বাংলা নিউজ > ঘরে বাইরে > OROP Verdict: বহাল থাকছে ‘এক পদ এক পেনশন’ নীতি, রায় সুপ্রিম কোর্টের, বকেয়া নিয়েও নির্দেশ

OROP Verdict: বহাল থাকছে ‘এক পদ এক পেনশন’ নীতি, রায় সুপ্রিম কোর্টের, বকেয়া নিয়েও নির্দেশ

বহাল থাকছে ‘এক পদ এক পেনশন’ নীতি, রায় সুপ্রিম কোর্টের (ছবি সৌজন্যে পিটিআই) (PTI)

সুপ্রিম কোর্ট জানিয়ে দিল কেন্দ্রের 'এক পদ এক পেনশন' বহাল থাকছে।

আজ রায়দান করে সুপ্রিম কোর্ট জানিয়ে দিল কেন্দ্রের 'এক পদ এক পেনশন' বহাল থাকছে। শীর্ষ আদালত এদিন বলেছে যে প্রাক্তন সেনাদের পেনশন ২০১৯ সালের ১ জুলাই থেকে পুনরায় নির্ধারণ করা হবে এবং ৩ মাসের মধ্যে বকেয়া পরিশোধ করা হবে। এদিন বিচারপতি ডিওয়াই চন্দ্রচূড়ের নেতৃত্বাধীন বেঞ্চ বলে যে ‘এক পদ এক পেনশন’ নীতি এবং নভেম্বর ২০১৫ সালে ৭ নভেম্বরের বিজ্ঞপ্তিতে কোনও সাংবিধানিক দুর্বলতা খুঁজে পাননি।

অবসরপ্রাপ্ত ফৌজিদের পেনশনের বিষয়টি পর্যালোচনা করার আর্জি জানিয়ে সুপ্রিম কোর্টে মামলা করেছিল ‘ইন্ডিয়ান এক্স-সার্ভিসম্যান মুভমেন্ট’। একইসঙ্গে ২০১৪ সালের বেতনের উপর ভিত্তি করে পেনশন নির্ধারণের আর্জিও জানানো হয়েছিল। ২০১১ সালে রাজ্যসভার পেনশন কমিটির রিপোর্টের উপর নির্ভর করে সেই মামলা দায়ের করা হয়েছিল। ‘এক পদ, এক পেনশন’-কে সমসংখ্যক বছর চাকরি এবং একই পদে অবসর নেওয়া ফৌজিদের অভিন্ন পেনশন হিসেবে ব্যাখ্যা করেছিল কমিটি।

উল্লেখ্য কমিটির নেতৃত্বে ছিলেন বর্ষীয়ান বিজেপি নেতা ভগৎ সিং কোশিয়ারি। কমিটির তরফে স্পষ্টভাবে জানানো হয়েছিল, ‘এক পদ, এক পেনশন’-এর আওতায় ফৌজিরা কবে অবসর গ্রহণ করেছেন, তা বিবেচ্য নয়। মামলাকারী সংগঠনের দাবি, ‘এক পদ, এক পেনশন’-এর ক্ষেত্রে যে লক্ষ্য নেওয়া হয়েছিল, সেটি আদতে বাস্তবায়িত হয়নি। বর্তমান নিয়ম অনুযায়ী, পাঁচ বছর অন্তর পেনশনের বিষয়টি পর্যালোচনা করা হয় এবং ২০১৩ সালের বেতনের ভিত্তিতে পেনশন নির্ধারিত হয়। এই আবহে মামলাকারীদের আর্জি খতিয়ে দেখে শীর্ষ আদালত জানায়, ২০১৯ সালের ১ জুলাই থেকে পুনরায় নির্ধারণ করা হবে পেনশন। তবে এক পেনশন এক পদ নীতিতে কোনও পরিবর্তন।

 

বন্ধ করুন