বাংলা নিউজ > ঘরে বাইরে > Odisha: আদিবাসী কন্যার সঙ্গে বিয়ে, মানেনি সমাজ, মর্মান্তিক পরিণতি বাঙালি যুবকের
আদিবাসী কন্যাকে বিয়ে করেছিলেন ওড়িশার বাঙালি যুবক। প্রতীকী যুবক

Odisha: আদিবাসী কন্যার সঙ্গে বিয়ে, মানেনি সমাজ, মর্মান্তিক পরিণতি বাঙালি যুবকের

  • মেয়েটিকে আর ওই যুবকের সঙ্গে দেখা করতে দেওয়া হয়নি। এরপরই ভেঙে পড়েন ওই যুবক। তারপরই এই চরম সিদ্ধান্ত নেন যুবক। মালকানগিরি থানার ইনস্পেক্টর রিগান কিন্ডো জানিয়েছেন, একটি অস্বাভাবিক মৃত্যুর মামলা রুজু করা হয়েছে।

দেবব্রত মোহান্তি

মাত্র ৯দিন আগে ২১ বছর বয়সী এক আদিবাসী তরুণীকে বিয়ে করেছিলেন ৩১ বছর বয়সী এক বাঙালি যুবক। ওড়িশার মালকানগিরি জেলায় সেই যুবকের দেহ উদ্ধার হয়েছে মঙ্গলবার। সূত্রের খবর, বিষ খেয়ে আত্মহত্যা করেছেন তিনি। তাদের বিয়ে বৈধ কিনা ঠিক করার জন্য সালিশি সভা বসিয়েছিলেন গ্রামবাসীরা। এরপর আর বধূর সঙ্গে দেখা করার অনুমতি মেলেনি যুবকের। এরপরই চরম পথ বেছে নেন ওই যুবক।

MV-9 এলাকার বাসিন্দা ছিলেন ওই যুবক। ওখানে বাঙালি শরনার্থীরা সাধারণত থাকেন। স্থানীয় এলাকায় রাজমিস্ত্রির কাজ করতেন তিনি। এদিন জমিতে তিনি কীটনাশক খান বলে স্থানীয়দের দাবি। হাসপাতালে নিয়ে চিকিৎসকরা তাকে মৃত বলে ঘোষণা করেন।

মৃতের পরিবারের দাবি এক আদিবাসী তরুণীর সঙ্গে তাঁর প্রেমের সম্পর্ক গড়ে উঠেছিল। তবে মেয়ের পরিবারের লোকজন এই সম্পর্কের কথা মেনে নিতে চাননি। এরপর পালিয়ে গিয়ে গত ১৪ মে তারা বিয়ে করেন। পরের দিন স্থানীয় মন্দিরেও তারা বিয়ে করেন।

এরপর ১৬ মে মেয়ের বাড়ির লোকজন ওই যুবকের বাড়িতে আসেন। তারা মেয়েকে নিয়ে চলে যান। তার মা অসুস্থ বলে তারা মেয়েকে নিয়ে চলে গিয়েছিলেন। এরপর থেকে আর মেয়েকে পাঠাতে চাননি তার অভিভাবকরা। ঠিক হয় সমাজের লোকজন বসে আগে এনিয়ে সিদ্ধান্ত নেবেন। তারপর এনিয়ে তারা মেয়েকে পাঠাবেন।

এরপর ২০মে সালিশি সভা বসে। সেখানে কোনও সিদ্ধান্ত হয়নি। তবে মেয়েটিকে আর ওই যুবকের সঙ্গে দেখা করতে দেওয়া হয়নি। এরপরই ভেঙে পড়েন ওই যুবক। তারপরই এই চরম সিদ্ধান্ত নেন যুবক। মালকানগিরি থানার ইনস্পেক্টর রিগান কিন্ডো জানিয়েছেন, একটি অস্বাভাবিক মৃত্যুর মামলা রুজু করা হয়েছে।

বন্ধ করুন