বাংলা নিউজ > ঘরে বাইরে > কোনও স্টার হোটেলকেই ভ্যাকসিন কেন্দ্র হিসেবে ব্যবহার করা যাবে না, জানাল কেন্দ্র
ভ্যাকসিন। (ছবিটি প্রতীকী, সৌজন্য পিটিআই)
ভ্যাকসিন। (ছবিটি প্রতীকী, সৌজন্য পিটিআই)

কোনও স্টার হোটেলকেই ভ্যাকসিন কেন্দ্র হিসেবে ব্যবহার করা যাবে না, জানাল কেন্দ্র

সরকারের নজরে যদি এই ধরনের কাজ আসে, তাহলে ওই স্টার হোটেল ও বেসরকারি হাসপাতালের বিরুদ্ধে প্রশাসনিক ও আইনি ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

‌কোনও স্টার হোটেলকেই ভ্যাকসিন দেওয়ার কেন্দ্র হিসেবে ব্যবহার করা যাবে না। রবিবার এই কথাই স্পষ্ট করে জানিয়ে দিল কেন্দ্রীয় সরকার। বেশ কিছু বেসরকারি হাসপাতাল চুক্তির ভিত্তিতে হোটেলগুলিকে প্যাকেজের ভিত্তিতে ভ্যাকসিন দেওয়ার কেন্দ্র হিসেবে কাজে লাগাচ্ছিল। সম্প্রতি এই ধরনের খবর কেন্দ্রীয় সরকারের নজরে আসে। তার ভিত্তিতে কেন্দ্র স্পষ্টভাবে জানিয়ে দিয়েছে, ভ্যাকসিন দেওয়ার কেন্দ্র হিসাবে কোনও স্টার হোটেলকেই এভাবে ব্যবহার করা যাবে না।

কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্য ও পরিবারকল্যাণ মন্ত্রকের তরফে সব রাজ্য ও কেন্দ্রশাসিত এলাকাকে চিঠি পাঠানো হয়।সেখানে কেন্দ্রের তরফে জানিয়ে দেওয়া হয়েছে, কোনও বেসরকারি হাসপাতালের সঙ্গে যৌথ উদ্যোগে স্টার হোটেলগুলি ভ্যাকসিন দিতে পারবে না।এই ধরনের কাজ এখনই বন্ধ করতে হবে।এই ধরনের কাজ সম্পূর্ণ বেআইনি।সরকারের নজরে যদি এই ধরনের কাজ আসে, তাহলে ওই স্টার হোটেল ও বেসরকারি হাসপাতালের বিরুদ্ধে প্রশাসনিক ও আইনি ব্যবস্থা নেওয়া হবে। কোন কোন ক্ষেত্রগুলিকে ভ্যাকসিন দেওয়ার কেন্দ্র হিসাবে ব্যবহার করা যাবে, সেবিষয়টিও স্পষ্টভাবে ব্যাখ্যা করা হয়।কেন্দ্রের তরফে জানানো হয়েছে, মূলত চারটি ক্ষেত্রকে ভ্যাকসিন দেওয়ার সেন্টার হিসাবে ব্যবহার করা যেতে পারে।প্রথমটি হল, সরকারি ভ্যাকসিন দেওয়ার সেন্টার, বেসরকারি হাসপাতাল দ্বারা পরিচালিত বেসরকারি কেন্দ্র, সরকারি বা বেসরকারি কর্মস্থল ও বিশেষ কিছু কেন্দ্র, বিশেষ করে আবাসন সোসাইটি, কমিউনিটি সেন্টার, পঞ্চায়েত ভবন, স্কুল বা কলেজ, বৃদ্ধাশ্রম যেখানে বৃদ্ধ, বৃদ্ধা ও বিশেষভাবে সক্ষম প্রতিনিধিরা থাকেন।এছাড়া কোনও কেন্দ্রকে ন্যাশনাল কোভিড ভ্যাকসিনেশন প্রোগ্রামের আওতায় পড়বে না।

উল্লেখ্য, সম্প্রতি ভ্যাকসিন দেওয়ার প্যাকেজ নিয়ে একটি বিজ্ঞাপন সোশ্যাল মিডিয়ায় ছড়িয়ে পড়ে।সেই বিজ্ঞাপনে দাবি করা হয়, ২,৯৯৯ টাকায় থাকা, খাওয়া, সেইসঙ্গে বেসরকারি হাসপাতালের কর্মীদের দিয়ে ভ্যাকসিন দেওয়া, স্বাস্থ্যকর ব্রেকফাস্ট, ডিনারের ব্যবস্থা ও একজন চিকিৎসকের কাছ থেকে পরামর্শ নেওয়ার সুযোগ থাকছে।এই প্যাকেজের মধ্যে ওয়াইফাই ব্যবস্থার সুবিধাও পাওয়া যাবে।এই ধরনের বিজ্ঞাপন নজরে আসার পর আপ নেতা রাঘব চাড্ডা এই পোস্টটি শেয়ার করেন ও কেন্দ্রীয় সরকারকে সমালোচনা করে জানান, সরকারি হাসপাতাল যেখানে বিনা পয়সায় ভ্যাকসিন পাওয়া যেতে পারে, সেখানে ভ্যাকসিন পাওয়া যাচ্ছে না।অথচ বেসরকারি হাসপাতালে ভ্যাকসিনের জোগান সচল রাখা হচ্ছে যাতে এভাবে ভ্যাকসিনেশন প্যাকেজ চালু রাখা যায়।

বন্ধ করুন