বাঁ দিকে প্রতীকি ছবি। ডান দিকে ববিষ্কৃত সিঙ্গল কমিটির সভাপতি মাহফুজুর রহমান।
বাঁ দিকে প্রতীকি ছবি। ডান দিকে ববিষ্কৃত সিঙ্গল কমিটির সভাপতি মাহফুজুর রহমান।

লুকিয়ে প্রেম করতে গিয়ে ধরা পড়ে বহিষ্কৃত বিশ্ববিদ্যালয়ের সিঙ্গল কমিটির সভাপতি

  • ভ্যালেন্টাইনস ডে-তে ‘দুনিয়ার সিঙ্গল, এক হও’ স্লোগান দিয়ে গত কয়েক বছর মিছিলও করতে দেখা গিয়েছে সিঙ্গল কমিটির সদস্যদের

এক ছাত্রীর সঙ্গে প্রণয়ের সম্পর্কে জড়ানোয় বহিষ্কার করা হল বিশ্ববিদ্যালয়ের সিঙ্গল কমিটি বা চিরকুমার সভার সভাপতিকে। বহিষ্কৃত ছাত্রের নাম মাহফুজুর রহমান। তিনি বাংলাদেশের বরিশাল বিশ্ববিদ্যালয়ের চিরকুমার সভার সভাপতি ছিলেন।

বরিশাল বিশ্ববিদ্যালয়ের ম্যানেজমেন্টের পড়ুয়া মাহফুজুর সম্প্রতি এক ছাত্রীর সঙ্গে প্রেম করছেন বলে জানতে পারেন সিঙ্গল কমিটির সদস্যরা। বিষয়টি সাক্ষ্য প্রমাণ জোগাড়ের পর তাঁকে বহিষ্কারের সিদ্ধান্ত নেন তাঁরা। তাঁর জায়গায় বরিশাল বিশ্ববিদ্যালয়ের সিঙ্গল কমিটির সভাপতি করা হয়েছে নবীর হোসেন জয়কে। তিনি রাষ্ট্রবিজ্ঞানের পড়ুয়া।

জয় স্থানীয় সংবাদমাধ্যমকে জানিয়েছেন, ‘মাহফুজুর সিঙ্গল কমিটির সংবিধান বহির্ভূত কাজ করেছে। সিঙ্গল কমিটির সভাপতি হয়ে গোপনে প্রণয়ের সম্পর্কে জড়িয়েছে সে। এটা আমাদের জন্য দুঃখজনক ও তাঁর জন্য দুর্ভাগ্যজনক। খবর পেয়েই আমরা সর্বসম্মতিক্রমে তাঁকে কমিটি থেকে বহিষ্কার করেছি।‘

বরিশাল বিশ্ববিদ্যালয় সিঙ্গল কমিটির সাধারণ সম্পাদক আবদুল মাজেদ জানিয়েছেন, ‘মাহফুজুরকে বহিষ্কার করে দৃষ্টান্ত স্থাপন করা হল। এর পর থেকে কেউ প্রেম করার আগে সতর্ক থাকবে। সব সিঙ্গলদের প্রতি আমাদের আবেদন, নারীদের প্ররোচনায় প্রেমে পড়ে ভুলেও বিশ্ববিদ্যালয়ের সোনালি সময় নষ্ট করবেন না।‘

প্রেম করার বিরুদ্ধে নানা কর্মসূচির আয়োজন করে থাকে বরিশাল বিশ্ববিদ্যালয় সিঙ্গল কমিটি। ভ্যালেন্টাইনস ডে-তে ‘দুনিয়ার সিঙ্গল, এক হও’ স্লোগান দিয়ে গত কয়েক বছর মিছিলও করতে দেখা গিয়েছে তাদের।



বন্ধ করুন