দিল্লিতে বাড়ি ফেরার অপেক্ষায় শ্রমিকরা (ছবি সৌজন্য এএফপি)
দিল্লিতে বাড়ি ফেরার অপেক্ষায় শ্রমিকরা (ছবি সৌজন্য এএফপি)

PM Modi Mann ki Baat: লকডাউন প্রয়োজন ছিল, অসুবিধার জন্য ক্ষমা করবেন, বললেন মোদী

  • রবিবার 'মন কি বাত' অনুষ্ঠানে শ্রমিকদের ক্ষতে কিছুটা প্রলেপ লাগানোর চেষ্টা করলেন মোদী।

লকডাউনের জেরে অনেকেই সমস্যায় পড়েছেন। কিন্তু করোনাভাইরাস রুখতে তালাবন্ধ করা অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ ছিল বলে মন্তব্য করলেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। পাশাপাশি, গরীব মানুষের কাছে ক্ষমাও চাইলেন তিনি।

আরও পড়ুন :সামাজিক দূরত্ব বাড়ান, অনুভূতি-আবেগের দূরত্ব কমান, আর্জি মোদীর

মাত্র চার ঘণ্টার ঘোষণায় লকডাউনের জেরে সবথেকে বেশি ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছেন আর্থিকভাবে পিছিয়ে শ্রেণীর মানুষ। কাজ হারিয়েছেন অসংখ্য দিনমজুর, শ্রমিক। এই পরিস্থিতিতে গরীবদের জন্য ১.৭৫ লাখ কোটি টাকার আর্থিক প্যাকেজ ঘোষণা করেছিল মোদী সরকার। তাতে প্রশংসাও মেলে।

আরও পড়ুন : Coronavirus in India: সাবধান! রাস্তায় বেরোলেই ভয় দেখাবে 'করোনা হেলমেট'

কিন্তু কাজ হারিয়ে বড় শহর ও ভিনরাজ্য থেকে মরিয়া শ্রমিকদের অবস্থার জন্য সমালোচনার মুখে পড়ে সরকার। লকডাউনের জেরে গাড়ি-বাস না পাওয়ায় অনেকে হেঁটেই কয়েকশো কিলোমিটার দূরে বাড়ির পথ ধরেন। প্রায় ২০০ কিলোমিটার হাঁটার পর শনিবার এক শ্রমিকের মৃত্যু হয়। অনেকে আবার কন্টেনারে ঠাসাঠাসি করে ভিটেয় ফিরতে মরিয়া হয়ে ওঠেন। সবারই একটাই অনুযোগ, লকডাউনের জেরে কাজ বন্ধ হয়ে গিয়েছে। হাতে টাকা নেই। ফলে খাবার সংস্থানের জন্য নিজের বাড়িতে ফিরছেন। এই অবস্থায় শনিবার দিল্লি-উত্তরপ্রদেশ সীমান্তে যেভাবে কাতারে কাতারে শ্রমিক উত্তরপ্রদেশগামী বাস ধরার জন্য জমায়েত হয়েছিলেন, তাতে আশঙ্কিত হয়ে ওঠেন বিশেষজ্ঞরাও। শ্রমিকদের মধ্যেও ক্ষোভ বাড়তে থাকে।

আরও পড়ুন : Covid-19 মোকাবিলায় রেল কামরায় তৈরি হল আইসোলেশন ওয়ার্ড, জোর ভেন্টিলেটর উৎপাদনে

এরপর রবিবার 'মন কি বাত' অনুষ্ঠানে ক্ষতে কিছুটা প্রলেপ লাগানোর চেষ্টা করলেন মোদী। তিনি বলেন, 'এরকম কঠোর (লকডাউন) পদক্ষেপের জন্য আমি ক্ষমা চাইছি। যা আপনাদের জীবনে জটিলতা তৈরি করেছে। বিশেষত গরীবদের। আমি জানি, আপনাদের কেউ কেউ আমার উপর অত্যন্ত রেগে আছেন। কিন্তু এই (করোনার বিরুদ্ধে) যুদ্ধ জয়ের জন্য এরকম কঠোর পদক্ষেপ প্রয়োজনীয় ছিল।'

আরও পড়ুন : COVID-19 Update: সংক্রমণ রুখতে মোদীর ভরসা 'করোনা কবচ'

তবে মোদীর বিশ্বাস, দেশবাসী তাঁকে ক্ষমা করবেন। মোদী বলেন, 'আমার বিবেক বলছে, আপনারা আমায় ক্ষমা করে দেবেন। বিশেষত আমি যখন গরীব ভাইবোনেদের দিকে তাকাই, তখন মনে হয়, ওঁরা ভাবছেন, কী ধরনের প্রধানমন্ত্রী ইনি যে তাঁদের এরকম অবস্থার মধ্যে ফেলে দিলেন?' পাশাপাশি, দেশবাসীকে আরও কয়েকদিন লকডাউন পরিস্থিতির সঙ্গে মানিয়ে নেওয়ার আর্জি জানান মোদী। তিনি বলেন, 'লকডাউন আপনাদের জন্য। আপনাদের পরিবারকে রক্ষা করার জন্য। আরও কয়েকদিন আপনাদের এরকম ধৈর্য দেখাতে হবে।'

বন্ধ করুন