বাংলা নিউজ > ঘরে বাইরে > আধিপত্য বিস্তারের লড়াই? রোহিঙ্গা ক্যাম্পে গুলি চালিয়ে অপহরণের অভিযোগ
কক্সবাজারের উখিয়ায় শরণার্থী ক্যাম্পে গুলি চালিয়ে একজনকে অপহরণ করেছে রোহিঙ্গা দুষ্কৃতীরা৷ এমনই অভিযোগ উঠল। (ছবিটি প্রতীকী, সৌজন্য রয়টার্স)
কক্সবাজারের উখিয়ায় শরণার্থী ক্যাম্পে গুলি চালিয়ে একজনকে অপহরণ করেছে রোহিঙ্গা দুষ্কৃতীরা৷ এমনই অভিযোগ উঠল। (ছবিটি প্রতীকী, সৌজন্য রয়টার্স)

আধিপত্য বিস্তারের লড়াই? রোহিঙ্গা ক্যাম্পে গুলি চালিয়ে অপহরণের অভিযোগ

  • অভিযোগ, ৫০ বা ৬০ জন অজ্ঞাত দুর্বৃত্ত অস্ত্রের মুখে ওই ব্যক্তিকে বাড়ি থেকে তুলে নিয়ে যায়৷

কক্সবাজারের উখিয়ায় শরণার্থী ক্যাম্পে গুলি চালিয়ে একজনকে অপহরণ করেছে রোহিঙ্গা দুষ্কৃতীরা৷ এমনই অভিযোগ উঠল। অভিযোগ, ৫০ বা ৬০ জন অজ্ঞাত দুর্বৃত্ত অস্ত্রের মুখে ওই ব্যক্তিকে বাড়ি থেকে তুলে নিয়ে যায়৷

রবিবার রাত সোয়া ৮ টায় উখিয়া উপজেলার রাজাপালং ইউনিয়নের কুতুপালং ৭ নম্বর রোহিঙ্গা ক্যাম্পের ডি-৯ ব্লকের এ ঘটনায় একজন আহত হয়েছে বলে ডয়চে ভেলের কনটেন্ট পার্টনার বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকমকে জানিয়েছেন এপিবিএন ১৪ এর অধিনায়ক পুলিশ সুপার নইমুল হক৷

প্রাথমিকভাবে এপিবিএন ধারণা করছে, আধিপত্য বিস্তারের জেরে প্রতিপক্ষের রোহিঙ্গা সন্ত্রাসীরা এ ঘটনা ঘটিয়েছে৷ অপহৃত ৩৮ বছরের আবু সৈয়দ ওরফে আবদুল্লাহ উখিয়ার কুতুপালং ৭ নম্বর রোহিঙ্গা ক্যাম্পের ডি-ব্লকের আলি আহম্মদের ছেলে৷ আর গুলিবিদ্ধ ৩৭ বছর বয়সি এনামুল হাসান ক্যাম্পের একই ব্লকের তোফায়েল আহমদের ছেলে৷

পুলিশ সুপার নইমুল হক বলেন, রাতে উখিয়ার কুতুপালং রোহিঙ্গা ক্যাম্পের বাসিন্দা আবু সৈয়দকে অস্ত্রের মুখে বাড়ি থেকে তুলে নিয়ে যায় রোহিঙ্গা সন্ত্রাসী মোহাম্মদ জোবায়ের ওরফে কালা জোবায়ের নেতৃত্বে ৫০-৬০ জন অজ্ঞাত দুর্বৃত্ত৷ এতে বাধা দিলে রোহিঙ্গা দুর্বৃত্তরা এনামুল হাসানকে গুলি করে৷ এপিবিএন সদস্যরা এনামুল হাসানকে উদ্ধার করে রোহিঙ্গা ক্যাম্পের স্থানীয় তুর্কি হাসপাতালে ভরতি করেছে৷

পুলিশ সুপার বলেন, 'স্থানীয় বাসিন্দারা জানিয়েছেন, মোহাম্মদ জোবায়ের ও আবু সৈয়দের নেতৃত্বে পৃথক দুটি রোহিঙ্গা সন্ত্রাসী গোষ্ঠী ক্যাম্পে সক্রিয় রয়েছে৷ আধিপত্য বিস্তারের জেরে প্রতিপক্ষের সন্ত্রাসীরা আবু সৈয়দকে অপহরণ করে নিয়ে যায়৷ আর গুলিবিদ্ধ এনামুল হাসান রোহিঙ্গা সন্ত্রাসী আবু সৈয়দের সমর্থক৷' অপহৃত রোহিঙ্গাকে উদ্ধারে এপিবিএন রোহিঙ্গা ক্যাম্পের বিভিন্ন এলাকায় অভিযান অব্যাহত রয়েছে বলে পুলিশ সুপার নইমুল হক জানান৷

বন্ধ করুন