বাংলা নিউজ > ঘরে বাইরে > ‘এজেন্সির অপব্যবহার’, চান্নির ভাইপো গ্রেফতার হতেই কেন্দ্রকে তোপ প্রিয়াঙ্কার
প্রিয়াঙ্কা গান্ধী (ছবি সৌজন্যে এএআই) (ANI)

‘এজেন্সির অপব্যবহার’, চান্নির ভাইপো গ্রেফতার হতেই কেন্দ্রকে তোপ প্রিয়াঙ্কার

  • বৃহস্পতিবার জলন্ধরে ভূপিন্দর সিং ওরফে হানিকে গ্রেফতার করা হয়।

নির্বাচনের আগেই বেআইনি বালি খাদান মামলায় গ্রেফতার করা হল পঞ্জাবের মু্খ্যনন্ত্রী চরণজিৎ সিং চান্নির ভাইপোকে। আর এই বিষয়ে এবার মুখ খুলে কেন্দ্রকে তোপ দাগলেন কংগ্রেসের সাধারণ সম্পাদক প্রিয়াঙ্কা গান্ধী। বেআইনি বালি খনির মামলায় ইডি পঞ্জাবের মুখ্যমন্ত্রী চান্নির ভাইপো ভূপিন্দর সিং হানিকে গ্রেফতারের প্রসঙ্গে প্রিয়াঙ্কা গান্ধী বলেন, ‘আমি আগেই বলেছিলাম যে এজেন্সির অপব্যবহার করা হচ্ছে। জনগণকে ভয় দেখানোর জন্য এবং বিরোধী দলের নেতাদের চাপ দিতে সরকার এজেন্সির ব্যবহার করছে। নির্বাচনের সময় এটার অনুমতি দেওয়া উচিত নয়।’

বৃহস্পতিবার জলন্ধরে ভূপিন্দর সিং ওরফে হানিকে গ্রেফতার করা হয় এবং আজ শুক্রবার এনফোর্সমেন্ট ডিরেক্টোরেট তাঁকে আদালতে পেশ করে হেফাজতে চায়। উল্লেখ্য, এর আগে গত ১৮ জানুয়ারি ইডি লুধিয়ানা, ফতেহগড় সাহেব, রূপনগর এবং পাঠানকোট জেলায় ভূপিন্দর সিংয়ের সম্পত্তিতে তল্লাশি চালায়। তাছাড়া তাঁর ব্যবসায়িক অংশীদার এবং মোহালিতে ছয় খনি শ্রমিকের বাড়িতেও তল্লাশি চালানো হয়। পঞ্জাবের আরও ১০টি স্থানে অভিযান পরিচালনা করে ইডি। কেন্দ্রীয় এজেন্সি এরপর ১৯ জানুয়ারি পর্যন্ত এই সব তল্লাশি জারি রাখে। দুই দিন ধরে চলা অভিযানের সময় ভূপিন্দর সিং এবং তাঁর ব্যবসায়িক অংশীদার সন্দীপ কুমারের কাছ থেকে অন্যান্য মূল্যবান জিনিস ছাড়াও নগদ ১০ কোটি টাকা বাদেয়াপ্ত করেছিল ইডি।

ইডির মতে, ভূপিন্দর এবং সন্দীপের সাথে কুদরত সমান অংশীদারিত্বে ২০১৮ সালে প্রোভাইডার ওভারসিজ কনসালটেন্সি লিমিটেড নামে একটি ফার্ম স্থাপন করেছিলেন। এদিকে ২০১৮ সালে এসবিএস নগরে পঞ্জাব পুলিশের কাছে দায়ের হয়েছিল অবৈধ বালি খনি সংক্রান্ত একটি এফআইআর। সেই মামলাতেই অর্থ পাচারের অভিযোগও উঠেছিল। সেই মামলার সাথে মুখ্যমন্ত্রীর ভাইপোর ফার্মের যোগসূত্র ছিল বলে দাবি

বন্ধ করুন