বাংলা নিউজ > ঘরে বাইরে > করোনার জেরে নিজের 'দেশ' কৈলাসে ভারত থেকে আগতদের প্রবেশে নিষেধাজ্ঞা স্বষোষিত ধর্মগুরু নিত্যানন্দের
স্বঘোষিত ধর্মগুরু নিত্যানন্দ{ (ফাইল ছবি)
স্বঘোষিত ধর্মগুরু নিত্যানন্দ{ (ফাইল ছবি)

করোনার জেরে নিজের 'দেশ' কৈলাসে ভারত থেকে আগতদের প্রবেশে নিষেধাজ্ঞা স্বষোষিত ধর্মগুরু নিত্যানন্দের

  • স্বঘোষিত ধর্মগুরু জানিয়ে দিয়েছেন, কৈলাসে বসবাসকারী যে সব নাগরিক ও স্বেচ্ছাসেবকরা রয়েছেন, তাঁদের কোয়ারেন্টাইনে থাকতে হবে।

করোনার জেরে এবার কৈলাসে যাওয়াও বন্ধ।কোন কৈলাস বলুন তো?‌ স্বয়ং মহাদেব যেখানে অধিষ্ঠান করেন?‌না, এই কৈলাস এক অন্য কৈলাস।ইকুয়েডরের কাছে ছোট্ট একটা দ্বীপ ‘‌কৈলাস’। সারা হিন্দু সম্প্রদায়ের মানুষদের জন্য সেখানে অবারিত দ্বার। কিন্তু এখন ইচ্ছে করলেও সেখানে যেতে পারবেন না।ওই দ্বীপের স্বঘোষিত ধর্মগুরু নিত্যানন্দ নির্দেশিকা জারি করেছেন, যেভাবে সারা বিশ্বে করোনার সংক্রমণ বাড়ছে তাতে ভারত থেকে কারোরই ওই দ্বীপে প্রবেশ নিষিদ্ধ।শুধু ভারতই নয়, ব্রাজিল, ইউরোপীয় ইউনিয়ন, মালয়েশিয়া থেকেও যারা আসেন, তাদের জন্যও এই একই নিয়ম প্রযোজ্য।

বৃহস্পতিবার বিবৃতি জারি করে স্বঘোষিত ধর্মগুরু জানিয়ে দিয়েছেন, কৈলাসে বসবাসকারী যে সব নাগরিক ও স্বেচ্ছাসেবকরা রয়েছেন, তাঁদের কোয়ারেন্টাইনে থাকতে হবে।পাশাপাশি স্থানীয় প্রশাসনের তরফে কোভিড পরিস্থিতিতে যে সব সতর্কতামূলক ব্যবস্থা নিতে বলা হয়েছে, তা মেনে চলতে হবে।

উল্লেখ্য, ২০১৯ সালে ইকুয়েডরের কাছে এই দ্বীপটিতে গা ঢাকা দেন ধর্মগুরু নিত্যানন্দ।একটি যৌন কেলেঙ্কারিতে জড়িত হওয়ার পর তিনি পলাতক ছিলেন। এই দ্বীপে চলে আসার পর থেকে কৈলাস দ্বীপটিকে একটি স্বশাসিত দেশ হিসেবে স্বীকৃতি দেওয়ার জন্য তিনি রাষ্ট্রপুঞ্জের কাছে আবেদন করেন। এখানেই থেমে থাকেননি তিনি। ২০২০ সালের অগস্টে রিজার্ভ ব্যাঙ্ক অফ কৈলাস নামে একটি ব্যাঙ্কও তৈরি করেন তিনি। সরকারি মুদ্রাও ঘোষণা করা হয়, যা কৈলাসিয়ান ডলার নামে খ্যাত। ওয়েবসাইট থেকে পাওয়া তথ্য অনুযায়ী, কৈলাস হল এমন একটি দেশ যেখানে সারা বিশ্বের অবহেলিত, বঞ্চিত মানুষ, যারা তাঁদের ধর্মাচরনের অধিকার হারিয়েছেন, তাঁদের জন্য তৈরি হয়েছে। সেখানে স্বঘোষিত ধর্মগুরু নিত্যানন্দই হলেন শেষ কথা।‌

বন্ধ করুন