বাংলাদেশের পরিকল্পনামন্ত্রী এমএ মান্নান
বাংলাদেশের পরিকল্পনামন্ত্রী এমএ মান্নান

গরু কচুরিপানা খেতে পারলে আমরা পারব না কেন? প্রশ্ন বাংলাদেশের মন্ত্রীর

এদিন কাঁঠালের আকার নিয়েও নিজের দুশ্চিন্তার কথা জানান মান্নানসাহেব। বলেন, ‘এত বড় বড় কাঁঠাল হচ্ছে যে তার ৪০ শতাংশই নষ্ট হয়ে যাচ্ছে।

কচুরিপানাকে মানুষের খাওয়ার উপযোগী করে তোলা যায় কি না তা নিয়ে গবেষণা করার নির্দেশ দিলেন বাংলাদেশের পরিকল্পনামন্ত্রী এমএ মান্নান। তাঁর দাবি, গরু তো কচুরিপানা খায়। তাহলে মানুষ পারবে না কেন? সোমবার ঢাকায় এক অনুষ্ঠানে যোগ দিয়ে একথা বলেন তিনি।

অনুষ্ঠানে বাংলাদেশের পরিকল্পনামন্ত্রী বলেন, ‘গরু তো কচুরিপানা খায়। গরু খেতে পারলে আমরা খেতে পারব না কেন? গবেষণা করে কচুরিপানার পুষ্টিগুণ বাড়ানো যায় কি না দেখা দরকার।’

এদিন কাঁঠালের আকার নিয়েও নিজের দুশ্চিন্তার কথা জানান মান্নানসাহেব। বলেন, ‘এত বড় বড় কাঁঠাল হচ্ছে যে তার ৪০ শতাংশই নষ্ট হয়ে যাচ্ছে। আপনাদের দেখা উচিত কাঁঠালের মাপ একটু ছোট করা যায় কি না।’

সঙ্গে তিনি বলেন, ‘বাংলাদেশে গবেষণার মান নিয়ে সন্তুষ্ট নন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। তিনি চান দেশে গবেষণা আরও বাড়ুক। সেজন্য নতুন প্রতিষ্ঠান তৈরি করতে মুখিয়ে রয়েছেন তিনি। অনেকে প্রশ্ন করেন, এত প্রতিষ্ঠান গড়ে কী হবে? তাদের বুঝতে হবে, বাংলাদেশ ১৬ কোটি মানুষের দেশ। মানুষের তুলনায় আমাদের প্রতিষ্ঠানের সংখ্যা কম। পশ্চিমি দেশগুলি এব্যাপারে অনেক এগিয়ে রয়েছে।’



বন্ধ করুন