বাংলা নিউজ > ঘরে বাইরে > বেসরকারি স্কুল-কলেজের শিক্ষকদের সর্বাধিক ৬ মাস বরখাস্ত করা যাবে : হাইকোর্ট
বেসরকারি স্কুল-কলেজের শিক্ষকদের সর্বাধিক ৬ মাস বরখাস্ত করা যাবে : হাইকোর্ট। (ছবিটি প্রতীকী, সৌজন্য সমীর সেহগল/হিন্দুস্তান টাইমস)
বেসরকারি স্কুল-কলেজের শিক্ষকদের সর্বাধিক ৬ মাস বরখাস্ত করা যাবে : হাইকোর্ট। (ছবিটি প্রতীকী, সৌজন্য সমীর সেহগল/হিন্দুস্তান টাইমস)

বেসরকারি স্কুল-কলেজের শিক্ষকদের সর্বাধিক ৬ মাস বরখাস্ত করা যাবে : হাইকোর্ট

২০০৭ সালে এক শিক্ষককে সাময়িকভাবে বরখাস্ত করা হয়েছিল। ২০১৭ সালে তিনিই মামলা দায়ের করেছিলেন।

সর্বাধিক ছ'মাসের জন্য সাময়িকভাবে বরখাস্ত করা যাবে। ছ'মাসের বেশি সাময়িকভাবে বরখাস্ত রাখা যাবে না। অনুমোদিত বেসরকারি স্কুল, কলেজ এবং মাদ্রাসার শিক্ষকদের ক্ষেত্রে এমনই নির্দেশ দিল হাইকোর্ট। বাংলাদেশের সংবাদমাধ্যম বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকমের প্রতিবেদনে জানানো হয়েছে।

মামলাটি ঠিক কী ছিল? বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকমের প্রতিবেদন অনুযায়ী, অতিরিক্ত বেতন অভিযোগে২০০৭ সালে বাংলাদেশের মাগুরা উপজেলা সদরের বাহারবাগ মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের এক সহকারী শিক্ষককে সাময়িকভাবে বরখাস্ত করা হয়েছিল। কিন্তু ১০ বছর কেটে গেলেও অভিযোগের কোনও নিষ্পত্তি হয়নি। তা নিয়ে ২০১৭ সালে হাইকোর্টে মামলা দায়ের করেন ওই শিক্ষক। সাময়িকভাবে বরখাস্তের নির্দেশকে চ্যালেঞ্জ করেন তিনি। সেই মামলায় বৃহ্স্পতিবার বিচারপতি এম. ইনায়েতুর রহিম ও বিচারপতি মো. মোস্তাফিজুরের বেঞ্চ নির্দেশ দিয়েছে, অনুমোদিত বেসরকারি স্কুল, কলেজ এবং মাদ্রাসার শিক্ষকদের সর্বাধিক ছ'মাসের জন্য সাময়িকভাবে বরখাস্ত করা যাবে। সেইসঙ্গে ওই শিক্ষককে বরখাস্তের নির্দেশকে অবৈধ বলে ঘোষণা করা হয়েছে।

আবেদনকারীদের আইনজীবী জানিয়েছেন, হাইকোর্টের বেঞ্চ নির্দেশ দিয়েছে যে ১৯৭৯ সালের বেসরকারি শিক্ষকদের চাকরিবিধিতেও সর্বাধিক ছ'মাসের জন্য সাময়িকভাবে বরখাস্তের বিষয়টি অন্তর্ভুক্ত করতে হবে। তিনি আরও জানিয়েছেন, শিক্ষককে বরখাস্ত করার সিদ্ধান্তকে অবৈধ বলে ঘোষণা করেছে হাইকোর্ট। তার ফলে ১৪ বছর পরে ওই শিক্ষকের চাকরিতে যোগদান করতে কোনও সমস্যা থাকবে না।

বন্ধ করুন