বাংলা নিউজ > ঘরে বাইরে > প্রতিমা ভৌমিক, ত্রিপুরার প্রথম স্থায়ী বাসিন্দা ঠাঁই পেলেন কেন্দ্রীয় মন্ত্রিসভায়
প্রতিমা ভৌমিক, কেন্দ্রীয় মন্ত্রী (ফাইল ছবি)
প্রতিমা ভৌমিক, কেন্দ্রীয় মন্ত্রী (ফাইল ছবি)

প্রতিমা ভৌমিক, ত্রিপুরার প্রথম স্থায়ী বাসিন্দা ঠাঁই পেলেন কেন্দ্রীয় মন্ত্রিসভায়

  • চাষ আবাদও করেছেন। খো-খো কবাডিতে দক্ষ খেলোয়াড় ছিলেন তিনি

সাংসদ হিসাবে জেতার দুবছরের মধ্যে কেন্দ্রীয় মন্ত্রিসভায় জায়গা পেলেন প্রতিমা ভৌমিক। উত্তর পূর্বভারতের এই ছোট্ট রাজ্যের কোনও স্থায়ী বাসিন্দা এই প্রথম কেন্দ্রীয় মন্ত্রিসভায় জায়গা পেলেন। ত্রিপুরার মুখ্যমন্ত্রী বিপ্লব কুমার দেব তাঁর ফেসবুকের পাতায় লিখেছেন, ত্রিপুরার জন্য এটা গর্বের বিষয়। নারীশক্তির প্রতিনিধি হিসাবে প্রতিমা ভৌমিক প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর মন্ত্রিসভায় যোগ দিয়েছেন। 

এদিকে বিজ্ঞানে স্নাতক প্রতিমা ভৌমিক ১৯৯১ সাল থেকে বিজেপির সঙ্গে যুক্ত।  দলের যুব ও মহিলা শাখার সহ সভাপতি ছিলেন তিনি। ২০১৬ সালে দলের সাধারণ সম্পাদকের দায়িত্বও দেওয়া হয়েছিল তাঁকে। ১৯৯৮ ও ২০১৮ সালে তিনি তৎকালীন মুখ্যমন্ত্রী মানিক সরকারের বিপক্ষে দাঁড়িয়েছিলেন। কিন্তু দুবারই পরাজিত হয়েছিলেন তিনি। এরপর ২০১৯য়ের লোকসভা নির্বাচনে তৎকালীন সাংসদ শঙ্কর প্রসাদকে তিনি  ৩ লক্ষাধিক ভোটে  পরাজিত করেন।

তাঁর বাবা ছিলেন স্কুল শিক্ষক। তিন ভাইবোন রয়েছে তাঁর। তাঁর গ্রামের বাড়ি সোনামুরাতে তিনি চাষ আবাদও করেছেন। ছোটবেলায় তিনি কবাডি ও খোখো খেলায় অত্যন্ত দক্ষ ছিলেন। রাজ্যস্তরের প্রতিযোগিতাতেও তিনি অংশ নেন। প্রসঙ্গত উল্লেখ্য এর আগে ইন্দিরা গান্ধীর আমলে পশ্চিমবঙ্গের ত্রিগুণা সেন ত্রিপুরার হয়ে রাজ্য়সভার সদস্য হয়েছিলেন। পরে তিনি কেন্দ্রীয় মন্ত্রীত্ব পেয়েছিলেন। রাজীব গান্ধীর মন্ত্রিসভায় অসমের বাসিন্দা সন্তোষমোহন দেব পশ্চিম ত্রিপুরা থেকে ভোটে জিতে মন্ত্রী হয়েছিলেন। 

 

বন্ধ করুন