বাড়ি > ঘরে বাইরে > ৪ ভারতীয়কে ‘সন্ত্রাসবাদী’ বলে প্রমাণের অভাবে রাষ্ট্রপুঞ্জে মুখ পুড়ল পাকিস্তানের
অভিযোগের সপক্ষে উপযুক্ত প্রমাণ দাখিল করতে ব্যর্থ হওয়ায় বুধবার আন্তর্জাতিক দরবারে মুখ পুড়ল পাকিস্তানের।
অভিযোগের সপক্ষে উপযুক্ত প্রমাণ দাখিল করতে ব্যর্থ হওয়ায় বুধবার আন্তর্জাতিক দরবারে মুখ পুড়ল পাকিস্তানের।

৪ ভারতীয়কে ‘সন্ত্রাসবাদী’ বলে প্রমাণের অভাবে রাষ্ট্রপুঞ্জে মুখ পুড়ল পাকিস্তানের

  • দুই ভারতীয়কে সন্ত্রাসবাদী প্রতিপন্ন করার পাকিস্তানি চেষ্টা খারিজ করে দিল রাষ্ট্রপুঞ্জের নিরাপত্তা পরিষদ।

দুই ভারতীয় নাগরিককে সন্ত্রাসবাদী প্রতিপন্ন করার পাকিস্তানি চেষ্টা খারিজ করে দিল রাষ্ট্রপুঞ্জের নিরাপত্তা পরিষদ। অভিযোগের সপক্ষে উপযুক্ত প্রমাণ দাখিল করতে ব্যর্থ হওয়ায় বুধবার আন্তর্জাতিক দরবারে মুখ পুড়ল ইসলামাবাদের।

রাজনৈতিক পর্যবেক্ষকদের মতে, ২০১৯ সালে জইশ-ই-মহম্মদ প্রতিষ্ঠাতা মাসুদ আজহারকে আন্তর্জাতিক সন্ত্রাসবাদী তালিকার অন্তর্ভুক্ত করায় ভারতের সাফল্যের পালটা হিসেবে এই পদক্ষেপ করার চেষ্টায় ছিল পাকিস্তান। আল-কায়দা, তালিবান ও তাদের সহযোগী সন্ত্রাসবাদী সংগঠনের সঙ্গে ঘনিষ্ঠ যোগের প্রমাণ পাওয়ায় মাসুদকে ওএই তালিকাভুক্ত করে রাষ্ট্রপুঞ্জের ১২৬৭ মঞ্জুর কমিটি।

মোট চার জন ভারতীয়র বিরুদ্ধে সন্ত্রাসবাদী কার্যকলাপের অভিযোগ তোলে পাকিস্তান। রাষ্ট্রপুঞ্জের নিরাপত্তা পরিষদে তাঁদের বিরুদ্ধে রাষ্ট্রীয় মদতে নাশকতা ছড়ানোর অভিযোগ আনা হয়। শুধু তাই নয়, তেহরিক-ই-তালিবান ও জামাত-উল-আহরার-এর মতো পাক সন্ত্রাসবাদী সংগঠনের সহযোগী আফগান জঙ্গি সংগঠনের সক্রিয় সদস্য হিসেবেও তাঁদের বিরুদ্ধে অভিযোগ জানানো হয়। 

তবে দুই ভারতীয় বেণুমাধব ডোঙ্গারা ও অজয় মিস্ত্রির বিরুদ্ধে আনা পাকিস্তানের সমস্ত অভিযোগ গত জুন ও জুলাই মাসে খারিজ করে দেয় নিরাপত্তা পরিষদ। জানা গিয়েছে, মূলত আমেরিকা, ব্রিটেন, ফ্রান্স ও জার্মানির সম্মিলিত চেষ্টার ফলেই পাকিস্তানের কৌশল ভেস্তে যায়। 

এ ছাড়া, গোবিন্দ পট্টনায়েক আঙ্গারা আপ্পাজি নামে অন্য দুই ভারতীয়র বিরুদ্ধে আনা অভিযোগও আমেরিকা, ব্রিটেন, জার্মানি, ফ্রান্স ও বেলজিয়ামের সম্মিলিত প্রযুক্তিগত বাধার সামনে আটকে যায় বলে খবর। অভিযুক্তদের বিরুদ্ধে উপযুক্ত প্রমাণ দিতে না পারায় ইসলামাবাদের দাবি বাতিল করে দেয় রাষ্ট্রপুঞ্জের নিরাপত্তা পরিষদ।

 

বন্ধ করুন