বাংলা নিউজ > ঘরে বাইরে > গদ্দার, সরকার ফেলতে টাকা খেয়েছিলেন, গেহলটের মন্তব্যের পালটা জবাব দিলেন পাইলট

গদ্দার, সরকার ফেলতে টাকা খেয়েছিলেন, গেহলটের মন্তব্যের পালটা জবাব দিলেন পাইলট

সচিন পাইলট এবং অশোক গেহলট। ফাইল ছবি (HT_PRINT)

অশোক গেহলট জানিয়েছেন, বিধায়করা খুব রেগে গিয়েছেন। কারণ পাইলটকে সিএম করা হবে হবে খবর ছড়়িয়েছে। তিনি নিজেই এই খবর ছড়াচ্ছেন আর বলছেন পর্যবেক্ষকরা আসবেন।একজন গদ্দারকে কীভাবে মুখ্যমন্ত্রী করা সম্ভব? এটা ইতিহাসে কোনওদিন দেখা যায়নি পার্টির প্রধানই সরকার ফেলে দিতে চাইছেন।

শচিন সাইনি ও এইচটি নিউজ ডেস্ক

রাজস্থানের মুখ্যমন্ত্রী অশোক গেহলট সচিন পাইলটকে একেবারে সরাসরি গদ্দার বলে উল্লেখ করেছেন। এদিকে পাইলট ঘনিষ্ঠ একাধিক বিধায়ক বার বার দাবি করছেন সচিন পাইলটকেই মুখ্যমন্ত্রীকে বানাতে হবে। তবে পাইলটও পালটা জবাব দিয়েছেন।

এদিকে এনডিটিভির কাছে একটি ইন্টারভিউতে গেহলট বলেন, গদ্দারকে মুখ্যমন্ত্রী করা যায় না।হাইকমান্ড পাইলটকে কোনওদিনই মুখ্য়মন্ত্রীর পদে বসাবে না। একজন ব্যক্তি যার নিজের হাতে ১০জন বিধায়কও নেই। যিনি দলের বিরুদ্ধে বিদ্রোহ করেছিলেন, দলের সঙ্গে বিশ্বাসঘাতকতা করেছিলেন তাঁকে মুখ্যমন্ত্রীর পদে বসাবে না দল।

অশোক গেহলট জানিয়েছেন, বিধায়করা খুব রেগে গিয়েছেন। কারণ পাইলটকে সিএম করা হবে হবে খবর ছড়়িয়েছে। তিনি নিজেই এই খবর ছড়াচ্ছেন আর বলছেন পর্যবেক্ষকরা আসবেন।একজন গদ্দারকে কীভাবে মুখ্যমন্ত্রী করা সম্ভব? এটা ইতিহাসে কোনওদিন দেখা যায়নি পার্টির প্রধানই সরকার ফেলে দিতে চাইছেন। কেন্দ্রীয় মন্ত্রী অমিত শাহ ও ধর্মেন্দ্র প্রধান এই সরকারকে ফেলে দিতে চেয়েছিল। পাইলট সহ কয়েকজন দিল্লিতে মিটিংও হয়েছিল। বিদ্রোহীদের ৫ কোটি, ১০ কোটি করে দেওয়ার ছক কষা হয়েছিল। দিল্লির বিজেপি অফিস থেকে টাকাও নেওয়া হয়েছিল। তার প্রমাণও আছে। তবে বিজেপি এই অভিযোগকে ভিত্তিহীন বলে উল্লেখ করেছেন।

এদিকে অশোক গেহলটের গদ্দার মন্তব্যের জবাবও দিয়েছেন সচিন পাইলট। তাঁর দাবি, অশোক গেহলট আমাকে গদ্দার বলছেন। এসব ভিত্তিহীন অভিযোগ। এসবের কোনও প্রয়োজন নেই। যখন আমি দলের সভাপতি ছিলাম তখন বিজেপি রাজস্থানে খুব খারাপভাবে হেরেছে। আবার মুখ্যমন্ত্রী হওয়ার জন্য কংগ্রেস সভাপতি গেহলটকে আবার সুযোগ দিয়েছে। আবার রাজস্থান ভোটে কীভাবে আমরা জিততে পারি সেটাই লক্ষ্য হওয়া দরকার।

এআইসিসি জয়রাম রমেশ বিবৃতিতে জানিয়েছেন,অশোক গেহলট সিনিয়র লিডার। তিনি কনিষ্ঠ সহকর্মীকে নিয়ে যা বলেছেন তা মিটিয়ে ফেলা হবে। কংগ্রেস যাতে শক্তিশালী থাকে সেই পদক্ষেপই নেওয়া হবে।

 

বন্ধ করুন