বাংলা নিউজ > ঘরে বাইরে > ম্যাট্রিমনি পোর্টালে আলাপ, ‘যোগ্য প্রার্থী’ বলে চাকরি দিলেন মহিলা
 প্রতীকী ছবি (Getty Images) (HT_PRINT)
 প্রতীকী ছবি (Getty Images) (HT_PRINT)

ম্যাট্রিমনি পোর্টালে আলাপ, ‘যোগ্য প্রার্থী’ বলে চাকরি দিলেন মহিলা

ম্যাট্রিমনির পোর্টাল থেকে পাত্রের সঙ্গে পরিচিত হয়েছিলেন এক মহিলা। তাঁকেই নিজের অফিসে চাকরি করিয়ে দেওয়ার চেষ্টা করলেন তিনি।

বেঙ্গালুরু, ভারতের স্টার্ট-আপ রাজধানী, উদ্যোক্তাদের একটি ভাল নথিভুক্ত সংস্কৃতি রয়েছে। একাধিক নেটওয়ার্কিং সুযোগ সহ প্রযুক্তি উদ্ভাবনের একটি কেন্দ্র, এই শহরটি সাম্প্রতিক সময়ে বেশ কয়েকটি মেমের বিষয় হয়ে উঠেছে। প্রকৃতপক্ষে, "পিক বেঙ্গালুরু" নামে একটি টুইটার অ্যাকাউন্ট, যা শুধুমাত্র বেঙ্গালুরুতে ঘটতে পারে এমন স্টার্ট-আপ-কেন্দ্রিক জিনিসগুলি সনাক্ত করার একটি মিশনে রয়েছে, দেরিতে জনপ্রিয়তায় বিস্ফোরিত হয়েছে। এবং "পিক বেঙ্গালুরু" আচরণের সর্বশেষ প্রবেশকারী? আরও পড়ুন: Astrology: চলতি মাস থেকেই বড় লড়াই, এই ৫ রাশির জাতকরা প্রস্তুত থাকুন

বেঙ্গালুরু ভারতের স্টার্ট-আপ রাজধানী। নেটওয়ার্কিং সুযোগ ও প্রযুক্তি উদ্ভাবনের কেন্দ্র। সম্প্রতি সেই ব্যাঙ্গালুরু ঘিরেই একটি মিম ভাইরাল হয়েছে সোশ্যাল মিডিয়ায়। Peak Bangalore নামে এক টুইটার অ্যাকাউন্ট থেকে সেই শহরের স্টার্ট আপ কালচার নিয়ে প্রায়শই মিম প্রকাশিত হয়। সেখানেরই এই মিম। আর সেই মিম দেখে অনেকেরই প্রশ্ন, এটাই কি 'পিক ব্যাঙ্গালুরু বিহেভিয়র?'

ম্যাট্রিমনির পোর্টাল থেকে পাত্রের সঙ্গে পরিচিত হয়েছিলেন এক মহিলা। তাঁকেই নিজের অফিসে চাকরি করিয়ে দেওয়ার চেষ্টা করলেন তিনি।

উদিতা পাল বেঙ্গালুরু-ভিত্তিক সংস্থা সল্টের(Salt) সহ-প্রতিষ্ঠাতা। সল্ট একটি নিও ব্যাঙ্কিং সলিউশন প্রদানকারী সংস্থা। এটি ক্রস বর্ডার পেমেন্টের বিষয়ে কাজ করে৷ শুক্রবার, তিনি টুইটারে মজা করে জানান, তিনি Jeevansathi.com-এর মাধ্যমে আলাপ হওয়া এক ব্যক্তির সম্পর্কে লিখেছেন। তিনি মজা করে বলেন, তিনি তাঁর জীবনসাথী-র ম্যাচের বায়ো চেয়ে পাঠিয়েছিলেন। তাঁকে একটি ইন্টারভিউয়েরও লিঙ্ক পাঠিয়েছিলেন। এগুলি শুনে তাঁর বাবা আঁতকে উঠেছিলেন বলে জানান তিনি।

উত্তরে উদিতা তাঁর বাবাকে বলেন, তাঁর স্টার্ট-আপে নিয়োগ চলছিল। অন্যদিকে সেই পাত্রের সাত বছরের ফিনটেক এক্সপিরিয়েন্স ছিল।

উত্তরে তাঁর বাবা বলেন, এভাবে ম্যাট্রিমনি সাইট থেকে কাউকে নিয়োগ করা যায় না। ওর বাবাকে এখন আমি কী বলব?

মেসেজের স্ক্রিনশট শেয়ার করেছেন উদিতা। দেখুন সেই টুইট:

টুইটটিতে এখনও পর্যন্ত ১২ হাজারেরও বেশি লাইক পড়েছে। কয়েকশো মানুষ কমেন্টে হাসির রোল তুলেছেন।

আপনার কী মনে হয়? উদিতা কি কাজটা ঠিক করেছেন? জানান আপনার মতামত, আমাদের কমেন্টে।

বন্ধ করুন