বাংলা নিউজ > ঘরে বাইরে > Pakistan: দরিদ্র দশা পাকিস্তানে! আইএমএফের কাছে ফের লোন চাইছে ভারতের প্রতিবেশী, সরকারি কোম্পানি বিক্রি করেও রেহাই নেই

Pakistan: দরিদ্র দশা পাকিস্তানে! আইএমএফের কাছে ফের লোন চাইছে ভারতের প্রতিবেশী, সরকারি কোম্পানি বিক্রি করেও রেহাই নেই

দারিদ্রতা মেটাতে বড় পদক্ষেপ প্রধানমন্ত্রীর (REUTERS)

Shahbaz Sharif: সরকারের কাজ ব্যবসা করা নয়, ব্যবসা ও বিনিয়োগের অনুকূল পরিবেশ তৈরি করা সরকারের দায়িত্ব। এমনটাই জানিয়েছেন শাহবাজ শরীফ।

নগদ সংকটে পাকিস্তান। মুদ্রাস্ফীতি, দুর্নীতি এবং সম্পদের অভাবের কারণে একটি ভয়ানক অর্থনৈতিক ট্র্যাজেডিতে ভুগছে দেশটি। কিছুটা রেহাই পেতে পাকিস্তান ইন্টারন্যাশনাল এয়ারলাইন্স সহ সে দেশের বেশিরভাগ সরকারি সংস্থা বিক্রি করার সিদ্ধান্ত নিয়েছিল সরকার। সেভাবে হয়ত সুরাহা মেলেনি। তাই ফের আরও একবার আন্তর্জাতিক মুদ্রা তহবিল অর্থাৎ আইএমএফের থেকে মোটা অঙ্কের লোন চাইছে পাকিস্তান। কিন্তু আন্তর্জাতিক সংস্থার সন্দেহ আছে যে পাকিস্তান ঋণ পরিশোধ করতে পারবে কি না।

উল্লেখ্য, রাজনৈতিক অস্থিতিশীলতা, দুর্নীতি, অব্যবস্থাপনা, কোভিড-১৯ মহামারী, বিশ্বব্যাপী জ্বালানি সংকট এবং জলবায়ু পরিবর্তনজনিত প্রাকৃতিক দুর্যোগ সবই অর্থনীতিতে ব্যাপক প্রভাব ফেলেছে। তাই প্রধানমন্ত্রী শেহবাজ শরীফ বর্তমানে দেশের তীব্র ভারসাম্য-অবশ্য-প্রদান সংকট মোকাবেলায় আন্তর্জাতিক মুদ্রা তহবিলের (আইএমএফ) কাছ থেকে আরও একটি বেলআউট চেয়ে বলেছেন, 'আইএমএফের আরও একবার সাহায্য না করলে আমরা বাঁচতে পারব না।' পাকিস্তানের সঙ্গে আইএমএফের একটি অস্থায়ী, বা স্টাফ-লেভেল চুক্তিতে সম্মত হওয়ার একদিন পরে এই মন্তব্য করেছেন শরীফ। বোর্ড যদি তাঁর আপিল অনুমোদন করে, তাহলে বিদ্যমান ৩ বিলিয়ন ডলারের স্ট্যান্ডবাই ব্যবস্থার অধীনে শেষ কিস্তি হিসাবে ১.১ বিলিয়ন ডলার সাহায্য পাবে পাকিস্তান।

আমেরিকা ভিত্তিক ওই ঋণদাতা সংস্থা ইতিমধ্যেই বলেছে যে ইসলামাবাদ আবেদন করলে তারা একটি মধ্যমেয়াদী সাহায্য দিতে পারে। যদিও পাকিস্তান সরকার দীর্ঘমেয়াদের জন্য যে বড় অঙ্কের বেলআউট চাইছেন, তার পরিমাণ ঠিক কতটা হতে পারে, সে সম্পর্কে কিছুই জানায়নি।

  • পাকিস্তানের অর্থনৈতিক অবস্থার উন্নতি কীভাবে সম্ভব?

