বাড়ি > ঘরে বাইরে > শীঘ্রই পাক-অধিকৃত কাশ্মীরের মানুষ ভারতে থাকার দাবি তুলবেন : রাজনাথ
‘জম্মু ও কাশ্মীর জনসংবাদ র‌্যালি’-তে প্রতিরক্ষামন্ত্রী রাজনাথ সিং (ছবি সৌজন্য পিটিআই)
‘জম্মু ও কাশ্মীর জনসংবাদ র‌্যালি’-তে প্রতিরক্ষামন্ত্রী রাজনাথ সিং (ছবি সৌজন্য পিটিআই)

শীঘ্রই পাক-অধিকৃত কাশ্মীরের মানুষ ভারতে থাকার দাবি তুলবেন : রাজনাথ

  • পাকিস্তানকে কড়া বার্তা দিলেন প্রতিরক্ষামন্ত্রী রাজনাথ সিং।

পাকিস্তান অধিকৃত কাশ্মীর নিয়ে বরাবরই সুর চড়িয়েছেন। এবার আরও একধাপ এগিয়ে প্রতিরক্ষামন্ত্রী রাজনাথ সিং জানালেন, শীঘ্রই ভারতের সঙ্গে যুক্ত হওয়ার জন্য পাক-অধিকৃত কাশ্মীরের অন্দর থেকেই আওয়াজ উঠবে।

রবিবার ‘জম্মু ও কাশ্মীর জনসংবাদ র‌্যালি’-তে দিল্লি থেকে ভাষণ দেন নরেন্দ্র মোদী সরকারের অন্যতম গুরুত্বপূর্ণ ব্যক্তি। সেখানে তিনি দাবি করেন, মোদীর নেতৃত্বে নয়া উচ্চতায় পৌঁছাবে জম্মু ও কাশ্মীর। সেখানে যথারীতি পাক-অধিকৃত কাশ্মীর নিয়েও মুখ খোলেন বর্ষীয়ান বিজেপি নেতা। তিনি বলেন, ‘একটু অপেক্ষা করুন, শীঘ্রই পাক-অধিকৃত কাশ্মীরের মানুষরা ভারতের সঙ্গে থাকার দাবি জানাবেন এবং পাকিস্তানের অধীনে থাকবেন না। আর যেদিন সেটা হবে, সেদিন আমাদের সংসদের লক্ষ্য পূরণ হবে।’

কূটনৈতিক মহলের মতে, পাক-অধিকৃত কাশ্মীর নিয়ে বরাবরই চড়া সুরে কথা বলেছেন মোদী সরকারের মন্ত্রীরা। কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ সংসদে দাঁড়িয়ে জানিয়েছেন, পাক-অধিকৃত কাশ্মীর এবং আকসাই চিন ভারতের অবিচ্ছেদ্য অংশ। আর কাশ্মীর বোঝাতে তিনি সেই এলাকাগুলি ধরেই বলেন। একইভাবে একাধিকবার রাজনাথ হুঙ্কার দিয়েছেন, ভারত-পাকিস্তানের মধ্যে কথা হলে তা পাক-অধিকৃত কাশ্মীর নিয়ে হবে। ফলে বরাবরাই আক্রমণাত্মক নীতিই বজায় রেখেছে মোদী সরকার। তবে এবার পরোক্ষভাবে ইসলামাবাদের উপর চাপ বাড়াতে খানিকটা নয়া কৌশল নিয়েছেন প্রতিরক্ষামন্ত্রী। ইমরান খান প্রশাসনকে বার্তা দিতে চেয়েছেন, শুধু ভারত পাক-অধিকৃত কাশ্মীরের অন্তর্ভুক্তি চায় না, সেখানকার মানুষও ভারতের সঙ্গে জুড়তে চান। অর্থাৎ এবার যে ঘর থেকেই বেশি ঝাঁকুনি মালুম হবে, সেই বার্তাই রাজনাথ দিতে চেয়েছেন বলে মত সংশ্লিষ্ট মহলের।

বন্ধ করুন