বাংলা নিউজ > ঘরে বাইরে > কাশ্মীরে নিকেশ লস্কর জঙ্গি, ২০১৬ সালে পাকিস্তান থেকে ঢুকেছিল ভারতে
এনকাউন্টারে জঙ্গি নিকেশের পরে সুরক্ষাবাহিনীর পাহারা (ANI Photo) (Imran Nissar)
এনকাউন্টারে জঙ্গি নিকেশের পরে সুরক্ষাবাহিনীর পাহারা (ANI Photo) (Imran Nissar)

কাশ্মীরে নিকেশ লস্কর জঙ্গি, ২০১৬ সালে পাকিস্তান থেকে ঢুকেছিল ভারতে

  • পুলিশের মুখপাত্র জানিয়েছেন, জঙ্গিকে চারদিক থেকে ঘিরে ফেলা হয়েছিল। এরপর তাকে আত্মসমর্পণের জন্য় বার বার বলা হয়েছে। কিন্তু সেই কথায় সে কান দেয়নি।

কাশ্মীরে জঙ্গি নিকেশে বড় সাফল্য পেল সুরক্ষা বাহিনী। লস্কর-ই-তইবার পাকিস্তানি গ্রুপ কমান্ডারকে নিকেশ করেছে সুরক্ষা বাহিনী। খবর পুলিশ সূত্রে। পুলিশ জানিয়েছে, মৃত জঙ্গির নাম সইফুল্লা ওরফে আবু খালিদ। তার বাড়ি আদতে পাকিস্তানের করাচিতে। লস্করের সক্রিয় নেতা হিসাবে কাজ করত। আইজিপি কাশ্মীর বিজয় কুমার জানিয়েছেন, ২০১৬ সালে সে অনুপ্রবেশ করেছিল। এরপর হরওয়ান এলাকায় একাধিক সন্ত্রাসমূলক কাজকর্মে কলকাঠি নাড়ত সে। তবে কাশ্মীরের শান্তি নষ্ট করতে পাকিস্তান যে সবরকম চেষ্টা করছে তা এদিন আরও একবার প্রমাণিত হয়েছে। জানিয়েছেন আইজিপি কাশ্মীর।

এদিকে শ্রীনগর পুলিশের কাছে গোপন সূত্রে খবর এসেছিল শ্রীনগরের হারওয়ান এলাকায় এক জঙ্গি লুকিয়ে রয়েছে। এরপর পুলিশ, আর্মি, সিআরপিএফ যৌথভাবে অভিযানে নামে। তখনই এনকাউন্টারে নিকেশ করে দেওয়া হয় জঙ্গিকে। এদিকে পুলিশের মুখপাত্র জানিয়েছেন, জঙ্গিকে চারদিক থেকে ঘিরে ফেলা হয়েছিল। এরপর তাকে আত্মসমর্পণের জন্য় বার বার বলা হয়েছে। কিন্তু সেই কথায় সে কান দেয়নি। সুরক্ষা বাহিনীকে লক্ষ্য করে সে দফায় দফায় গুলি চালাতে শুরু করে। এরপরই সুরক্ষা বাহিনী গুলি চালাতে শুরু করে। তখনই এনকাউন্টারে মৃত্যু হয় ওই জঙ্গির। 

সূত্রের খবর, ২০১৬ সালে বান্দিপোরা সেক্টর দিয়ে ওই ব্যক্তি কাশ্মীরে ঢুকেছিল। এরপরই ধীরে ধীরে পুলওয়ামা, শ্রীনগর, গান্দেরবাল সহ বিভিন্ন জায়গায়  জঙ্গি কার্যকলাপ শুরু করে। শ্রীনগর ও পুলওয়ামার বিভিন্ন এলাকা সম্পর্কে জেনে গিয়েছিল ওই ব্যক্তি। ২০১৭ সালে সেনা কনভয়ে হামলা, লাওয়াপোরাতেও হামলার ঘটনায় নাম জড়িয়েছিল ওই জঙ্গির। 

 

বন্ধ করুন