বাংলা নিউজ > ঘরে বাইরে > থোড়াই কেয়ার আমেরিকার বৈঠককে, ব্যালেস্টিক মিসাইল পরীক্ষা উত্তর কোরিয়ার
জাপান সাগরে অন্তত একটি ব্যালেস্টিক মিসাইল পরীক্ষা করল উত্তর কোরিয়া। (ছবি সৌজন্য, কোজি সাসাহারা/এপি ফোটো/পিকচার অ্যালায়েন্স/ডয়চে ভেলে)
জাপান সাগরে অন্তত একটি ব্যালেস্টিক মিসাইল পরীক্ষা করল উত্তর কোরিয়া। (ছবি সৌজন্য, কোজি সাসাহারা/এপি ফোটো/পিকচার অ্যালায়েন্স/ডয়চে ভেলে)

থোড়াই কেয়ার আমেরিকার বৈঠককে, ব্যালেস্টিক মিসাইল পরীক্ষা উত্তর কোরিয়ার

  • জাপান সাগরে অন্তত একটি ব্যালেস্টিক মিসাইল পরীক্ষা করল উত্তর কোরিয়া।

জাপান সাগরে অন্তত একটি ব্যালেস্টিক মিসাইল পরীক্ষা করল উত্তর কোরিয়া। দাবি, জাপান ও দক্ষিণ কোরিয়ার সেনার। সিওলে জাপান, দক্ষিণ কোরিয়া ও আমেরিকার গোয়েন্দা প্রধানরা যখন উত্তর কোরিয়া নিয়ে বৈঠক করছেন, তখনই এই ব্যালেস্টিক মিসাইলের পরীক্ষা করা হল।

গত কয়েক সপ্তাহ ধরে উত্তর কোরিয়া একগুচ্ছ মিসাইল ও অস্ত্রের পরীক্ষা করেছে। তাদের দাবি, তারা সুপারসনিক মিসাইল পরীক্ষা করেছে, বিমান বিধ্বংসী ক্ষেপণাস্ত্র এবং দূরপাল্লার ক্ষেপণাস্ত্রের পরীক্ষাও করা হয়েছে। উত্তর কোরিয়ার ব্যালেস্টিক মিসাইল ও পরমাণু অস্ত্র পরীক্ষার উপর নিষেধাজ্ঞা জারি করেছে  রাষ্ট্রসংঘ। উত্তর কোরিয়া তা সত্ত্বেও ব্যলেস্টিক মিসাইল পরীক্ষা করে যাচ্ছে।

মঙ্গলবার দক্ষিণ কোরিয়ার জয়েন্ট চিফ অফ স্টাফ বলেছেন, উত্তর কোরিয়া একটি ব্যালেস্টিক মিসাইল সিনপো বন্দর থেকে ছুড়েছে। সেটা জাপান সাগরে গিয়ে পড়েছে। জাপানের প্রধানমন্ত্রী ফুমিও কিশিডা বলেছেন, উত্তর কোরিয়ার এই আচরণ দুর্ভাগ্যজনক।

দক্ষিণ কোরিয়াও অবশ্য নিজস্ব অস্ত্র তৈরি করছে। পর্যবেক্ষকদের মতে, দুই কোরিয়া এখন অস্ত্র প্রতিযোগিতা শুরু করেছে। সম্প্রতি সিওল সাবমেরিন থেকে ছোড়া যায় এমন ক্ষেপণাস্ত্রের পরীক্ষা করেছে। এই সপ্তাহে দক্ষিণ কোরিয়া সব চেয়ে বড় প্রতিরক্ষা প্রদর্শনী শুরু করেছে। তারা খুব তাড়াতাড়ি মহাকাশেও রকেট পাঠাবে।

উত্তর কোরিয়ার নেতা কিম জং উন গত সপ্তাহে বলেছেন, তিনি যুদ্ধ চান না। কিন্তু উত্তর কোরিয়া আত্মরক্ষার জন্য অস্ত্র বানাবে। তিনি উত্তেজনার জন্য আমেরিকাকে দায়ী করেন।

বন্ধ করুন