বাড়ি > ঘরে বাইরে > গোষ্ঠী সংক্রমণ নেই তবুও দিল্লিতে জুলাই শেষে ৫.৫ লক্ষ করোনা পজিটিভ কেস হতে পারে
মণীশ সিসোদিয়া
মণীশ সিসোদিয়া

গোষ্ঠী সংক্রমণ নেই তবুও দিল্লিতে জুলাই শেষে ৫.৫ লক্ষ করোনা পজিটিভ কেস হতে পারে

আশি হাজার বেড লাগবে ৩১ জুলাইয়ের মধ্যে, জানালেন উপ মুখ্যমন্ত্রী। 

দিল্লিতে জুলাই মাসের শেষে সাড়ে পাঁচ লক্ষ করোনা আক্রান্ত হতে পারেন, মঙ্গলবার এই পূর্বাভাস করলেন উপমুখ্যমন্ত্রী মণীশ সিসোদিয়া। স্টেট ডিজাস্টার ম্যানেজমেন্ট অথরিটির বৈঠকের পর এই কথা বলেন তিনি। তবে দিল্লিতে গোষ্ঠী সংক্রমণের সম্ভাবনা উড়িয়ে দিয়েছেন সিসোদিয়া। 

দিল্লির নাগরিকদের জন্য বেড অপ্রতুল হয়ে যেতে পারে, এই আশঙ্কায় কেজরিওয়াল সরকার জানিয়েছিল যে তাদের পরিচালিত হাসপাতাল ও রাজধানীতে যে কোনও বেসরকারি হাসপাতালে শুধু সেখানকার নাগরিকরা চিকিত্সা পাবেন। তবে এই সিদ্ধান্ত মানেননি এলজি অনিল বইজাল। তিনি নির্দেশ দেন দিল্লিত কোনও নাগরিক যেন চিকিত্সা পাচ্ছেন না, এটা না হয়। 

সোমবার বইজালের সিদ্ধান্তের তীব্র প্রতিবাদ করেন মণীশ সিসোদিয়া ও বলেন এর পিছনে বিজেপি আছে। এদিনের বৈঠকে সেই বিষয়টি আলোচনা হয়। তবে এলজি নিজের সিদ্ধান্ত বদলাতে রাজি হননি বলে জানান উপমুখ্যমন্ত্রী। করোনা হয়েছে এই সন্দেহে এখন হোম কোয়ারেন্টাইনে আছেন মুখ্যমন্ত্রী কেজরিওয়াল।এদিন তাঁর টেস্ট হয়েছে। 

মণীশ সিসোদিয়া বলেন যে দিল্লিতে জুলাইয়ের শেষে ৫.৫ লক্ষ মানুষ করোনায় আক্রান্ত হবেন, বলে তাদের আশঙ্কা। এর মধ্যে প্রায় ৮০,০০০ মানুষ হাসপাতালে ভর্তি হবেন, বলে তাদের হিসাব বলছে, জানান সিসোদিয়া। তবে আপাতত দিল্লিতে কোনও গো্ষ্ঠী সংক্রমণ নেই বলেই তিনি জানান। 

উপমুখ্যমন্ত্রী বলেন যে বৈঠকে কেন্দ্রের প্রতিনিধিরা ছিল, যারা এই কথা জানিয়েছেন। তাই আর বিষদে এই বিষয়ে আলোচনা হয়নি। দিল্লিতে আপাতত করোনা আক্রান্ত ৩০ হাজার ছুঁইছুঁই। সিসোদিয়ার দেওয়া পূর্বাভাস মিললে আগামী ৫০ দিনে আক্রান্তের সংখ্যা ১৮ গুণ বাড়তে চলেছে। ইতিমধ্যেই হাসপাতালে বেডের আকাল, মানুষ টেস্ট করাতে পারছেন না বলে অভিযোগ উঠছে। কেসের সংখ্যা এই হারে বাড়লে রাজধানীর কি অবস্থা হবে, তা সহজেই অনুমেয়। 

 

 

বন্ধ করুন