পাঠানো হচ্ছে? ইসরো সূত্রে খবর, বিভিন্ন দেশ নিজেদের মহাকাশযানে বাইবেল রাখে। তাই ইসরোও এই সিদ্ধান্ত নিয়েছে। যেহেতু পুরো বিষয়টাই ‘আত্মনির্ভর মিশন’–এ তৈরি, তাই তাঁর ছবি ওই মহাকাশযানে থাকছে। 

জানা গিয়েছে, মহাকাশযানে ২৫,০০০ মানুষের নামও থাকছে। এটাই বা কেন থাকছে?‌ কাদের নাম সেখানে রাখা হচ্ছে?‌ উঠছে প্রশ্ন। এই বিষয়ে স্পেসকিডজ ইন্ডিয়ার প্রতিষ্ঠাতা ও সিইও ডঃ শ্রীমাথি কিষান বলেন, ‘‌এই মিশনটির বিষয়ে চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত নেওয়ার পরই আমরা নাম চেয়ে বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করি। সাধারণ মানুষও যাতে তাঁদের নাম মহাকাশে পাঠাতে পারেন তাই এই বিজ্ঞপ্তি দেওয়া হয়। এরপরই এক সপ্তাহের মধ্যে জমা পড়ে ২৫,০০০ নাম। ভারতের বাইরে থেকেও অনেকেই নাম পাঠিয়েছেন। চেন্নাইয়ের একটি স্কুলও সবার নাম পাঠিয়েছে। মানুষের আগ্রহ বাড়াতেই আমরা এই পদক্ষেপ করেছি।’‌

বন্ধ করুন