বাংলা নিউজ > ঘরে বাইরে > গোয়ায় তৃণমূলের দিকে হাত বাড়াতে ইচ্ছুক কংগ্রেস? চিদম্বরমের মন্তব্যে জোর জল্পনা
প্রাক্তন কেন্দ্রীয় অর্থমন্ত্রী পি চিদম্বরম (ফাইল ছবি, সৌজন্য মিন্ট)
প্রাক্তন কেন্দ্রীয় অর্থমন্ত্রী পি চিদম্বরম (ফাইল ছবি, সৌজন্য মিন্ট)

গোয়ায় তৃণমূলের দিকে হাত বাড়াতে ইচ্ছুক কংগ্রেস? চিদম্বরমের মন্তব্যে জোর জল্পনা

  • চিদম্বরম মন্তব্য করেন, ‘বিজেপিকে হারাতে যেকোনও দলের থেকে সমর্থন পেতে প্রস্তুত কংগ্রেস।’

শুক্রবারই প্রকাশ হয়েছে গোয়া বিধানসভা নির্বাচনের দিনক্ষণ। আর নির্বাচনী নির্ঘণ্ট বাজতেই বিজেপি বিরোধী সব দলের দিকে হাত বাড়িয়ে দেওয়ার ইঙ্গিত দিল কংগ্রেস। শনিবার কংগ্রেসের বর্ষীয়ান নেতা পি চিদম্বরম মন্তব্য করেন, ‘বিজেপিকে হারাতে যেকোনও দলের থেকে সমর্থন পেতে প্রস্তুত কংগ্রেস।’ আর এরপরই গোয়ার রাজনৈতিক মহলে জল্পনা তুঙ্গে। প্রশ্ন ওঠে, তাহলে কি কংগ্রেস তৃণমূল এবং আম আদমি পার্টিকে বার্তা দিচ্ছে?

উল্লেখ্য, বিগত কয়েক মাস ধরেই গোয়ায় কংগ্রেসে লাগাতার ভাঙন ধরিয়ে নিজেদের দল ভারী করতে ব্যস্ত তৃণমূল কংগ্রেস। এই পরিস্থিতিতে তৃণমূল বিজেপিকে সাহায্য করে দিচ্ছে বলে অভিযোগ করেছিল কংগ্রেস। তৃণমূলের সঙ্গে আবার জোট বেঁধেছে মহারাষ্ট্রবাদী গোমন্তক পার্টি। অপরদিকে আম আদমি পার্টি গোয়ায় এবার ভালো ফল করতে পারে বলে ইঙ্গিত মিলেছে বেশ কিছু জনমত সমীক্ষায়। যদিও কংগ্রেসের সঙ্গে আম আদমি পার্টির সম্পর্ক খুবই খারাপ। দিল্লি এবং পঞ্জাবের মতো জায়াগাতে কংগ্রেসের সঙ্গে সম্মুখ সমরে রযেছে আম আদমি পার্টি। তবে বিজেপিকে ঠেকাতে গোয়ায় কি এই দলগুলিরই সমর্থন পেতে মরিয়া কংগ্রেস?

উল্লেখ্য, গোয়ায় তৃণমূলের দায়িত্বে থাকা নেত্রী মহুয়া মৈত্র এর আগে মন্তব্য করেছিলেন যে তাঁর দল কংগ্রেস ও গোয়া ফরোয়ার্ড পার্টির সঙ্গে প্রাকনির্বাচনী জোট গড়তে প্রস্তুত ছিল। মহুয়ার এই মন্তব্যের প্রেক্ষিতেই চিদম্বরম বলেন, ‘আমি তৃণমূল নেত্রীর মন্তব্য পড়েছি সংবাদপত্রে। কংগ্রেস গোয়ায় নিজের দমে বিজেপিকে হারাতে পারে। তবে বিজেপিকে হারাতে যদি কোনও দল কংগ্রেসকে সমর্থন করতে চায়, তাহলে তাদের স্বাগত জানাবে দল।’

উল্লেখ্য, গত নির্বাচনে গোয়ায় সর্ববৃহত দল হওয়া সত্ত্বেও কংগ্রেস সরকার গড়তে পারেনি। ৪০ আসন বিশিষ্ট গোয়া বিধানসভায় কংগ্রেস পেয়েছিল ১৭টি আসন। অপরদিকে বিজেপির ঝুলিতে গিয়েছিল মাত্র ১৩টি আসন। তা সত্ত্বেও সরকার গড়েছিল বিজেপি। পরে কংগ্রেসে ভাঙন ধরায় গেরুয়া শিবির। এমন অবস্থা হয়, চলতি বিধানসভার মেয়াদ শেষ হতে হতে গোয়ায় কংগ্রেসের বিধায়ক সংখ্যা ১৭ থেকে নেমে ২ হয়। এহেন পরিস্থিতিতে ২০২২ সালে কংগ্রেস বিজেপিকে গোয়ায় টেক্কা দিতে পারে কিনা, তাই দেখার।

বন্ধ করুন