পাকিস্তানের ২৪০ মিলিয়নেরও বেশি নাগরিক এখন সংকটে রয়েছেন। দেশের দরিদ্ররা বিশেষভাবে খারাপভাবে ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছেন। ক্রমবর্ধমান মুদ্রাস্ফীতির মধ্যে, প্রায় ৩০ শতাংশের কাছাকাছি পাকিস্তানিরা অপরিহার্য জিনিসপত্রের মূল্য বৃদ্ধি এবং প্রকৃত মজুরিতে তীব্র হ্রাস দেখেছেন। বৈদেশিক মুদ্রার রিজার্ভও কমে এসেছে। হাতে আছে মাত্র ৮ বিলিয়ন ডলার, মোটামুটি আট সপ্তাহের আমদানিতেই এই পরিমাণ শেষ হয়ে যাবে। সব মিলিয়ে এখন প্রবল চাপে দেশটা। তাই করাচি-ভিত্তিক ব্রোকারেজ ফার্ম টপলাইন সিকিউরিটিজের সিইও মোহাম্মদ সোহেল বলেছেন, 'যদি সরকার দীর্ঘমেয়াদী আইএমএফ ঋণ পায় এবং চুক্তির শর্তাবলী মেনে চলে, তাহলেই একমাত্র অর্থনীতির উন্নতি হতে পারে।'

উল্লেখ্য, কয়েকদিন আগেই দেশের সরকারের তরফে জানানো হয়েছিল যে কৌশলগত সরকারি প্রতিষ্ঠান ছাড়া অন্য সমস্ত সরকারি প্রতিষ্ঠান বেসরকারিকরণ করা হবে। স্থানীয় গণমাধ্যমের খবরেও বলা হয়েছে, লোকসানে থাকা রাষ্ট্রীয় মালিকানাধীন প্রতিষ্ঠানের (এসওই) বেসরকারিকরণ করতে চাইছেন শরীফ। বেসরকারিকরণ করার এই সময়ের মধ্যে, কোনও সংস্থা লাভ বা ক্ষতির মুখে পড়ছে কিনা তার ভিত্তিতে কোনও পার্থক্য করা হবে না। শরীফ বিশ্বাস করেন যে রাষ্ট্রীয় মালিকানাধীন প্রতিষ্ঠানের বেসরকারীকরণ করদাতাদের অর্থ সাশ্রয় করবে এবং সরকারকে জনগণকে মানসম্পন্ন সেবা প্রদানে সহায়তা করবে। শরীফ আরও জানিয়েছেন যে, সরকারের কাজ ব্যবসা করা নয়। ব্যবসা ও বিনিয়োগের অনুকূল পরিবেশ তৈরি করাই সরকারের দায়িত্ব।

  • বেসরকারিকরণ দেশটিকে কীভাবে সাহায্য করবে

এ প্রসঙ্গেই অর্থনীতিবিদ ও নীতি বিশ্লেষক সাফিয়া আফতাব ডিডব্লিউকে বলেছেন, বেসরকারিকরণ অবশ্যই প্রয়োজন এবং আমার মতে এটি দীর্ঘ সময়ের অপেক্ষা। বেসরকারীকরণ এবং চাকরি হারানো ইত্যাদি নিয়ে বক্তৃতায় প্রায়শই যা মিস করা হয় তা হ'ল আমরা সবাই, দরিদ্র সহ, এমনই রাষ্ট্রীয় মালিকানাধীন সংস্থাগুলির জন্য অর্থ প্রদান করি, যেগুলি কিছুই করছে না এবং ক্ষতির মধ্যেই চলছে। অনেকেই সরকারের এই বেসরকারিকরণের সিদ্ধান্তে সম্মত। দাবি উঠেছে, এয়ারলাইন এবং অন্যান্য লোকসানকারী সংস্থাগুলির বেসরকারীকরণ পাকিস্তানের পক্ষে কাজ করবে কারণ এটি সরকারী লোকসান কমাবে। দেশটি ১৯৯০ এর দশকের শেষের দিকে ব্যাঙ্কগুলোর একই অবস্থা দেখেছিল এবং বেসরকারীকরণের পরে ব্যাঙ্কগুলো আবার সরকারের পাশে দাঁড়াতে শুরু করেছিল।

