বাংলা নিউজ > ঘরে বাইরে > বাংলায় অসহযোগিতা, অসমে প্রটোকল মান্যতা বৈপরীত্য প্রসঙ্গে মমতাকে বিঁধলেন রাজ্যপাল
অসমে রাজ্যপাল জগদীপ ধনখড়কে অভ্যর্থনা পুলিশ প্রশাসনের আধিকারিকদের (ট্যুইটার)
অসমে রাজ্যপাল জগদীপ ধনখড়কে অভ্যর্থনা পুলিশ প্রশাসনের আধিকারিকদের (ট্যুইটার)

বাংলায় অসহযোগিতা, অসমে প্রটোকল মান্যতা বৈপরীত্য প্রসঙ্গে মমতাকে বিঁধলেন রাজ্যপাল

  • বৃহস্পতিবারই কোচবিহারের দিনহাটায় গিয়ে তৃণমূল কর্মীদের বিক্ষোভের মুখে পড়েছিলেন রাজ্যপাল। এরপর গাড়ি থেকে নেমে পুলিশ আধিকারিককে কড়া ধমক দিয়েছিলেন তিনি।

বৃহস্পতিবার কোচবিহারের বিভিন্ন জায়গায় গিয়ে রাজনৈতিক সন্ত্রাসের জেরে আক্রান্তদের সঙ্গে কথা বলতে গিয়েছিলেন রাজ্যপাল জগদীপ ধনখড়। এদিকে দিনহাটায় তিনি তৃণমূল কর্মীদের একাংশের বিক্ষোভের মুখে পড়েন। তাঁকে নিশানা করে গো ব্যাক স্লোগান দেন বিক্ষোভকারীরা। এরপরই গাড়ি থেকে নেমে পড়েন খোদ রাজ্যপাল। আইসির খোঁজ শুরু করে দেন। এরপরই পুলিশ আধিকারিককে সামনে পেয়ে একেবারে কড়া ধমক দেন তিনি। এমন ঘটনা হতে পারে বলে তিনি কল্পনাও করতে পারেননি একথা শোনা যায় রাজ্যপালের মুখে। রাজ্যপালের কনভয় কোনদিক দিয়ে যাবে সেব্যাপারে কেন পুলিশের কাছে যথাযথ খবর ছিল না, পুলিশের পাইলট গাড়ি থাকা সত্ত্বেও কেন সমণ্বয়ের অভাব তা নিয়েও কার্যত প্রশ্ন তুলেছিলেন খোদ রাজ্যপাল। 

এবার শুক্রবার অসম সফরে গিয়েছেন তিনি। ভোট পরবর্তী হিংসায় যাঁরা কোচবিহার থেকে ঘর ছাড়া অবস্থায় অসমে আশ্রয় নিয়েছেন তাঁদের সঙ্গে দেখা করতেই এদিন অসমে যান রাজ্যপাল। তাঁর দাবি  অসমে প্রটোকল মেনে ডিভিশনাল কমিশনার, স্পেশাল ডিজিপি, জেলাশাসক ও পুলিশ সুপার রাজ্যপালকে অভ্যর্থনা জানাতে উপস্থিত ছিলেন। এই ছবি তুলে ধরে বাংলার সঙ্গে কার্যত বৈপরীত্যের কথা উল্লেখ করে টুইট করেছেন রাজ্যপাল। তিনি লিখেছেন,' যখন কোচবিহারে জেলাশাসক, পুলিশ সুপার নিরুত্তর ছিলেন, অসহযোগিতাপূর্ণ ছিলেন তখন অসমে প্রটোকল মেনে উপস্থিত ছিলেন ডিভিশনাল কমিশনার, স্পেশাল ডিজিপি, জেলাশাসক ও পুলিশ সুপার।'

এখানেই থেমে থাকেননি রাজ্যপাল। মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে নিশানা করে তিনি টুইটে লিখেছেন, ‘অনুরোধ করছি সহযোগিতাপূর্ণ  ও সাংবিধানিক দৃষ্টিভঙ্গি থেকে দেখুন, দ্বন্দ্বের মনোভাব পরিত্যাগ করুন কারণ শুধু এই দৃষ্টিভঙ্গি গণতন্ত্রকে বিকশিত করবে, আইনের শাসনকে প্রতিষ্ঠিত করবে, মানুষের সেবা করবে।’

 

বন্ধ করুন