বাংলা নিউজ > ঘরে বাইরে > ত্রিপুরায় আটক প্রশান্ত কিশোরের টিম, খবর এল কালীঘাটে, তোলপাড় রাজনীতি
প্রশান্ত কিশোর। ফাইল ছবি (HT_PRINT)

ত্রিপুরায় আটক প্রশান্ত কিশোরের টিম, খবর এল কালীঘাটে, তোলপাড় রাজনীতি

  • কিন্তু আবার আক্রমণ নেমে এলো। বেআইনিভাবে তাঁদের আটকে রাখার অভিযোগ উঠল।

একুশে জুলাইয়ের শহিদ সমাবেশ করতে গিয়ে হামলার মুখে পড়তে হয়েছিল তৃণমূল কংগ্রেস নেতৃত্বকে। ঠিক তারপরই ত্রিপুরাকে পাখির চোখ করে তৃণমূল কংগ্রেস। সেখানে আইপ্যাক–এর টিমকে পাঠানোর নির্দেশ দেওয়া হয়। সেই নির্দেশ অনুযায়ী ভোটকুশলী প্রশান্ত কিশোরের সংস্থার কর্মীদের ত্রিপুরা পাঠানো হয়। কিন্তু আবার আক্রমণ নেমে এলো। বেআইনিভাবে তাঁদের আটকে রাখার অভিযোগ উঠল। তৃণমূল কংগ্রেস সূত্রে খবর, ত্রিপুরার পুলিশ রবিবার রাতেই আটক করে তাঁদের। আর আগরতলার উডল্যান্ড পার্ক হোটেলে আটকে রেখেছে আইপ্যাকের প্রতিনিধিদের।

জানা গিয়েছে, গত সপ্তাহে সমীক্ষার কাজে ত্রিপুরায় গিয়েছিল আইপ্যাকের ২৩ জনের প্রতিনিধিদল। সেখানে গিয়ে একটি হোটেলে ওঠেন তাঁরা। রবিবার বেশি রাতে হঠাৎ হোটেলে হানা দেয় পুলিশ। তারপর তাঁদের জোর করে আটকে রাখা হয়। ত্রিপুরা তৃণমূল কংগ্রেসের রাজ্য সভাপতি আশিসলাল সিং জানান, কালীঘাটের দফতরে বিষয়টি জানানো হয়েছে।

এই বিষয়ে আশিসবাবু সংবাদমাধ্যমকে বলেন, ‘ত্রিপুরায় বিজেপির পায়ের তলার মাটি সরে গিয়েছে। তাই পুলিশকে কাজে লাগিয়ে বিরোধীদের দমন করতে চাইছে।’ আগামী অগস্ট মাসের দ্বিতীয় সপ্তাহে ত্রিপুরার তৃণমূল কংগ্রেস নেতারা কলকাতায় আসছেন। এখান থেকে রণনীতি জেনে নিয়ে আন্দোলন শুরু করবেন তাঁরা। পিকে–র টিমকে হেনস্থার ঘটনায় ত্রিপুরা জুড়ে শোরগোল পড়ে গিয়েছে।

উল্লেখ্য, ২০২৩ সালের ফেব্রুয়ারি মাসে বিজেপি শাসিত ত্রিপুরায় বিধানসভা নির্বাচন হওয়ার কথা। ইতিমধ্যেই ওই রাজ্যে তৃণমূল কংগ্রেসের হয়ে সক্রিয়তা শুরু করেছে পিকে–র সংস্থা। কারণ তৃণমূল কংগ্রেস এবার ত্রিপুরার ক্ষমতা দখল করতে চায়। সেই মতো এগোচ্ছে তাঁরা। সেখানে স্লোগান উঠেছে, ‘‌ত্রিপুরা কইতাসে মমতাদি আইতাসে’‌। আর তাতেই ভয় পেয়ে গিয়েছে বিপ্লব দেবের সরকার বলে মনে করা হচ্ছে।

বন্ধ করুন