বাংলা নিউজ > ঘরে বাইরে > Paradip port bribery case: ২৫ লাখ টাকার ঘুষকাণ্ডে নামী শিল্পপতির পুত্র গ্রেফতার! পারাদ্বীপ বন্দর মামলায় নয়া মোড়
চর্চিত মিশ্র।

Paradip port bribery case: ২৫ লাখ টাকার ঘুষকাণ্ডে নামী শিল্পপতির পুত্র গ্রেফতার! পারাদ্বীপ বন্দর মামলায় নয়া মোড়

  • শনিবার সকালে তাঁকে ২৫ লাখ টাকার ঘুষকাণ্ডে গ্রেফতার করা হয়। ওড়িশা স্টিভডোর্সের ডিরেক্টর মহিমা মিশ্রের পুত্র চর্চিতের গ্রেফতারি ঘিরে চাঞ্চল্য ছড়িয়েছে ওড়িশা জুড়ে।

ওড়িশার জগতসিংহপুর জেলার পারাদীপ বন্দরে কর্মরত এক ইঞ্জিনিয়ারের গ্রেফতারির পরদিনই গ্রেফতার হন নামী শিল্পপতির পুত্র চর্চিত মিশ্র। শনিবার সকালে তাঁকে ২৫ লাখ টাকার ঘুষকাণ্ডে গ্রেফতার করা হয়। ওড়িশা স্টিভডোর্সের ডিরেক্টর মহিমা মিশ্রের পুত্র চর্চিতের গ্রেফতারি ঘিরে চাঞ্চল্য ছড়িয়েছে ওড়িশা জুড়ে।

দেশের দ্বিতীয় বৃহত্তম বন্দর হিসাবে পরিগণিত রয়েছে ওড়িশার পারাদ্বীপ বন্দর। সেখানে ' ওড়িশা স্টিভডোর্স' সংস্থাকে বাড়তি সুবিধে পাইয়ে দেওয়ার জন্য বন্দরের এক মেকানিক্যাল ইঞ্জিনিয়ারকে ঘুষ দেওয়ার অভিযোগ রয়েছে সংস্থার বিরুদ্ধে। ওই চিফ মেকানিক্যাল ইঞ্জিনিয়ার সহ এই ঘটনায় ৩ জনকে গ্রেফতার করা হয়। উল্লেখ্য, ২৫ লক্ষ টাকার ঘুষ দেওয়ার অভিযোগ রয়েছে ঘটনায়। এই ঘটনার তদন্তে নেমে সিবিআই চর্চিত ও তাঁর ছেলে চন্দনকে ২০ ঘণ্টা জেরা করে। উল্লেখ্য, চর্চিত এই ঘটনার অন্যতম অভিযুক্ত। প্রবল বোমাবর্ষণ গাজায়, ইজরায়েলের হামলায় নিহত ১০

এদিকে, চর্চিতের আইনজীবীর দাবি, ঘটনায় সিবিআইয়ের কাছে কোনও তথ্য প্রমাণ পাওয়া যায়নি। জানা যাচ্ছে, এই ওড়িশা স্টিভডোর্স সংস্থা তাদের মাল পারাদ্বীপ বন্দর থেকে নেওয়ার সময় সেখানের কনভেয়ার বেল্ট খারাপ করে ফেলে। এরপর তা সারাইয়ের টাকা অন্যায্যভাবে পারাদ্বীপ বন্দর কর্তৃপক্ষের থেকে নেওয়ার ষড়যন্ত্র চলে। এই ষড়যন্ত্রে অভিযুক্ত ইঞ্জিনিয়ার ছিলেন বলে জানা যাচ্ছে। ঘটনার সঙ্গে জড়িত থাকার অভিযোগে ১৫ টি এলাকায় তল্লাশি চালায় সিবিআই। তখনই উঠে আসে একের পর এক চাঞ্চল্যকর তথ্য।

 

বন্ধ করুন