বাংলা নিউজ > ঘরে বাইরে > Pakistan: বিয়ের প্রস্তাব প্রত্যাখ্যান করায় মেয়ের বান্ধবীকে নির্যাতন, গ্রেফতার পাকিস্তানি শিল্পপতি

Pakistan: বিয়ের প্রস্তাব প্রত্যাখ্যান করায় মেয়ের বান্ধবীকে নির্যাতন, গ্রেফতার পাকিস্তানি শিল্পপতি

অভিযুক্ত শিল্পপতি শেখ দানিশ।

দানিশ পাকিস্তানের একজন ধনী ব্যবসায়ী এবং একটি টেক্সটাইল ফার্মের পরিচালক। অভিযোগ, ওই তরুণীকে মারধর করার পাশাপাশি তার মাথার চুল এবং ভ্রু কামিয়ে দেওয়া হয়। এমনকি দনিশের মেয়ের চপ্পল চাঁটতে বাধ্য করা হয় নির্যাতিতাকে।

মেডিক্যালের এক ছাত্রীকে নৃশংসভাবে নির্যাতন এবং যৌন হেনস্থার অভিযোগ উঠল পাকিস্তানের শিল্পপতি শেখ দানিশের বিরুদ্ধে। এই অভিযোগে পাকিস্তান পুলিশ দানিশ এবং তার মেয়েকে গ্রেফতার করেছে। নির্যাতিতা তরুণী তার মেয়ের বান্ধবী। তাকে বিয়ে করার জন্য প্রস্তাব দিয়েছিলেন দানিশ। কিন্তু সেই প্রস্তাবে রাজি না হওয়ায় তরুণীকে নৃশংসভাবে নির্যাতন করে দানিশ।

পুলিশ সূত্রে জানা গিয়েছে, দানিশ পাকিস্তানের একজন ধনী ব্যবসায়ী এবং একটি টেক্সটাইল ফার্মের পরিচালক। অভিযোগ, ওই তরুণীকে মারধর করার পাশাপাশি তার মাথার চুল এবং ভ্রু কামিয়ে দেওয়া হয়। এমন কি দনিশের মেয়ের চপ্পল চাঁটতে বাধ্য করা হয় নির্যাতিতাকে। ঘটনার পরে গত ১৫ আগস্ট এই নির্যাতনের একটি ভিডিয়ো প্রকাশ করেন ওই তরুণী। একইসঙ্গে থানাতে অভিযোগ করেন। এর পরে পুলিশ দানিশ এবং তার মেয়ে সহ সাত জনকে গ্রেফতার করে। তাদের বিরুদ্ধে অপহরণ, নির্যাতন, যৌন হেনস্থার অভিযোগ দায়ের হয়েছে বলে জানিয়েছে পুলিশ। মোট ১৫ জনের বিরুদ্ধে অভিযোগ দায়ের হয়েছে। দানিশের স্ত্রী এবং তার দেহরক্ষীও গ্রেফতার হয়েছে। বাকিদের খোঁজ চালাচ্ছে পুলিশ।

যদিও এই সমস্ত অভিযোগের অস্বীকার করেছেন ওই শিল্পপতি। তার বক্তব্য, তাকে ফাঁসানো হয়েছে। নির্যাতিতার অভিযোগ দানিশের মেয়ে আনা আলী তা সহপাঠী। শেখ দানিশ তার বাবার বয়সি। তাই তিনি বিয়ের প্রস্তাব প্রত্যাখ্যান করেছিলেন। এরপরেই তাকে গত ৮ অগস্ট কয়েকজন তার বাড়িতে এসে জোর করে তুলে নিয়ে যায় পুরো ঘটনাটি খতিয়ে দেখছে পুলিশ।

বন্ধ করুন