প্রেসিডেন্টের দাবি খারিজ করল পেন্টাগন (ফাইল ছবি, সৌজন্য রয়টার্স)
প্রেসিডেন্টের দাবি খারিজ করল পেন্টাগন (ফাইল ছবি, সৌজন্য রয়টার্স)

ইরানের সাংস্কৃতিক স্থানে হামলা নিয়ে ট্রাম্পের দাবি খারিজ পেন্টাগনের

  • নিজের ঘরেই অস্বস্তিতে মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প। তাঁর দাবি খারিজ করল পেন্টাগন।

ইরানের গুরুত্বপূর্ণ সংস্কৃতির স্থানে হামলা চালানোর হুঁশিয়ারি দিয়েছিলেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প। কিন্তু তা খারিজ করে দিল খোদ পেন্টাগন। সাফ জানিয়ে দিল, আইন মেনে চলবে আমেরিকা।

আরও পড়ুন : তাঁর মৃত্যুতে হুমকি ইরানের, কে এই কাশেম সোলেইমানি?

জেনারেল কাসেম সোলেইমানির হত্যার পর আমেরিকাকে প্রচ্ছন্ন হুঁশিয়ারি দেয় ইরান। বেরিয়ে আসে ২০১৫ সালের পরমাণু চুক্তি থেকে। পালটা ট্রাম্প ৫২টি টার্গেটের টুইট করেন ট্রাম্প। বলেন, 'ইরানের ৫২টি স্থানকে টার্গেট করা হয়েছে। যেগুলি ইরান ও তার সংস্কৃতির জন্য খুব গুরুত্বপূর্ণ। জোরদার হামলা হবে। আমেরিকা আর কোনও হুমকি বরদাস্ত করবে না।'

আরও পড়ুন : আক্রমণ করলে ইরানের ৫২টি ঘাঁটি নিশানায়, হুমকি ট্রাম্পের

ট্রাম্পের টুইট নিয়ে শুরু হয় বিতর্ক। জাতীয় সুরক্ষা বিশেষজ্ঞ, আইন বিশেষজ্ঞ ও ডেমোক্র্যাটিক আইন প্রণেতাদের সমালোচনায় বিদ্ধ হন ট্রাম্প। তাঁরা প্রশ্ন তোলেন, ১৯৫৪ সালের হেগ সনদে পরিষ্কার বলা হয়েছে, সাংস্কৃতিক স্থানগুলির বিরুদ্ধে যে কোনও আগ্রাসনমূলক পদক্ষেপ করা থেকে বিরত থাকতে হবে। হুমকির দেওয়ার ক্ষেত্রেও সাংস্কৃতিক স্থান ব্যবহারে নিষেধাজ্ঞা চাপিয়েছে সেই সনদ। তাহলে কোন যুক্তিতে ট্রাম্প এরকম হুমকি দিলেন?

আরও পড়ুন : সোলেইমানি হত্যার জের, আন্তর্জাতিক পরমাণু চুক্তি খারিজ ইরানের

এনিয়ে সচিব মার্ক এসপারকে প্রশ্ন করা হলে প্রেসিডেন্টের সঙ্গে পেন্টাগনের দূরত্ব প্রকট হয়। এসপার বলেন, 'সশস্ত্র দ্বন্দ্বের আইনে মেনে চলবে আমেরিকা।'

বন্ধ করুন