বাংলা নিউজ > ঘরে বাইরে > 'আত্মবলিদান কখনও ভুলবে না দেশ', ছত্তিশগড়ে মৃত ৫ জওয়ানের প্রতি সমবেদনা মোদীর
নরেন্দ্র মোদী। (ফাইল ছবি, সৌজন্য রয়টার্স)
নরেন্দ্র মোদী। (ফাইল ছবি, সৌজন্য রয়টার্স)

'আত্মবলিদান কখনও ভুলবে না দেশ', ছত্তিশগড়ে মৃত ৫ জওয়ানের প্রতি সমবেদনা মোদীর

  • ছত্তিশগড়ে মাওবাদীদের সঙ্গে গুলির লড়াইয়ে পাঁচ জওয়ানদের মৃত্যু হয়েছে।

ছত্তিশগড়ে মাওবাদীদের সঙ্গে গুলির লড়াইয়ে পাঁচ জওয়ানদের মৃত্যু হয়েছে। সেই ঘটনায় সমবেদনা প্রকাশ করলেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। আশ্বাস দিলেন, মৃত জওয়ানদের আত্মবলিদান কখনও ভুলবে না দেশ।

শনিবার টুইটারে মোদী বলেন, ‘ছত্তিশগড়ে মাওবাদীদের বিরুদ্ধে লড়াইয়ের সময় যে জওয়ানরা শহিদ হয়েছেন, তাঁদের পরিবারের প্রতি সমবেদনা জানাচ্ছি। বীর শহিদদের আত্মবলিদান কখনও ভুলব না আমরা। আহতদের দ্রুত আরোগ্য কামনা করছি।’

ছত্তিশগড় পুলিশের কর্তারা জানিয়েছেন, শনিবার বেলা ১২ টা নাগাদ সুকমা-বিজাপুরের সীমান্তবর্তী এলাকায় জোনাগুড়া গ্রামের কাছে বস্তার জঙ্গলে মাওবাদীদের গেরিলা বাহিনীর সঙ্গে নিরাপত্তা বাহিনীর গুলির লড়াই শুরু হয়। নিরাপত্তা বাহিনীর পৃথক যৌথ দলে ছিলেন সিআরপিএফের কোবরা, ডিস্ট্রিক্ট রিজার্ভ গার্ড এবং স্পেশাল টাস্ক ফোর্সের প্রায় ২,০০০ জওয়ান।

প্রায় ঘণ্টাতিনেকের গুলির লড়াইয়ে পাঁচ জওয়ানের মৃত্যু হয়েছে বলে জানিয়েছেন ছত্তিশগড়ের ডিআইজি (মাওবাদী-দমন অভিযান) ওপি পাল। আহত হয়েছেন ১২ জন জওয়ান। সিআরপিএফের তরফে বলা হয়েছে, ‘প্রাথমিক রিপোর্ট অনুযায়ী, তিনজন ডিস্ট্রিক্ট রিজার্ভ গার্ড এবং দু'জন সিআরপিএফ জওয়ানের মৃত্যু হয়েছে।' আহত জওয়ানদের আকাশপথে রায়পুরে উড়িয়ে আনা হয়। 

গুলির লড়াইয়ে একাধিক মাওবাদীকেও খতম করা হয়েছে। বস্তারের আইজি পি সুন্দরাজ বলেন, 'প্রাথমিক তথ্য অনুযায়ী, গুলির লড়াইয়ে কমপক্ষে ন'জন মাওবাদীকে খতম করা হয়েছে। আহত হয়েছে কমপক্ষে ১৫ জন। আসল সংখ্যাটা নিশ্চিত করার জন্য আরও সময় লাগবে। আমাদের অনুমান অনুযায়ী, সেখানে ২৫০ জন মাওবাদী ছিল।'

বন্ধ করুন