বাংলা নিউজ > ঘরে বাইরে > ‘‌মানবজাতি দ্রুতই এই মহামারী কাটিয়ে উঠবে’‌, শেখ হাসিনকে চিঠি নরেন্দ্র মোদীর
ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী এবং বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। (ফাইল ছবি, সৌজন্য পিটিআই)
ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী এবং বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। (ফাইল ছবি, সৌজন্য পিটিআই)

‘‌মানবজাতি দ্রুতই এই মহামারী কাটিয়ে উঠবে’‌, শেখ হাসিনকে চিঠি নরেন্দ্র মোদীর

  • আগামী বছরগুলিতেও একইভাবে শেখ হাসিনা সরকার আন্তর্জাতিক যোগ দিবস উদযাপন করবে বলে আশা প্রকাশ করেছেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী।

করোনাভাইরাসকে পরাস্ত করতে আশাবাদী ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। তাই সোমবার আন্তর্জাতিক যোগ দিবসে নিজের এই দৃঢ়তার কথা জানিয়ে বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাক চিঠি লিখলেন তিনি। চিঠিতে নরেন্দ্র মোদী লিখেছেন, ‘‌আমি আশাবাদী যে মানবতার সাহায্যে এই মহামারী দ্রুতই কাটিয়ে ওঠা সম্ভব হবে। এই বছর আন্তর্জাতিক যোগ দিবসের প্রতিপাদ্য—সুস্থতার জন্য যোগ ব্যায়াম।’‌ এই দিনে বাংলাদেশের অংশগ্রহণের জন্য গভীর কৃতজ্ঞতাও প্রকাশ করেছেন তিনি।

কিছুদিন আগে মুজিববর্ষে বাংলাদেশে গিয়েছিলেন ভারতের প্রধানমন্ত্রী। তখন দ্বিপাক্ষিক বিষয়ে আলোচনা হয়েছিল বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সঙ্গে। তারপর সময় কেটেছে অনেক। আগামী বছরগুলিতেও একইভাবে শেখ হাসিনা সরকার আন্তর্জাতিক যোগ দিবস উদযাপন করবে বলে আশা প্রকাশ করেছেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। এই উপলক্ষ্যে চিঠিতে তিনি লিখেছেন, ‘‌এবারও করোনা মহামারীর মধ্যে দিনটি পালিত হচ্ছে। করোনা যোদ্ধারা অসাধারণ লড়াই করেছে। দেশবাসীকে মহামারীর হাত থেকে রক্ষা করতে বিনামূল্যে টিকা দেওয়া হচ্ছে।’‌ যদিও বাংলায় আজ বিনামূল্যে ১৮ উর্দ্ধদের টিকা দেওয়া শুরু করা যায়নি। তা নিয়ে ক্ষোভ রয়েছে।

উল্লেখ্য, ২০১৪ সালে রাষ্ট্রপুঞ্জের সাধারণ পরিষদে ২১ জুন আন্তর্জাতিক যোগ দিবস পালনের সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়। তখন থেকেই ২১ জুন বিশ্বব্যাপী আন্তর্জাতিক যোগ দিবস পালিত হয়ে আসছে। গতবছরের মতো এই বছরও কোভিড–১৯ মহামারীর প্রকোপের মধ্যেই আন্তর্জাতিক যোগ দিবস পালিত হল। এই উপলক্ষ্যে নরেন্দ্র মোদি লেখেন, ‘‌এই প্রতিকূল পরিস্থিতির মধ্যেও আমাদের করোনা যোদ্ধারা উল্লেখযোগ্যভাবে মহামারীর বিরুদ্ধে লড়াই করেছেন। মহামারীর হুমকির মধ্যেও গত আন্তর্জাতিক যোগ দিবসের পর থেকে বেশ কিছু ইতিবাচক ঘটনা ঘটেছে। বিভিন্ন চিকিৎসা পদ্ধতি ও ভাইরাস বিষয়ক বৈজ্ঞানিক গবেষণার পাশাপাশি এখন একাধিক টিকাও রয়েছে আমাদের কাছে। আমার বিশ্বাস, মানবজাতি খুব দ্রুতই এই মহামারী কাটিয়ে উঠবে।’‌

বন্ধ করুন