বাড়ি > ঘরে বাইরে > ১৫ মাসের ছেলেকে লাথিয়ে ও শাশুড়িকে পিটিয়ে গ্রেফতার বধূ, প্রমাণ সিসিটিভি ফুটেজে
শিশুপুত্রকে মেঝেয় ফেলে লাথি মারছে মা রোজালিন। (সিসিটিভি ফুটেজ থেকে গৃহীত।)
শিশুপুত্রকে মেঝেয় ফেলে লাথি মারছে মা রোজালিন। (সিসিটিভি ফুটেজ থেকে গৃহীত।)

১৫ মাসের ছেলেকে লাথিয়ে ও শাশুড়িকে পিটিয়ে গ্রেফতার বধূ, প্রমাণ সিসিটিভি ফুটেজে

  • প্রতিবেশীদের থেকে স্ত্রীয়ের আচরণের বিষয়ে জানার পরে বাড়িতে সিসি ক্যামেরা বসান চক্রধর। সেখানেই ধরা পড়ে রোজালিনের কু-কীর্তি।

নিজের ১৫ মাসের ছেলে ও শাশুড়িকে মারধরের অভিযোগে সিসিটিভি ফুটেজের ভিত্তিতে ওড়িশার পুরী জেলার এক মহিলাকে গ্রেফতার করল পুলিশ। 

পুরীর পুলিশ সুপার অখিলেশ্বর সিং জানিয়েছেন, রোজালিন নায়েক নামে ওই বধূর বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করেছে পুলিশ। অভিযোগের প্রমাণ হিসেবে সিসিটিভি ফুটেজ থানায় জমা দিয়েছেন অভিযুক্তর স্বামী। তবে তার আগে তিনি সোশ্যাল মিডিয়ায় সেই ফুটেজ পোস্ট করেন। 

পুরী জেলার পুলিশ সুপার জানিয়েছেন, ‘ভিডিয়ো ক্লিপিংটি গত জুলাই মাসের। ভিডিয়োয় দেখা গিয়েছে, নিজের ১৫ মাস বয়েসি ছেলেকে মারধর করার সময় লাথি মারছেন ওই মহিলা। তিনি নিজের শাশুড়িকেও একই সঙ্গে মারধর করেছেন। অভিযুক্তকে গ্রেফতার করা হয়েছে।’ 

ঘটনার বিষয়ে উদ্বেগ প্রকাশ করেছে পুরী শিশু কল্যাণ কমিটি। 

সোশ্যাল মিডিয়ায় স্ত্রী রোজালিনের কুকীর্তির ভিডিয়ো ক্লিপিং পোস্ট করেন চক্রধর নায়েক। প্রতিবেশীদের থেকে স্ত্রীয়ের আচরণের বিষয়ে জানার পরে বাড়িতে সিসি ক্যামেরা বসান চক্রধর। সেই ক্যামেরায় ওঠা ভিডিয়োয় দেখা গিয়েছে, শিশুটির হাত-পা বেঁধে তাকে লাথি মারছেন রোজালিন। 

চক্রধরের দাবি, ‘আমার বৃদ্ধ বাবা-মাকে স্ত্রী মারধর করত। ও আমাদের শিশুপুত্রকেও বেধড়ক মারত। কোনও উপায় না দেখে শেষে বাড়িতে সিসি ক্যামেরা বসাই।’

তবে তাঁর অভিযোগ, বিষয়টি পুলিশকে জানালেও প্রথমে তারা কোনও ব্যবস্থা নিতে চায়নি।

অন্য দিকে রোজালিনের বক্তব্য, তাঁর স্বামী চক্রধর পরিবারের যত্ন নেন না এবং খাবারের ব্যবস্থাও করেন না।

বন্ধ করুন