বাংলা নিউজ > ঘরে বাইরে > 'শীঘ্রই দেখা করা উচিত', প্লেনে আচমকা সাক্ষাতে একে অপরকে বললেন প্রিয়াঙ্কা-অখিলেশ
একই ফ্রেমে প্রিয়াঙ্কা গান্ধী ও অখিলেশ যাদব 

'শীঘ্রই দেখা করা উচিত', প্লেনে আচমকা সাক্ষাতে একে অপরকে বললেন প্রিয়াঙ্কা-অখিলেশ

  • এটা স্পষ্ট নয় যে ফের দেখা করার কথাটি সৌজন্য বিনিময়ের অংশ নাকি রাজনৈতিক জোট গড়তে আলোচনার ইঙ্গিত।

সমাজবাদী পার্টির প্রধান তথা উত্তরপ্রদেশের প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী অখিলেশ যাদব বিমানে চড়ে আচমকাই মুখোমুখি হলেন নিজের পুরোনো বন্ধু তথা কংগ্রেসের সাধারণ সম্পাদক প্রিয়াঙ্কা গান্ধী বঢড়ার সঙ্গে। শুক্রবার ভিসতারা ফ্লাইটে উত্তরপ্রদেশের রাজধানী লখনউয়ের উদ্দেশে রওনা দেন দুই নেতাই। সেই সময় বিমানে দেখা হয় দুই জনের। সৌজন্য বিনিময় করতেও দেখা যায় তাঁদের। উল্লেখ্য, তাঁদের দল ২০১৭ সালের বিধানসভা নির্বাচনে জোট বেঁধে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করেছিল। তারপর অবশ্য ২০১৯ সালে সেই জোট টেকেনি।

শুক্রবার বিকেলের এই সংক্ষিপ্ত কথোপকথনের সময় বিমানের কোনও এক যাত্রী নিজের মোবাইল ফোনে একটি ছবিও তোলেন। তাতে দুই রাজনৈতিক প্রতিদ্বন্দ্বীকে একই ফ্রেমে দেখা যায়। লখনউ যাওয়ার সময় ফ্লাইটে এই সাক্ষাতকে প্রিয়াঙ্কার এক সহযোগী 'সৌহার্দ্যপূর্ণ' আখ্যা দেন। নাম প্রকাশ না করার শর্তে সেই সহকারী আরও বলেন, 'তাঁরা একে অপরকে বলেন যে 'তাঁদের শীঘ্রই দেখা করা উচিত।'

তবে এটা স্পষ্ট নয় যে ফের দেখা করার কথাটি সৌজন্য বিনিময়ের অংশ নাকি রাজনৈতিক জোট গড়ার সমীকরণের ইঙ্গিত। প্রসঙ্গত, উত্তরপ্রদেশের ৪০৩ আসন বিশিষ্ট বিধানসভার নির্বাচনের বাকি পাঁচ মাসেরও কম সময়। উভয় দলই মুখ্যমন্ত্রী যোগী আদিত্যনাথের নেতৃত্বাধীন ভারতীয় জনতা পার্টি সরকারকে ক্ষমতাচ্যুত করার চেষ্টা করছে। উল্লেখ্য, ২০১৭ সালে কংগ্রেস-সপা জোটকে ধরাসায়ী করে বিজেপি উত্তরপ্রদেশে একাই ৩১২টি আসন জিতে ক্ষমতায় এসেছিল। সেবার কংগ্রেসের ঝুলিতে গিয়েছিল মাত্র সাতটি আসন। সমাজবাদী পার্টি জিতেছিল ৪৭টি। এই পরিস্থিতিত ২০২২ সালে ফের দুই দল জোট গড়ে কি না, তা নিয়ে কৌতূহল রয়েছে রাজনৈতিক মহলে। যদিও সমাজবাদী পার্টির নেতা উদয়বীর সিংয়ের দাবি, 'দুই দলের জোট হওয়ার সম্ভাবনা শূন্য শতাংশ।'