বাংলা নিউজ > ঘরে বাইরে > ফ্রান্সের প্রেসিডেন্টকে ‘নাৎসি’ ডাকার পরে বিতর্কিত টুইট মুছলেন পাকিস্তানের মন্ত্রী
ফরাসি প্রেডেন্ট ইম্যানুয়েল মাকরঁকে ‘নাৎসি’ বলে ডাকলেন পাক মন্ত্রী।

ফ্রান্সের প্রেসিডেন্টকে ‘নাৎসি’ ডাকার পরে বিতর্কিত টুইট মুছলেন পাকিস্তানের মন্ত্রী

  • পাক মানবাধিকার মন্ত্রীর দাবি, ইহুদিদের প্রতি নাৎসিরা যে আচরণ করেছিল মুসলিমদের প্রতি তেমনই আচরণ করছেন মাকরঁ।

ফ্রান্সের প্রেসিডেন্ট ইম্যানুয়েল মাকরঁর সঙ্গে নাৎসিদের তুলনা টানার পরে টুইটার থেকে সেই মন্তব্য মুছে ফেললেন পাকিস্তানের মানবাধিকার মন্ত্রী শিরীন মাজারি। 

একটি অনলাইন প্রতিবেদনের জেরে গত শনিবার মাজারি টুইটারে মন্তব্য করেন, ‘ইহুদিদের প্রতি নাৎসিরা যে আচরণ করেছিল মুসলিমদের প্রতি তেমনই আচরণ করছেন মাকরঁ। শুধুমাত্র মুসলিম শিশুদের পরিচিতিমূলক সংখ্যা দেওয়া হবে (অন্য শিশুদের জন্য নয়), ঠিক যে ভাবে ইহুদিদের পরিচিতির জন্য পোশাকের উপরে হলুদ তারা পরতে বাধ্য করেছিল নাৎসি সরকার।’

মাজারির এই টুইটের কড়া সমালোচনা করে তা প্রত্যাহারের দাবি  জানায় ফ্রান্স। এর পরেই টুইটার থেকে বিতর্কিত মন্তব্যটি মুছে ফেলেন পাক মন্ত্রী। 

সম্প্রতি পাক সংবাদপত্র ডন-এর বৈদ্যুতিন সংস্করণে একটি প্রতিবেদন প্রকাশিত হয়, যেখানে দাবি করা হয় যে নতুন আইন পাশ করে ফ্রান্সের মুসলিম শিশুদের একটি সংখ্যা পরিচিতির নিয়ম আবশ্যিক করতে চলেছে মাকরঁ প্রশাসন। পরে অবশ্য প্রতিবেদন সংশোধন করে লেখা হয়, শুধু মুসলিম নয়, সব শিশুদের ক্ষেত্রেই এই নিয়ম চালু করছে ফরাসি সরকার। 

তার জেরে আগের টুইট মুছে দিয়ে মাজারি ফের মন্তব্য করেছেন, যে প্রতিবেদনের প্রেক্ষিতে তিনি মন্তব্য করেছিলেন, তা সংশোধন করা হয়েছে বলেই পুরনো টুইটটি তিনি মুছে দিয়েছেন। পাকিস্তানে নিয়োজিত ফরাসি রাষ্ট্রদূতের থেকে বার্তা পেয়েই নিজের ভুল শুধরে নিয়েছেন বলে জানিয়েছেন পাকিস্তানের মানবাধিকার মন্ত্রী। 

মাজারির প্রথম টুইটটির কড়া সমালোচনা করে ফরাসি সরকারের ইউরোপ ও বিদেশ মন্ত্রক। পাশাপাশি, পাক মন্ত্রীর টুইট সংশোধন করার দাবিও জানানো হয়। পাকিস্তানে নিয়োজিত ফ্রান্সের চার্জ ডি অ্যাফেয়ার্সকে এই মর্মে নির্দেশ দেওয়া হয়েছে বলেও জানায় মন্ত্রক। 

উল্লেখ্য, গত একমাসে ব্যঙ্গ পত্রিকা শার্লি এবদো একটি ব্যঙ্গচিত্র পুনঃপ্রকাশের ঘোষণা এবং তার বিরুদ্ধে ফরাসি প্রেসিডেন্ট মাকরঁ কোনও পদক্ষেপ না করায় একাধিক সন্ত্রাসমূলক হামলার সাক্ষী থেকেছে ফ্রান্স।

বন্ধ করুন