বাংলা নিউজ > ঘরে বাইরে > Pakistan: লালসা সংবরণে ব্যর্থ রাষ্ট্রদূত, লজ্জায় মুখ ঢেকে চাকরি খোয়ালেন পাক কূটনীতিক
দূতাবাসে নিযুক্ত মহিলা কর্মচারী লালসার শিকার হয়েছিলেন পাক রাষ্ট্রদূতের। (প্রতীকী ছবি)

Pakistan: লালসা সংবরণে ব্যর্থ রাষ্ট্রদূত, লজ্জায় মুখ ঢেকে চাকরি খোয়ালেন পাক কূটনীতিক

  • Pakistan: দূতাবাসে নিযুক্ত মহিলা কর্মচারী লালসার শিকার হয়েছিলেন পাক রাষ্ট্রদূতের। সেই অভিযোগের প্রেক্ষিতে বিষয়টি খতিয়ে দেখে অভিযুক্ত রাষ্ট্রদূতকে চাকরি থেকে বরখাস্ত করার সিদ্ধান্ত নেওয়া হল।

২০১৮ সালে ইতালিতে দূতাবাসের প্রধান হিসেবে দায়িত্ব পালনকালে একজন নারী কর্মকর্তাকে হেনস্থা করেছিলেন নাদিম রিয়াজ। এমনই অভিযোগে রবিবার এই পাকিস্তানি কূটনীতিককে ফরেন সার্ভিস থেকে বরখাস্ত করা হল। হয়রানির অভিযোগ প্রমাণিত হওয়ার পরই কূটনীতিক নাদিম রিয়াজকে বরখাস্ত করার আদেশ দেন পাকিস্তানের ফেডারেল ওম্বাডসপারসন ফর প্রোটেকশন হ্যারাসমেন্ট কাশমালা তারিক। পাশাপাশি রিয়াজকে ৫০ লাখ পাকিস্তানি রুপি জরিমানাও করা হয়েছে। এই অর্থ অভিযোগকারীকে দেওয়া হবে। জানা গিয়েছে, অভিযোগকারী পাকিস্তানের বাণিজ্য মন্ত্রণালয়ের একজন গ্রেড ২০ কর্মকর্তা। (আরও পড়ুন: দিল্লিতে পারদ ছুঁয়ে গেল ৪৯ ডিগ্রি, কমলা সতর্কতা রাজধানীতে)

এর আগে বাণিজ্য মন্ত্রণালয়ের কর্মকর্তা অভিযোগ জানান, তিনি ২০১৮ সালে রিয়াজের নেতৃত্বে ইতালিতে পাকিস্তানি মিশনে নিয়োজিত ছিলেন। তিনি দাবি করেন, সেই সময় নাদিম রিয়াজ তাঁকে তাঁর সঙ্গে অন্যান্য দেশের অন্যান্য শহরে যেতে বলতেন, যা তাঁর কাজের মধ্যে পড়ত না। তিনি আরও অভিযোগ করেন যে রাষ্ট্রদূত তাঁকে তাঁর বাড়ির কাছেই বাসা ভাড়া নিতে বাধ্য করেছিলেন। মহিলাটি অভিযোগ করেন যে তিনি নাদিম রিয়াজের আচরণে অপমানিত হয়েছেন। পরিস্থিতি এমনই হয় যে তিন বছরের মেয়াদ শেষ হওয়ার আগেই পাকিস্তানে ফিরে যেতে বাধ্য হয়েছিলেন সেই মহিলা।

এদিকে অভিযুক্ত রিয়াজ ফরেন সার্ভিসের চাকরি থেকে অবসর নিয়েছেন এবং এখন ইনস্টিটিউট অফ রিজিওনাল স্টাডিজের সভাপতি। এটি পাকিস্তানের বিদেশ মন্ত্রণালয়ের একটি থিঙ্ক ট্যাঙ্ক। অভিযোগ করা হয়েছে যে মহিলাকে প্রতিদিন তাঁর গল্প শুনতে বাধ্য করতেন রিয়াজ। সেই গল্পের মধ্যে আপত্তিকর বিষয়বস্তু থাকত। পাকিস্তানের সংবাদমাধ্যম সূত্রে জানা গিয়েছে, ওম্বাডসপারসন এই অভিযোগের ভিত্তিতে বিষয়টি খতিয়ে দেখেন এবং রিয়াজকে বরখাস্ত করার সিদ্ধান্ত গ্রহণ করেন। এই সিদ্ধান্তের একটি অনুলিপি সাত দিনের মধ্যে পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ে পাঠানোর নির্দেশও দিয়েছেন ওম্বাডসপারসন।

বন্ধ করুন