বাংলা নিউজ > ঘরে বাইরে > ভয় পেয়েই অভিনন্দনকে মুক্তি, মন্তব্যের জেরে কোপে ‘বিশ্বাসঘাতক’ পাক বিরোধী নেতা
চাপে পড়ে ধরা পড়া আইএএফ উইং কম্যান্ডার অভিনন্দন বর্তমানকে ভারতের হাতে তুলে দেওয়া হয়েছে, মন্তব্য করেন পাকিস্তানের বিরোধী নেতা সর্দার মির আয়াজ সাদিক।
চাপে পড়ে ধরা পড়া আইএএফ উইং কম্যান্ডার অভিনন্দন বর্তমানকে ভারতের হাতে তুলে দেওয়া হয়েছে, মন্তব্য করেন পাকিস্তানের বিরোধী নেতা সর্দার মির আয়াজ সাদিক।

ভয় পেয়েই অভিনন্দনকে মুক্তি, মন্তব্যের জেরে কোপে ‘বিশ্বাসঘাতক’ পাক বিরোধী নেতা

  • লাহোরে সাদিকের ছবিওয়ালা পোস্টারে ‘বিশ্বাসঘাতক’ লিখে যত্রতত্র সাঁটা হচ্ছে। কোনও পোস্টারে আবার অভিনন্দনের উর্দিতে সাদিককে সাজিয়ে ছবি ছাপা হচ্ছে এবং তার নীচে লেখা হচ্ছে, ‘মির সাদিক, মির জাফর..আয়াজ সাদিক।’

চাপে পড়ে ধরা পড়া আইএএফ উইং কম্যান্ডার অভিনন্দন বর্তমানকে ভারতের হাতে তুলে দেওয়া হয়েছে, এই মন্তব্য করার জেরে বিরোধী নেতা সর্দার মির আয়াজ সাদিকের বিরুদ্ধে দেশদ্রোহিতার মামলা করতে চলেছে পাকিস্তান সরকার। রবিবার সেই সম্ভাবনার কথা জানিয়েছেন পাক মন্ত্রিসভার এক শীর্ষস্থানীয় সদস্য। 

গত বুধবার পাকিস্তান মুসলিম লিগ-নওয়াজ (পিএমএল-এন) নেতা সাদিক রাজনৈতিক বৈঠকে মন্তব্য করেন, ‘পা কাঁপছিল এবং কপালে ঘামের ফোঁটা জমছিল’। বৈঠকে উপস্থিত ছিলেন পাক সেনাধ্যক্ষ জেনারেল কামার জাভেদ বাজওয়া, বিদেশমন্ত্রী শাহ মাহমুদ কুরেশি-সহ দেশের তাবড় রাজনৈতিক নেতৃবৃন্দ। 

সাদিক ওই বৈঠকে বলেন, ‘সবার পা কাঁপছিল আর কপালে ঘামের বিন্দু জমছিল এবং বিদেশমন্ত্রী আমাদের বলেছিলেন, ঈশ্বরের দোহাই এবার ওকে (অভিনন্দন বর্তমান) ফেরত পাঠাও, কারণ আজ রাত ৯টায় ভারত পাকিস্তান আক্রমণ করতে চলেছে। আসলে ভারত মোটেই পাকিস্তান আক্রমণের পরিকল্পনা করেনি। ওরা চেয়েছিল পাকিস্তান ওদের সামনে নতজানু হোক এবং অভিনন্দনকে ফেরত পাঠাক।’

সাদিকের এই মন্তব্যের জবাবে পাকিস্তানের অভ্যন্তরীণ বিষয়ক মন্ত্রী ইজাজ শাহ বলেন, বিরোধী নেতার নামে বেশ কিছু অভিযোগ জমা পড়ায় তাঁর বিরুদ্ধে দেশদ্রোহিতার মামলা করার কথা চিন্তা করা হচ্ছে। তিনি বলেন, যাঁরা ভারতের প্রতি অনুরক্ত, তাঁদের অমৃতসরে গিয়ে বসবাস করা উচিত। 

তাঁর এই মন্তব্যের জেরে ইতিমধ্যে লাহোরে সাদিকের ছবিওয়ালা পোস্টারে ‘বিশ্বাসঘাতক’ লিখে যত্রতত্র সাঁটা হচ্ছে। কোনও পোস্টারে আবার অভিনন্দনের উর্দিতে সাদিককে সাজিয়ে ছবি ছাপা হচ্ছে এবং তার নীচে লেখা হচ্ছে, ‘মির সাদিক, মির জাফর..আয়াজ সাদিক।’

অন্য দিকে, বিরোধীদের গায়ে উদ্দেশ্যপ্রণোদিত ‘বিশ্বাসঘাতক’ তকমা সেঁটে দেওয়ার অভিযোগ তুলেলপাকিস্তানে ক্ষমতাসীন পিটিআই সরকারের বিরুদ্ধে প্রতিবাদে সোচ্চার হয়েছে পিএমএল-এন। দলের পঞ্জাব শাখার সম্পাদক তথা সাংসদ আজমা বোখারি বলেন, যারা সাদিকের বিরুদ্ধে অপপ্রচার চালাচ্ছে তাদের নামে অতীতে একাধিক অভিযোগ জমা পড়েছে। 

উল্লেখ্য, পাক এফ-১৬ যুদ্ধবিমানে আঘাত হানার পরে দুর্ঘটনার জেরে পাকিস্তানে ভেঙে পড়ে ভারতীয় বায়ুসেনার উইং কম্যান্ডার অভিনন্দন বর্তমানের ফাইটার জেট। তাঁকে গ্রেফতার করার পরে ১ মার্চ রাতে মুক্তি দেয় পাকিস্তান সরকার।

বন্ধ করুন