বাংলা নিউজ > ঘরে বাইরে > কেউ যেন ভারতের ধৈর্যের পরীক্ষা নেওয়ার ভুল না করে, চিন সীমান্তে উত্তেজনা নিয়ে কড়া হুঁশিয়ারি সেনাপ্রধানের
কেউ যেন ভারতের ধৈর্যের পরীক্ষা নেওয়ার ভুল না করে, কড়া হুঁশিয়ারি সেনাপ্রধানের। (ছবিটি প্রতীকী, সৌজন্য রয়টার্স)
কেউ যেন ভারতের ধৈর্যের পরীক্ষা নেওয়ার ভুল না করে, কড়া হুঁশিয়ারি সেনাপ্রধানের। (ছবিটি প্রতীকী, সৌজন্য রয়টার্স)

কেউ যেন ভারতের ধৈর্যের পরীক্ষা নেওয়ার ভুল না করে, চিন সীমান্তে উত্তেজনা নিয়ে কড়া হুঁশিয়ারি সেনাপ্রধানের

  • সেনাপ্রধান বলেন, ‘আমি দেশকে আশ্বস্ত করছি যে গালওয়ানের নায়কদের আত্মবলিদান বৃথা যাবে না।'

পূর্ব লাদাখে একতরফা প্রকৃত নিয়ন্ত্রণরেখা পরিবর্তনের ‘ষড়যন্ত্র’ করা হয়েছিল। তার যোগ্য জবাব দিয়েছে ভারত। ভবিষ্যতেও একইরকমভাবে প্রত্যুত্তর দেওয়া হবে বলে হুঁশিয়ারি দিলেন ভারতীয় সেনার প্রধান জেনারেল মনোজ মুকুন্দ নারাভানে। নাম না করে চিনকে কড়া বার্তা দিলেন, কেউ যেন ভারতের ধৈর্যের পরীক্ষা নেওয়ার ভুল না করেন।

গত বছরের মে'র গোড়ার দিক থেকে পূর্ব লাদাখ সীমান্তে উত্তেজনা তৈরি হয়েছে। একাধিক সামরিক এবং কূটনৈতিক পর্যায়ের বৈঠকের পরও পরিস্থিতি স্বাভাবিক হয়নি। আলোচনার মাধ্যমে সেই সমস্যা সমাধানের বিষয়ে প্রতিজ্ঞাবদ্ধ হলেও ভারতের সার্বভৌমত্ব এবং অখণ্ডতার উপর কোনওরকম আঘাত হানতে দেওয়া হবে না বলে আশ্বস্ত করেছেন সেনাপ্রধান। দিল্লি ক্যানটনমেন্টে সেনা দিবসের প্যারেডে তিনি বলেন, ‘আলোচনা এবং রাজনৈতিক উদ্যোগের মাধ্যমে আমরা বিবাদ সমাধানে বিশ্বাসী আমরা। কিন্তু কেউ যেন আমাদের ধৈর্যের পরীক্ষা নেওয়ার ভুল না করেন।’

সেনা দিবসের প্যারেডে হাজির ছিলেন চিফ অফ ডিফেন্স স্টাফ (সিডিএস) জেনারেল বিপিন রাওয়াত, নৌসেনা প্রধান অ্যাডমিরাল করমবীর সিং এবং ভারতীয় বায়ুসেনার প্রধান এয়ার চিফ মার্শাল আরকেএস ভাদুরিয়া। সেখানে সেনাপ্রধান জানান, প্রবল শীত এবং কঠিন পরিস্থিতির মধ্যেও ভারতীয সেনার মনোবল এলাকার পর্বতশৃঙ্গের থেকে ‘উচুঁ’-তে রয়েছে। অত্যন্ত দক্ষভাবে জওয়ানরা সেই সীমান্ত রক্ষা করছেন বলে জানিয়েছেন তিনি। 

সেনাপ্রধান বলেন, ‘গত বছর সেনার কাছে অত্যন্ত চ্যালেঞ্জিং ছিল। উত্তরের দিকে চিন সীমান্তে উত্তেজনার বিষয়ে আপনারা জানেন। যারা একতরফা সীমান্ত পরিবর্তনের ষড়যন্ত্র করেছিল, তাদের যোগ্য জবাব দেওয়া হয়েছে।’ সঙ্গে সেনাপ্রধান আশ্বাস দিয়েছেন, ‘আমি দেশকে আশ্বস্ত করছি যে গালওয়ানের নায়কদের আত্মবলিদান বৃথা যাবে না। কাউকে দেশের সার্বভৌমত্ব এবং অখণ্ডতার উপর কোনওরকম আঘাত হানতে দেবে না ভারতীয় সেনা।’

বন্ধ করুন