বাড়ি > ঘরে বাইরে > পরাজিত কেরালা সরকারের বিরুদ্ধে আনা অনাস্থা প্রস্তাব, দীর্ঘ জবাবি ভাষণ বিজয়নের
পিনারাই বিজয়ন
পিনারাই বিজয়ন

পরাজিত কেরালা সরকারের বিরুদ্ধে আনা অনাস্থা প্রস্তাব, দীর্ঘ জবাবি ভাষণ বিজয়নের

  • সাড়ে তিন ঘণ্টা ধরে তাঁর বিরুদ্ধে আনা সব অভিযোগের উত্তর দিলেন মুখ্যমন্ত্রী 

সোনা পাচার মামলা নিয়ে ঘরে বাইরে চাপে আছেন কেরালার মুখ্যমন্ত্রী পিনারাই বিজয়ন এবার তাঁর সরকারকে চাপে ফেলার জন্য অনাস্থা প্রস্তাব আনল ইউডিএফ। সেটি সহজেই পরাজিত হয়েছে। কিন্তু বিধানসভার কক্ষে বিজয়নের বিরুদ্ধে অস্ত্র শানিয়ে নিল বিরোধী কংগ্রেস ভোটের মাত্র আট মাস আগে। 

বরিষ্ঠ কংগ্রেস বিধায়ক শঠিসেন এই অনাস্থা প্রস্তাব এনেছিলেন। প্রস্তাবের পক্ষে পড়ে ৪০ ভোট, বিপক্ষে ৮৭ জন ভোট দেন। তবে সারাদিন ধরে বাগবিতণ্ডায় উত্তাল হয়ে অধিবেশন। সাড়ে তিন ঘণ্টা ধরে শেষে উত্তর দেন বিজয়ন। 

সোনা পাচার মামলা, লাইফ মিশন প্রজেক্টে কমিশন খাওয়ার অভিযোগ ও উচ্চশিক্ষা মন্ত্রী আমিরশাহি থেকে যে উপহার পেয়েছিলেন, সেই নিয়ে কংগ্রেস নেতৃত্বাধীন ইউডিএফ নিশানা করে কেরালা সরকারের বিরুদ্ধে। কিন্তু সিপিআইএম নেতৃত্বাধীন এলডিএফ সব অভিযোগ অস্বীকার করে। 

বিরোধী দলনেতা রমেশ চেন্নিথালা বলেন যে ইতিহাসে এমন কোনও দিন হয়নি যে তিনটি কেন্দ্রীয় সরকারি  সংস্থায় রাজ্যে তদন্ত করছে। ইতিমধ্যে সোনা পাচার মামলায় নিজের সচিবকে সরিয়েছেন বিজয়ন। কিন্তু বিরোধীদের দাবি তিনি নিজেও জানতেন পুরো বিষয়টি, এখন সচিবকে বলির পাঁঠা করছেন। 

মুখ্যমন্ত্রী অবশ্য বলেন যে তিনিই প্রধানমন্ত্রীকে চিঠি লিখে কেন্দ্রীয় সংস্থাদের আনতে বলেছেন। তদন্ত শেষ হওয়া অবধি অপেক্ষা করতে আর্জি জানান তিনি। কেরালায় দ্রুত শক্তি বাড়াচ্ছে বিজেপি। সেই প্রসঙ্গে বিজয়ন বলেন যে কংগ্রেস নেতারা তো এখন লাইন লাগাচ্ছেন, কে আগে বিজেপিতে যেতে পারেন। কেরালা যেভাবে কোভিড নিয়ন্ত্রণ করেছে, সেটা বিরোধীদের সহ্য হচ্ছে না বলেই নানান অভিযোগ তুলছে বলে তিনি দাবি করেন। 

বন্ধ করুন