বাংলা নিউজ > ঘরে বাইরে > মানা হয়নি পরিবেশবিধি, পতঞ্জলিকে ১ কোটি টাকা জরিমানা দূষণ নিয়ন্ত্রণ পর্ষদের
পালন করেনি পরিবেশবিধি, পতঞ্জলিকে ১ কোটি টাকা জরিমানা দূষণ নিয়ন্ত্রণ পর্ষদের। (ছবিটি প্রতীকী, সৌজন্য লাইভমিন্ট)
পালন করেনি পরিবেশবিধি, পতঞ্জলিকে ১ কোটি টাকা জরিমানা দূষণ নিয়ন্ত্রণ পর্ষদের। (ছবিটি প্রতীকী, সৌজন্য লাইভমিন্ট)

মানা হয়নি পরিবেশবিধি, পতঞ্জলিকে ১ কোটি টাকা জরিমানা দূষণ নিয়ন্ত্রণ পর্ষদের

  • আগামী ১৫ দিনের মধ্যে ওই টাকা জমা দেওয়ার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।

পালন করা হয়নি পরিবেশবিধি। সেজন্য পতঞ্জলি পেওয়া প্রাইভেট লিমিটেডকে এক কোটি টাকা জরিমানা ধার্য করল কেন্দ্রীয় দূষণ নিয়ন্ত্রণ পর্ষদ। আগামী ১৫ দিনের মধ্যে ওই টাকা জমা দেওয়ার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।

গত ৩ ফেব্রুয়ারি লেখা চিঠিতে কেন্দ্রীয় দূষণ নিয়ন্ত্রণ পর্ষদের চেয়ারম্যান শিবদাস মিনা জানিয়েছেন, প্লাস্টিক বর্জ্য ব্যবস্থাপনার নিয়মের ৯ নম্বর ধারা ভঙ্গ করেছে সংস্থা। ওই নিয়ম অনুযায়ী, নিজেদের পণ্যের কারণে যে প্লাস্টিক বর্জ্য তৈরি হয়, তা সংগ্রহ করার একটি প্রক্রিয়া গড়ে তুলতে হবে। একইসঙ্গে চিঠিতে জানানো হয়েছে, সেই মর্মে ফেব্রুয়ারি এবং অগস্টেও পতঞ্জলিকে নোটিশ পাঠানো হয়েছিল। কিন্তু কোনও উত্তর মেলেনি। তারপর বিষয়টি জাতীয় পরিবেশ আদালত বা ন্যাশনাল গ্রিন ট্রাইবুনালে জানানো হয়েছিল। তার ভিত্তিতে সেপ্টেম্বরে কেন্দ্রীয় দূষণ নিয়ন্ত্রণ পর্ষদকে পদক্ষেপ করতে বলা হয়। পতঞ্জলির একটি কেন্দ্র বন্ধ এবং নিয়ম মেনে না চলার জন্য জরিমানা দিতে অক্টোবরেও নোটিশ জারি করেছিল পর্ষদ। অক্টোবরের শেষপর্যন্ত সময় চাইলেও এখনও পর্যন্ত সেই নিয়মের আওতায় নথিভুক্ত হওয়ার জন্য কোনও আবেদন জমা পড়েনি। 

পতঞ্জলির জনসংযোগ আধিকারিক এসকে তিজরিওয়ালা জানান, কেন্দ্রীয় দূষণ নিয়ন্ত্রণ পর্ষদের নোটিশ হাতে এসেছে। সেইমতো প্রশাসনিক এবং আইনি প্রক্রিয়া খতিয়ে দেখা হচ্ছে। তিনি বলেন, ‘উত্তর দেওয়ার জন্য কেন্দ্রীয় দূষণ নিয়ন্ত্রণ পর্ষদ আমাদের ১৫ দিন দিয়েছে। সময়মতো উত্তর দেওয়ার বিষয়টি আমরা নিশ্চিত করব।’ সঙ্গে তিনি যোগ করেন, ‘পরিচ্ছন্ন পরিবেশের ক্ষেত্রে প্রতিজ্ঞাবদ্ধ পতঞ্জলি এবং গ্রুপ। একইসঙ্গে আইন মেনে চলা সংস্থাও। আমরা সর্বদা সবরকম আইন, নিয়মকানুন মেনে চলার চেষ্টা করিন। নোটিশ মেনে চলতে আমরা কেন্দ্রীয় দূষণ নিয়ন্ত্রণ পর্ষদের সঙ্গে যোগাযোগ রাখছি এবং যত দ্রুত সম্ভবত বিষয়টি সমাধানের চেষ্টা করব আমরা।’

বন্ধ করুন