  • অর্থনৈতিক পুনরুদ্ধার ধীর হবে

অর্থনীতিবিদ আফতাব বলেছেন, আমদানিতে বিধিনিষেধের প্রভাব উৎপাদনে পড়ে। বিশেষ করে, যখন পাবলিক সেক্টর ডেভেলপমেন্ট প্রোগ্রামের দেশীয় অর্থনীতিতে কম কার্যকলাপ রয়েছে। তাই তিনি ভবিষ্যদ্বাণী করেছিলেন যে অর্থনৈতিক পুনরুদ্ধার ধীর হবে এবং প্রবৃদ্ধি ফিরে আসতে কয়েক বছর সময় লাগবে। আফতাবের দাবি, আইএমএফ কর্মসূচি স্বল্পমেয়াদে উল্লেখযোগ্য অগ্রগতি আনতে পারবে না। তবে এটি চলতি হিসাব এবং রাজস্ব ঘাটতি কমিয়ে আনবে, যা মুদ্রাস্ফীতি স্থিতিশীল করতে সাহায্য করবে।

https://bangla.hindustantimes.com/bengal

ঘরে বাইরে খবর

Latest News

রাতের মেট্রো পরিষেবায় সময়সূচি পরিবর্তন করা হচ্ছে, শেষ ট্রেন কখন পাবেন যাত্রীরা?‌ ১০ দিন পরে প্রথম গ্রেফতারি! অধরা বৈষ্ণোদেবীগামী বাসে জঙ্গি হামলার মাস্টারমাইন্ড ‘হিন্দি বিগ বসের জন্য আমার কাছে অফার…’ Bigg Bos OTTতে থাকতে কলকাতা ছাড়ছেন কিরণ? নওয়াজের নীল-সাদা বাংলোর অন্দরে ঢুঁ মারুন, মুগ্ধ হবেন অভিনেতার এই গুণে নাকের অস্ত্রোপচার করতে না হলেও, গ্রুপ লিগের বাকি ম্যাচ মিস করতে পারেন এমবাপে বিহারে ফের ভেঙে পড়ল নির্মীয়মাণ ব্রিজ, নীতীশদের ঘাড়ে দায় চাপালেন মোদীর মন্ত্রী রোহিত, বিরাটদের স্পেশাল গিফট ক্যারিবিয়ান লেজেন্ডের! কী উপহার পেলেন বার্বাডোজে? আততায়ীদের গুলিতে নিহত ২০১৮-এ জম্মুতে হামলার মূলচক্রী প্রাক্তন পাক ব্রিগেডিয়ার কর্ণাটকে পানীয়র ব্যবসা শুরু করছেন কিংবদন্তি স্পিনার, বিনিয়োগ করবেন ১৪০০ কোটি ‘‌বিরোধীদের উপর যেন কোন আক্রমণ না হয়’‌, সতর্ক করে দিলেন বাঁকুড়ার তৃণমূল সাংসদ

T20 WC 2024

'ভারতীয় না পাকিস্তানি যেই হোক', রউফ কাণ্ডে প্যাঁচ রিজওয়ানের, সমঝে দিল নেটপাড়া ‘পিচ কেমন?’ সুপার আটের ম্যাচ খেলতে নামার আগে রোহিতকে বড় আপডেট দিলেন বুমরাহ নবিকে ছিটকে দিয়ে ১ নম্বর T20 অল-রাউন্ডার হলেন স্টইনিস, ব্যাটিংয়ে বিশ্বসেরা সূর্য আমেরিকাকে ছোট দল মানতে নারাজ মার্করাম, সুপার আটের ম্যাচে কী স্ট্র্যাটেজি থাকছে? নেপাল অধিনায়কের সঙ্গে ঝামেলার জের, সুপার আটে খেলতে নামার আগে শাস্তির কোপে তানজিম কিউয়িদের কেন্দ্রীয় চুক্তি ছাড়লেন,সাদা বলের নেতৃত্ব থেকেও ইস্তফা দিলেন উইলিয়ামসন ভক্তের সঙ্গে উত্তপ্ত বাক্য বিনিময়, প্রায় হাতাহাতি, কী সাফাই দিলেন হ্যারিস রউফ? ১২ বার ১০০-র নীচে অল-আউট! T20 বিশ্বকাপের ইতিহাসে কখনও এতবার এরকম ঘটনা ঘটেনি এবার জয়ের জন্য কুলদীপকে দলে চাই ভারতের! T20 বিশ্বকাপ নিয়ে পরামর্শ ধোনিদের কোচের বিশ্বকাপে গড়াপেটায় জড়ানোর চেষ্টা উগান্ডার খেলোয়াড়কে! সামনে এল চাঞ্চল্যকর তথ্য

Copyright © 2024 HT Digital Streams Limited. All RightsReserved.