বাড়ি > ঘরে বাইরে > ক্ষুদ্র,ছোটো, মাঝারি শিল্পের বৃদ্ধি, সমস্যা সমাধানের জন্য নয়া পোর্টাল লঞ্চ মোদীর
প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী (ছবি সৌজন্য টুইটার @narendramodi)
প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী (ছবি সৌজন্য টুইটার @narendramodi)

ক্ষুদ্র,ছোটো, মাঝারি শিল্পের বৃদ্ধি, সমস্যা সমাধানের জন্য নয়া পোর্টাল লঞ্চ মোদীর

ক্ষুদ্র, ছোটো এবং মাঝারি শিল্পের নয়া সংজ্ঞার সিদ্ধান্তও বৈঠকে সবুজ সংকেত পেয়েছে।

কঠিন পরিস্থিতিতে সমস্যার মুখে পড়েছে ক্ষুদ্র, ছোটো এবং মাঝারি শিল্প। সেইসব শিল্পোদ্যোগকে সাহায্যের জন্য 'চ্য়াম্পিয়নস' নামে একটি অনলাইন পোর্টালের সূচনা করলেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী।

প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের তরফে একটি বিবৃতিতে জানানো হয়েছে, বর্তমানের কঠিন পরিস্থিতিতে ক্ষুদ্র, ছোটো এবং মাঝারি শিল্পকে সাহায্য করা এবং তাদের জাতীয় ও আন্তর্জাতিক মঞ্চে বিজয়ী করার পথ দেখানোর জন্য তথ্যপ্রযুক্তি নির্ভর এই প্ল্যাটফর্মটি গঠন করা হয়েছে। তা নিয়ে টুইটও করেন মোদী।

‘চ্যাম্পিয়নস’ (CHAMPIONS) কথাটির পুরো অর্থ হল ক্রিয়েশন অ্যান্ড হারমনিয়াস অ্যাপ্লিকেশন অফ মর্ডান প্রসেসেস ফর ইনক্রিজিং দ্য আউটপুট অ্যান্ড ন্যাশনাল স্ট্রেন্থ। অর্থাৎ জাতীয় ক্ষমতা ও উৎপাদিত পণ্যের পরিমাণ বৃদ্ধির জন্য আধুনিক প্রক্রিয়ার উদ্ভাবনশীল এবং সমন্বয়পূর্ণ মাধ্যম। 

আর্থিক, কাঁচামাল, শ্রম, নিয়ন্ত্রক ছাড়পত্র-সহ করোনাভাইরাস পরিস্থিতিতে ক্ষুদ্র, ছোটো এবং মাঝারি শিল্প যে সমস্যার মুখে পড়েছে, তা সমাধানের কাজে ব্যবহৃত হবে নয়া পোর্টালটি। এছাড়াও পার্সোনাল প্রোটেক্টিভ ইক্যুপমেন্ট (পিপিই), মাস্ক-সহ চিকিৎসার প্রয়োজনীয় সামগ্রী তৈরির জন্য নয়া সুযোগ পেতে এবং সেইসব পণ্য জাতীয় ও আন্তর্জাতিক বাজারে রফতানির ক্ষেত্রে সাহায্য মিলবে।

সেই পোর্টাল লঞ্চের আগে কিছুক্ষণ আগেই সাংবাদিক বৈঠকে কেন্দ্রীয় মন্ত্রী প্রকাশ জাভড়েকর জানান, সংকটে জর্জরিত ক্ষুদ্র, ছোটো এবং মাঝারি শিল্পক্ষেত্রে ২০,০০০ কোটি টাকা বরাদ্দ সিদ্ধান্তে অনুমোদন দিয়েছে কেন্দ্রীয় মন্ত্রিসভা। তার ফলে দেশের দু'লাখ প্রতিষ্ঠান উপকৃত হবে বলে দাবি করেন জাভড়েকর। 

পাশাপাশি, সোমবারের বৈঠকে ক্ষুদ্র, ছোটো এবং মাঝারি শিল্পক্ষেত্রে বড় তহবিলের মাধ্যমে ৫০,০০০ কোটির ইক্যুইটি ইনফিউশনেও অনুমোদন দিয়েছে কেন্দ্রীয় মন্ত্রিসভা। ফলে সেই শিল্প প্রতিষ্ঠানের বৃদ্ধির সম্ভাবনা আরও বাড়বে বলে দাবি করেন জাভড়েকর।পরে বিস্তারিত ব্যাখ্যার সময় নীতিন গডকড়ী জানান, কেন্দ্রের সিদ্ধান্তের ফলে ক্ষুদ্র, ছোটো এবং মাঝারি শিল্পক্ষেত্র আরও প্রসারিত হবে এবং ঘরোয়া বাজারের মূল বোর্ডে নথিভুক্ত করার ক্ষেত্রে প্রতিষ্ঠানগুলিকে বাড়তি উদ্যম জোগাবে।

এছাড়াও ক্ষুদ্র, ছোটো এবং মাঝারি শিল্পের নয়া সংজ্ঞার সিদ্ধান্তও বৈঠকে সবুজ সংকেত পেয়েছে। গডকড়ী জানান, ক্ষুদ্র উৎপাদন এবং পরিষেবা প্রতিষ্ঠানের ক্ষেত্রে বিনিয়োগের সীমানা বাড়িয়ে এক কোটি এবং লেনদেনের সীমা বাড়িয়ে পাঁচ কোটি করা হয়েছে। এতদিন সেই সীমা ছিল যথাক্রমে ২৫ এবং ১০ লাখ। একইভাবে ছোটো এবং মাঝারি শিল্পের বিনিয়োগ এবং লেনদেনের সীমা বাড়ানো হয়েছে।

বন্ধ করুন