বাংলা নিউজ > ঘরে বাইরে > পাকিস্তানের টিভিতে চলছিল ভারতীয় চ্যানেল, সরকারের রোষের মুখে কেবল সংস্থা

পাকিস্তানের টিভিতে চলছিল ভারতীয় চ্যানেল, সরকারের রোষের মুখে কেবল সংস্থা

ভারতীয় কনটেন্ট দেখানো বন্ধ তৎপর পাকিস্তান। প্রতীকী ছবি : ইনস্টাগ্রাম  (Instagram)

বিবৃতিতে বলা হয়েছে, পাক সুপ্রিম কোর্টের নির্দেশ কেবল অপারেটররা মানছে না এই অভিযোগ তুলেই এই অভিযান করা হয়েছে। বলা হয়েছে, দেশের সমস্ত কেবল অপারেটরদের সতর্ক করে বলা হয়েছে ভারতের কোনও চ্যানেল, সেখানকার কোনও কনটেন্ট সম্প্রচার করা যাবে না। সেগুলিকে আইনবিরুদ্ধে বলে গণ্য করা হবে। 

পাকিস্তানের কেবল টিভিতে ভারতীয় কনটেন্ট দেখানো হচ্ছিল। আর এবার সরকারের রোষের মুখে পড়লেন সেই কেবল অপারেটররা। একেবারে কড়া ব্যবস্থা তাদের বিরুদ্ধে। পাকিস্তানের সেই নজরদারি সংস্থার কর্মীরা সেই দেশের অন্তত চারটি কেবল অপারেটরের অফিসে হানা দেয়। কেন ভারতীয় চ্যানেল দেখানো হচ্ছে সেই অভিযোগ তুলে অভিযানে নামে পাকিস্তান ইলেকট্রনিক মিডিয়া রেগুটেলরি অথরিটি।

সূত্রের খবর, মেসার্স শারজা কেবল নেটওয়ার্ক, মেসার্স করাচি কেবল সার্ভিসের, মেসার্স নিউ স্যাটেলাইট কমিউনিকেশন ও মেসার্স স্টার ডিজিটাল কেবল নেটওয়ার্কের অফিসে হানা দেওয়া হয়। বিবৃতিতে জানানো হয়েছে ওই কেবল অপারেটরের অফিস থেকে কিছু বেআইনী সামগ্রী বাজেয়াপ্ত করা হয়েছে। যারা নিয়ম ভেঙেছেন তাদের বিরুদ্ধে শোকজ নোটিশ পাঠানো হয়েছে।

এদিকে বিবৃতিতে বলা হয়েছে, পাক সুপ্রিম কোর্টের নির্দেশ কেবল অপারেটররা মানছে না এই অভিযোগ তুলেই এই অভিযান করা হয়েছে। বলা হয়েছে, দেশের সমস্ত কেবল অপারেটরদের সতর্ক করে বলা হয়েছে ভারতের কোনও চ্যানেল, সেখানকার কোনও কনটেন্ট সম্প্রচার করা যাবে না। সেগুলিকে আইনবিরুদ্ধে বলে গণ্য করা হবে। জানানো হয়েছে বিবৃতিতে।

সতর্ক করে বলা হয়েছে, PEMRA লাইসেন্স ছাড়া কেবল টিভি নেটওয়ার্ক কোনও চ্যানেল সম্প্রচার করতে পারবে না। কোনও কেবল অপারেটর এই নিয়ম ভাঙলে তার বিরুদ্ধে কঠোরতম ব্যবস্থা নেওয়া হবে। পাকিস্তানে কার্যত কড়া পদক্ষেপ নেওয়া হয়েছে এনিয়ে।

এদিকে ২০১৭ সালে লাহোর হাইকোর্ট এই নিষিদ্ধকরণের বিষয়টি তুলে দিয়েছিল। কারণ সরকারের এনিয়ে কোনও আপত্তি ছিলনা সেই সময়।

এরপর ২০১৮ সালে পাক সুপ্রিম কোর্ট জানিয়ে দেয় টিভি চ্যানেলে ভারতীয় কনটেন্ট দেখানো যাবে না। লাহোর হাইকোর্টের নির্দেশকে খারিজ করে একথা জানিয়েছিল পাক সুপ্রিম কোর্ট।

সূত্রের খবর, পাকিস্তানের কনটেন্ট ও তাদের আর্টিস্টদের ভারতীয় চ্যানেলে সম্প্রচার নিয়ে আপত্তি তুলেছিল ভারতীয় চ্যানেলগুলিও। তবে কি তার পালটা হিসাবে এবার পাকিস্তানের চ্যানেলে ভারতীয় সিনেমা ও অন্যান্য কনটেন্ট দেখানোর ক্ষেত্রে কড়া নিষেধাজ্ঞা জারি করা হল?

এখানেই প্রশ্ন উঠছে তবে কি শাহরুখ খান কিংবা সলমন খানের অভিনীত সিনেমা আর দেখা যাবে না পাকিস্তানে? এদিকে গোটা পৃথিবী জুড়েই বলিউডের সিনেমা বেশ জনপ্রিয়। কিন্তু সেই ভারতীয় কনটেন্টেই এবার আপত্তি শুরু করল পাকিস্তান। এমনকী যারা এসব দেখাচ্ছিলেন তাদের বিরুদ্ধেও শুরু হল দমনপীড়ন।

এই খবরটি আপনি পড়তে পারেন HT App থেকেও। এবার HT App বাংলায়। HT App ডাউনলোড করার লিঙ্ক https://htipad.onelink.me/277p/p7me4aup

 

বন্ধ করুন