বাড়ি > ঘরে বাইরে > লাদাখ থেকে কী ভাবে চিনা সেনা তাড়াবেন বলুন না, মোদীকে টুইট-খোঁচা রাহুলের
মোদীকে রাহুলের প্রশ্ন, দয়া করে দেশবাসীকে জানান কী ভাবে ও কবে আপনি চিনা বাহিনীকে ভারত থেকে তাড়াবেন।
মোদীকে রাহুলের প্রশ্ন, দয়া করে দেশবাসীকে জানান কী ভাবে ও কবে আপনি চিনা বাহিনীকে ভারত থেকে তাড়াবেন।

লাদাখ থেকে কী ভাবে চিনা সেনা তাড়াবেন বলুন না, মোদীকে টুইট-খোঁচা রাহুলের

  • আমরা সবাই জানি যে লাদাখের চার জায়গায় চিনা সেনা ঘাঁটি গেড়ে বসেছে। 

লাদাখে ঘাঁটি গেড়ে বসা চিনা সেনাদের কী ভাবে তাড়াবেন, দয়া করে বলুন। প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর উদ্দেশে মঙ্গলবার এই প্রশ্ন ছুড়ে দিলেন কংগ্রেস নেতা রাহুল গান্ধী।

এ দিন নিজের টুইটার হ্যান্ডেলে প্রধানমন্ত্রীকে উদ্দেশ্য করে রাহুল জানতে চেয়েছেন. ‘সারা দেশ জানে চিন আমাদের জমি কেড়ে নিয়েছে। আমরা সবাই জানি যে লাদাখের চার জায়গায় চিনা সেনা ঘাঁটি গেড়ে বসেছে। দয়া করে দেশবাসীকে জানান কী ভাবে ও কবে আপনি চিনা বাহিনীকে ভারত থেকে তাড়াবেন।’

এ দিন দেশব্যাপী গণমাধ্যমে প্রচারিত মোদীর ‘মন কি বাত’ অনুষ্ঠানে জাতির প্রতি ভাষণ দেওয়ার আগে এই সমস্ত অস্বস্তিকর প্রশ্ন তুলে আসলে প্রধানমন্ত্রীকে খোঁচা দিতে চেয়েছেন রাহুল। পাশাপাশি, Covid-19 অতিমারীতে ক্ষতিগ্রস্ত দরিদ্র পরিবারগুলির ব্যাঙ্ক অ্যাকাউন্টে অবিলম্বে ৭,৫০০ টাকা ট্রান্সফার করার আর্জিও জানিয়েছেন রাহুল। 

টুইটার হ্যান্ডেলে পোস্ট করা ভিডিয়োতে রাহুল বলেছেন, ‘গত তিন মাসে ভারতের অর্থনীতি ধ্বংস করে দিয়েছে করোনা। বিপুল পরিমানে ক্ষয়ক্ষতি ও লোকসান হয়েছে। গোটা দেশ তা জানে। এর মধ্যে সবচেয়ে সমস্যায় পড়েছেন দরিদ্র, শ্রমিক, মধ্যবিত্ত ও চাকুরিজীবীরা।’

রাহুলের দাবি, সম্প্রতি ২২ বার পেট্রল ও ডিজেলের দা্ম বাড়িয়েছে কেন্দ্রীয় সরকার। সরকারের কাছে ৩ লাখ কোটি টাকা রয়েছে বলে জানিয়েছেন কংগ্রেস নেতা। এই কারণে দরিদ্রের সাহায্যে কেন্দ্রীয় ন্যায় প্রকল্প চালু করতে প্রশাসনের অসুবিধা হওয়ার কথা নয় বলেও তিনি জানিয়েছেন। 

এ দিন সকালে মোদীর নেতৃত্বাধীন এনডিএ সরকারকে কাঠগড়ায় তুলে রাহুল দাবি করেন, চলতি সরকারের শাসনকালে চিন থেকে আমদানির হার রেকর্ড হারে বেড়েছে। তিনননি সওয়াল করেন, ‘পরিসংখ্যান মিথ্যা বলে না। বিজেপি বলে, মেক ইন ইন্ডিয়া। বিজেপি যা করে, তা হল বাই ফ্রম চায়না অর্থাৎ চিন থেকে কেনো।’

একই সঙ্গে গ্রাফিক্সের সাহায্যে ইউপিএ ও এনডিএ শাসনকালে চিন থেকে পণ্য আমদানির হার তুলনা করে দেখিয়েছেন রাহুল গান্ধী। গ্রাফিক্স অনুযায়ী, ইউপিএ আমলে চিন থেকে আমদানি করা পণ্যের হার ছিল ১২-১৩% যা মোদী সরকারের আমলে ২০২০ সালে ১৭-১৮% হয়ে দাঁড়িয়েছে।

 

বন্ধ করুন