বাড়ি > ঘরে বাইরে > অন্ধ্র প্রদেশের কারখানায় অ্যামোনিয়া গ্যাস লিক করে মৃত্যু ম্যানেজারের, অসুস্থ ৩
ঘটনাস্থলে দ্রুত অ্যাম্বুল্যান্স ও দমকলের ইঞ্জিন নিয়ে পৌঁছে যান বিপর্যয় মোকাবিলা দফতরের কর্মীরা।
ঘটনাস্থলে দ্রুত অ্যাম্বুল্যান্স ও দমকলের ইঞ্জিন নিয়ে পৌঁছে যান বিপর্যয় মোকাবিলা দফতরের কর্মীরা।

অন্ধ্র প্রদেশের কারখানায় অ্যামোনিয়া গ্যাস লিক করে মৃত্যু ম্যানেজারের, অসুস্থ ৩

  • কারখানা থেকে ঝাঁঝালো গন্ধযুক্ত গ্যাস ছড়িয়ে পড়লে স্থানীয়দের মধ্যে আতঙ্ক সৃষ্টি হয়।

শনিবার অন্ধ্র প্রদেশের কার্নুল জেলার নান্ডিয়াল শহরে কারখানায় অ্যামোনিয়া গ্য়াস লিক করে মারা গেলেন বছর পঞ্চাশের এক কর্মী, অসুস্থ আরও তিন জন।

কার্নুলের জেলা শাসক জি বীরাপান্ডিয়ান জানিয়েছেন, নন্দ গ্রুপ অফ ইন্ডাস্ট্রিজ-এর শাখা সংস্থা স্পাই অ্যাগ্রো ইন্ডাস্ট্রিজ লিমিটেড-এর উদুমালপুরমের কারখানায় এ দিন সকালে হঠাৎ একটি ট্যাঙ্ক থেকে অ্যামোনিয়া গ্যাস লিক করতে শুরু করে। 

ঘটনায় স্পাই অ্যাগ্রো ইন্ডাস্ট্রিজ লিমিটেড-এর জেনারেল ম্যানেজার শ্রীনিবাস রাও মারা যান। সেই সময় কারখানায় উপস্থিত ছিলেন সংস্থার মাত্র ৫ জন কর্মী। নিঃশ্বাসের সঙ্গে শরীরে গ্যাস প্রবেশ করলে জ্ঞান হারান রাও ছাড় আরও তিন কর্মী। তাঁদের নান্ডিয়াল হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।

এ দিকে কারখানা থেকে ঝাঁঝালো গন্ধযুক্ত গ্যাস ছড়িয়ে পড়লে স্থানীয়দের মধ্যে আতঙ্ক সৃষ্টি হয়। ভয়ে তাঁরা ছুটোছুটি শুরু করে দেন। এর পর ঘটনাস্থলে দ্রুত অ্যাম্বুল্যান্স ও দমকলের ইঞ্জিন নিয়ে পৌঁছে যান বিপর্যয় মোকাবিলা দফতরের কর্মীরা। ঘটনাস্থলে পৌঁছান স্বয়ং জেলাশাসক ও পুলিশ সুপার।

বীরাপান্ডিয়ান জানিয়েছেন, গ্যাস লিক করা নিয়ে সব রকম সুরক্ষামূলক ব্যবস্থা নিয়েছে কারখানা কর্তৃপক্ষ। যুদ্ধকালীন তৎপরতায় পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণ করা হয়েছে। তাঁর দাবি, স্থানীয়দের আতঙ্কের কারণ নেই। 

আদতে শস্যনির্ভর ভাটিখানা স্পাই অ্যাগ্রো ইন্ডাস্ট্রি প্রতিদিন ১,৫০,০০০ লিটার গ্রেন নিউট্রাল অ্যালকোহল তিরে করে এই সংস্থা। 

প্রসঙ্গত, গত ৭ মে বিশাখাপত্তনমের আর আর ভেঙ্কটপুরমে এল জি পলিমার্স লিমিটেড সংস্থার কারখানায় বিষাক্ত স্টাইরিন গ্যাস লিক করে ১২ জনের মৃত্যু হয় এবং প্রায় ৫০০ জন অসুস্থ হয়ে পড়েন।

 

বন্ধ করুন