বাংলা নিউজ > ঘরে বাইরে > ত্রিপুরা নির্বাচনে কোনও জোট নয়, কংগ্রেস লড়বে এককভাবে, ঘোষণা এআইসিসি সদস্যের
কংগ্রেস একক শক্তিতে ত্রিপুরা নির্বাচনে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করবে। (ছবিটি প্রতীকী, সৌজন্য পিটিআই)
কংগ্রেস একক শক্তিতে ত্রিপুরা নির্বাচনে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করবে। (ছবিটি প্রতীকী, সৌজন্য পিটিআই)

ত্রিপুরা নির্বাচনে কোনও জোট নয়, কংগ্রেস লড়বে এককভাবে, ঘোষণা এআইসিসি সদস্যের

  • এখন কংগ্রেস জানিয়ে দিয়েছে ২০২৩ সলের নির্বাচনে তাঁরা কারও সঙ্গে জোট করবে না।

আগামী ২০২৩ সালে বিধানসভা নির্বাচন হবে ত্রিপুরায়। এখন থেকেই উত্তপ্ত হয়ে উঠেছে উত্তর–পূর্বের এই রাজ্য। কারণ একদিকে তৃণমূল কংগ্রেসের ব্যাপক আন্দোলন, অন্যদিকে বিপ্লব দেবের ঘরেই বিদ্রোহ দেখা দিয়েছে। এই পরিস্থিতিতে সেখানে ম্যাজিক দেখাচ্ছে কংগ্রেস থেকে তৃণমূল কংগ্রেসে যোগ দেওয়া সন্তোষমোহন দেবের কন্যা সুস্মিতা দেব। এখন কংগ্রেস জানিয়ে দিয়েছে ২০২৩ সলের নির্বাচনে তাঁরা কারও সঙ্গে জোট করবে না।

এখন প্রশ্ন উঠতে শুরু করেছে, তাহলে কী কংগ্রেস একক শক্তিতে ত্রিপুরা নির্বাচনে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করবে?‌ এই বিষয়ে কংগ্রেসের এআইসিসি সদস্য তথা ত্রিপুরার ইনচার্জ ড.‌ অজয় কুমার বলেন, ‘‌আমরা সিপিআইএম বা তৃণমূল কংগ্রেসের সঙ্গে কোনও জোটে যাচ্ছি না ২০২৩ সালের নির্বাচনে। আমরা আত্মবিশ্বাসী যে এখানে কংগ্রেস জিতবেই। কারণ মানুষ পরিবর্তন চাইছে। আর আমি বিশ্বাস করি কংগ্রেসই বিকল্প।’‌

তবে তিনি ত্রিপুরার নির্বাচনে রাজ পরিবারের সদস্য প্রদ্যোত কিশোর দেববর্মার দলের সঙ্গে জোট করার ইঙ্গিত দিয়েছেন। এখানে অবশ্য তৃণমূল কংগ্রেস এসে তাঁর সঙ্গে কথা বলে গিয়েছেন। তারপর এই ইঙ্গিত বেশ তাৎপর্যপূর্ণ। কিন্তু গ্রেটার তিরপাল্যান্ড দাবি সমর্থনের কোনও কথা বলেনি কংগ্রেস। অজয় কুমার বলেন, ‘‌এটা জাতীয় ইস্যু। এই বিষয়ে এখনও কোনও আলোচনা হয়নি।’‌

এদিন তিনি বিজেপি সরকারের আগ্রাসী মনোভাবের চরম বিরোধিতা করেন। প্রতিশ্রুতি রক্ষা না করা এবং আক্রমণ নামিয়ে আনা নিয়ে সমালোচনা করেন। এমনকী প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী মাণিক সরকারের উপরও যে আক্রমণ করা হয়েছে তার কড়া সমালোচনা করেছেন। ত্রিপুরা প্রদেশ কংগ্রেস সভাপতি পীযূষকান্তি বিশ্বাসের পদত্যাগ–সহ দলের অভ্যন্তরীণ সমস্যাগুলি নিয়ে আলোচনা করেছেন। ২০ সেপ্টেম্বর থেকে কংগ্রেস মসৃণভাবে চলবে বলেও তিনি মনে করেন।

বন্ধ করুন