বাংলা নিউজ > ঘরে বাইরে > ভোট পরবর্তী হিংসা মামলা পিছিয়ে গেল, সুপ্রিম কোর্টে দেখা মিলল না আইনজীবীর
সুপ্রিম কোর্ট। (ফাইল ছবি, সৌজন্য হিন্দুস্তান টাইমস)
সুপ্রিম কোর্ট। (ফাইল ছবি, সৌজন্য হিন্দুস্তান টাইমস)

ভোট পরবর্তী হিংসা মামলা পিছিয়ে গেল, সুপ্রিম কোর্টে দেখা মিলল না আইনজীবীর

  • কেন্দ্রীয় সরকারের পক্ষ থেকে কেউ হাজির না হওয়ায় সুপ্রিম কোর্টে রাজ্যের ভোট পরবর্তী হিংসা নিয়ে শুনানি পিছিয়ে গেল।

ভোট পরবর্তী হিংসা মামলায় সামনে থেকে নেতৃত্ব দেওয়ার কথা বলতে শোনা গিয়েছিল বিজেপি নেতাদের। জাতীয় মানবাধিকার কমিশন গিয়ে রিপোর্ট পেশ করেছিল কলকাতা হাইকোর্টে। তার ভিত্তিতে এগোতে দেখা গিয়েছিল কেন্দ্রীয় সরকারকে। কিন্তু এবার সামনে তো দেখা গেলই নয়, পিছনেও কারও দেখা মিলল না। কেন্দ্রীয় সরকারের পক্ষ থেকে কেউ হাজির না হওয়ায় সুপ্রিম কোর্টে রাজ্যের ভোট পরবর্তী হিংসা নিয়ে শুনানি ২২ অক্টোবর পর্যন্ত পিছিয়ে গেল।

ভোট পরবর্তী হিংসার ঘটনা নিয়ে সিবিআই তদন্তের নির্দেশ দিয়েছিল কলকাতা হাইকোর্ট। তার বিরুদ্ধে রাজ্য সরকার সুপ্রিম কোর্টে মামলা দায়ের করেছিল। সুপ্রিম কোর্ট রাজ্যের মামলা গ্রহণ করে গোটা বিষয়টিতে কেন্দ্রীয় সরকারের বক্তব্য জানতে চেয়েছিল। কিন্তু মঙ্গলবার শুনানিতে কেন্দ্রীয় সরকারের কোনও আইনজীবীই হাজির ছিলেন না। তাতে অত্যন্ত বিরক্ত হন বিচারপতি। তখনই ২২ অক্টোবর এই মামলার পরবর্তী শুনানি হবে বলে জানিয়ে দেওয়া হয়।

এই মামলা পিছিয়ে গেলেও সিবিআই তদন্ত জারি থাকছে। সেখানে কোনও ছেদ পড়ছে না। রাজ্য সরকার সিবিআই যেসব ক্ষেত্রে এফআইআর দায়ের করে তদন্ত করছে তাতে স্থগিতাদেশ চেয়েছিল। তাই নিয়ে দায়ের হয়েছিল সুপ্রিম কোর্টে মামলা। কিন্তু সর্বোচ্চ আদালত তদন্তে স্থগিতাদেশ দেয়নি। তাই তদন্ত জারি থাকছে। সিবিআই এখনও পর্যন্ত ভোট পরবর্তী হিংসার তদন্তে ৪০টি এফআইআর দায়ের করেছে।

সিবিআই বেশ কয়েকটি মামলায় চার্জশিট পর্যন্ত পেশ করেছে। কিন্তু সিবিআইয়ের সেইসব নথি ভুল বলে রাজ্য আগেই জানিয়েছিল সর্বোচ্চ আদালতে। রাজ্যের অভিযোগ ছিল, হাইকোর্ট সমস্ত মামলা একসঙ্গে সিবিআইয়ের হাতে তুলে দিতে পারে না। এমনকী সিবিআই রাজ্য সরকারের অনুমতি ছাড়াই একের পর এক এফআইআর দায়ের করছে। আইন অনুযায়ী সিবিআইকে রাজ্য সরকারের কাছে অনুমতি নিতে হবে।

বন্ধ করুন