জেএনইউয়ে দীপিকা  (IANS)
জেএনইউয়ে দীপিকা (IANS)

জেএনইউয়ে গিয়ে সকলকে অনুপ্রাণিত করেছেন দীপিকা- রঘুরাম রাজন

ছাত্র আন্দোলনের প্রতি নিজের সমর্থন জানালেন প্রাক্তন আরবিআই গভর্নর।

ভারত থেকে নানান খারাপ খবর আসছে বলে উদ্বেগ প্রকাশ করলেন প্রাক্তন আরবিাআই গভর্নর রঘুরাম রাজন। একই সঙ্গে দীপিকা পাড়ুকোনের নিঃশব্দ প্রতিবাদ, অশোক লাভাসার দায়িত্ব পালনকে কুর্নিশ করেছেন রাজন। লিনকেডিনে নয়া ব্লগে ভারতের সাম্প্রতিক রাজনৈতিক পরিস্থিতি নিয়ে নিজের মতপ্রকাশ করেছেন রাজন। নিজের মতো করে তিনি বুঝিয়ে দিয়েছেন যে তাঁর সমর্থন হাজার হাজার পড়ুয়াদের সঙ্গে, যারা এনআরসি-সিএএর বিরোধে পথে নেমেছেন। একই সঙ্গে জেএনইউয়ে হওয়া হিংসার তীব্র প্রতিবাদ করেছেন তিনি।

যেভাবে মুখোশধারীরা জেএনইউয়ে হামলা চালালো ও পুলিশ দেখে গেল, সেটি উদ্বেগজনক মনে করেন রাজন। তাঁর মতে, বিরুদ্ধ মতকে দমাতে চাইছে সরকার, এই অভিযোগ যথার্থ বলে মনে হচ্ছে। গণতন্ত্র শুধু অধিকার নয়, দায়িত্বও বটে, শুধু ভোটের দিনে নয়, প্রতিদিন বলে মনে করেন তিনি। যেভাবে জেএনইউয়ে আক্রান্ত পড়ুয়াদের সঙ্গে দেখা করতে গিয়েছিলেন দীপিকা, তা সকলের কাছে অনুপ্রেরণা বলেই মনে করেন রাজন। রাজনের মতে ছপকের ক্ষতি হতে পারে, এটা জেনেও জেএনইউয়ে গিয়েছিলেন দীপিকা। এই মুহূর্তে ঠিক কী গুরুত্বপূর্ণ, সেটা অনুধাবন করতে দীপিকা সাহায্য করেছেন বলে মনে করেন রাজন।

যেভাবে জাতি ধর্ম বর্ণ নির্বিশেষে তরুণরা জাতীয় পতাকা নিয়ে প্রতিবাদ মিছিলে বেরিয়েছেন তা অত্যন্ত আশাব্যঞ্জক বলে মনে করেন রাজন। রাজনৈতিক নেতাদের স্বীয় স্বার্থে তৈরী করা বিভেদ ভাঙতে নবীনরা সক্ষম হয়েছেন বলে রাজনের দাবি।সংবিধানের স্পিরিট এখনএ অক্ষুণ্ণ, তরুণরা সেটা দেখাচ্ছে,বলে মনে করেন প্রাক্তন আরবিআই গভর্নর।

অশোক লাভাসা সহ বিভিন্ন আমলা যারা সরকারের বিরুদ্ধে মুখ খুলেছেন, তাদেরও প্রশংসা করেছেন রাজন। এই সব মানুষ দেখিয়েছেন যে সত্য, অধিকার, বিচার ইত্যাদি শুধু কথার কথা নয়, এগুলি জীবনের পথের পাথেয় হতে পারে। যে ভারতের কথা গান্ধী ও রবীন্দ্রনাথ ভেবেছিলেন, সেটাকে অক্ষত রাখার জন্য এরা চেষ্টা করছে বলে মনে করেন তিনি।

সংবিধানের ৭০ সালের পুর্তির লগ্নে নতুন করে সেই আদর্শগুলির জন্য সকলকে কাজ করার আহ্বান জানিয়েছেন তিনি।

বন্ধ করুন