বাংলা নিউজ > ঘরে বাইরে > IT returns deadline: শেষের পথে আয়কর রিটার্নের সময়সীমা, জরিমানা থেকে বাঁচতে এই তারিখের আগেই করুন ফাইল
ফাইল ছবি : পিটিআই (PTI)
ফাইল ছবি : পিটিআই (PTI)

IT returns deadline: শেষের পথে আয়কর রিটার্নের সময়সীমা, জরিমানা থেকে বাঁচতে এই তারিখের আগেই করুন ফাইল

  • নিয়ম অনুযায়ী নির্দিষ্ট সময়ের মধ্যে করদাতা যদি কর জমা করতে ব্যর্থ হন, তবে বকেয়ার উপর সুদ গুনতে হয়। 

করোনা আবহে আয়কর রিটার্ন ফাইলের সময়সীমা বাড়িয়ে ৩০ সেপ্টেম্বর করা হয়েছিল। এই সময়সীমার পর রিটার্ন ফাইল করলে দিতে হবে ৫ হাজার টাকা জরিমানা। এমনটাই জানানো হল আয়কর বিভাগের তরফে। নিয়ম অনুযায়ী নির্দিষ্ট সময়ের মধ্যে করদাতা যদি কর জমা করতে ব্যর্থ হন, তবে বকেয়া আয়করের উপর সেই করদাতাকে সুদ গুনতে হবে। তাই চলতি বছরে জরিমানা থেকে বাঁচতে করদাতাদের নিজেদের আয়কর রিটার্ন ফাইল করতে হবে ৩০ সেপ্টেম্বরের মধ্যে।

এদিকে 'বিবাদ সে বিশ্বাস' প্রকল্পের আওতায় টাকা প্রদানের মেয়াদও বাড়িয়ে ৩০ সেপ্টেম্বর পর্যন্ত করা হয়েছিল কেন্দ্রের তরফে। ফলে কোনও বাড়তি টাকা না দিয়েই আগামী ৩০ সেপ্টেম্বর পর্যন্ত প্রত্যক্ষ কর সংক্রান্ত বিবাদ মেটানোর প্রকল্পে টাকা জমা দেওয়া যাবে। সেন্ট্রাল বোর্ড ডিরেক্ট ট্যাক্সেসের (সিবিডিটি) তরফে জানানো হয়েছে, তিন নম্বর ফর্ম (ফর্ম ৩) দিতে এবং সংশোধন করতে কিছু সমস্যার মুখে পড়তে হচ্ছে। যে ফর্ম 'বিবাদ সে বিশ্বাস' আইনের আওতায় টাকা জমা দেওয়ার জন্য আবশ্যিক। সেই পরিস্থিতিতে টাকা প্রদানের মেয়াদ ৩১ অগস্ট থেকে বাড়িয়ে করা হচ্ছে ৩০ সেপ্টেম্বর।

অপরদিকে গত অর্থবর্ষে সফটওয়ারের ত্রুটিতে আয়কর রিটার্নসের সময় বাড়তি সুদ বা লেট ফি দিতে হয়েছে অনেক করদাতাকেই। তাঁদের সেই বাড়তি টাকা ফিরিয়ে দেবে আয়কর দফতর। করোনা ভাইরাস পরিস্থিতিতে আয়কর রিটার্নস ফাইলের সময়সীমা ৩১ জুলাই থেকে বাড়িয়ে ৩০ সেপ্টেম্বর করা হয়েছে। তবে করদাতাদের একাংশের অভিযোগ ছিল, ৩১ জুলাইয়ের পর রিটার্নস জমা দেওয়ার ক্ষেত্রে লেট ফি কেটে নেওযা হচ্ছে। দিতে হয়েছে বাড়তি সুদ।

বন্ধ করুন