সামনে ফসল কাটার মরশুম। লকডাউনের জেরে পরিযায়ী শ্রমিকরা ফিরে যাওয়ায় সমস্যায় পড়েছেন উত্তর প্রদেশের কৃষকরা। ছবি: এপি। (AP)
সামনে ফসল কাটার মরশুম। লকডাউনের জেরে পরিযায়ী শ্রমিকরা ফিরে যাওয়ায় সমস্যায় পড়েছেন উত্তর প্রদেশের কৃষকরা। ছবি: এপি। (AP)

সংক্রমণ লাফিয়ে বাড়ায় ১৪ এপ্রিল লকডাউন ওঠা অনিশ্চিত, জানাল উত্তর প্রদেশ

  • ১৪ এপ্রিল লকডাউন তুলে নেওয়ার সম্ভাবনা ক্ষীণ। একটিও Covid-19 রোগী থাকলে উত্তর প্রদেশে লকডাউন তোলা হবে না।

আগামী ১৪ এপ্রিল লকডাউন আদৌ তুলে দেওয়া হবে কি না, তা নির্ভর করছে পরবর্তী সপ্তাহে নতুন Covid-19 আক্রান্তের সংখ্যার উপর। সোমবার এই মন্তব্য করলেন উত্তর প্রদেশের অতিরিক্ত প্রধান স্বরাষ্ট্র সচিব অবনীশ আওয়াস্থি।

করোনাভাইরাস সংক্রমণ ঠেকাতে গত ২৫ মার্চ ২১ দিনের জন্য সারা দেশে লকডাউন ঘোষণা করেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। আগামী ১৪ এপ্রিল তা শেষ হওয়ার কথা। কিন্তু এ দিন উত্তর প্রদেশের অতিরিক্ত মুখ্য স্বরাষ্ট্র সচিব জানিয়েছেন, এই বিষয়ে রাজ্য প্রশাসন এখনও চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত নিতে পারেনি।

তিনি জানান, ‘ইতিমধ্যে সংবাদমাধ্যমে প্রকাশিত খবরে সকলেই জেনে গিয়েছেন যে, ১৪ এপ্রিল লকডাউন তুলে নেওয়ার সম্ভাবনা ক্ষীণ। একটিও Covid-19 রোগী থাকলে উত্তর প্রদেশে লকডাউন তুলে দেওয়ার অবস্থায় আমরা থাকব না। এই কারণে তা সময়সাপেক্ষ।’

সোমবার উত্তর প্রদেশে করোনা আক্রান্তের সংখ্যা লাফিয়ে বেড়ে দাঁড়িয়েছে ৩০৫ জনে। এ দিন নতুন ২৭ জনের মধ্যে সংক্রমণের খবর পাওয়া গিয়েছে। তাঁদের মধ্যে ২১ জনের সঙ্গে গত মার্চ মাসে দিল্লির নিজামুদ্দিনে তবলিঘি জামাত আয়োজিত ধর্মীয় সমাবেশের যোগ রয়েছে।

উত্তর প্রদেশের ৩০৫ জন সংক্রামিতের মধ্যে নিজামুদ্দিনের সঙ্গে যোগসূত্র পাওয়া গিয়েছে ১৫৯ জনের। সবচেয়ে বেশি সংক্রমণের খবর পাওয়া গিয়েছে গৌতম বুদ্ধ নগর জেলা থেকে। রাজ্যে এ পর্যন্ত সংক্রমণে মারা গিয়েছেন ৩ জন।

রবিবার কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্য মন্ত্রক জানিয়েছে, গত ৪.১ দিনে দেশে Covid-19 সংক্রমণের হার বেড়ে দ্বিগুণ হয়েছে।


বন্ধ করুন