বাংলা নিউজ > ঘরে বাইরে > RRD Group D exam update-রেলের আরআরবি গ্রুপ ডি পরীক্ষা ঘিরে কোন আশঙ্কার মেঘ?
যেভাবে দেশে ওমিক্রন সমস্যা দানা বাঁধছে তাতে, সমস্ত কোভিড সুরক্ষাবিধিকে জারি রেখে আরআরবি গ্রুপ ডি পরীক্ষা আয়োজন ঘিরে বহু সংশয় তৈরি হচ্ছে। (ছবিটি প্রতীকী, সৌজন্য পিটিআই)
যেভাবে দেশে ওমিক্রন সমস্যা দানা বাঁধছে তাতে, সমস্ত কোভিড সুরক্ষাবিধিকে জারি রেখে আরআরবি গ্রুপ ডি পরীক্ষা আয়োজন ঘিরে বহু সংশয় তৈরি হচ্ছে। (ছবিটি প্রতীকী, সৌজন্য পিটিআই)

RRD Group D exam update-রেলের আরআরবি গ্রুপ ডি পরীক্ষা ঘিরে কোন আশঙ্কার মেঘ?

  • যেভাবে দেশে ওমিক্রন সমস্যা দানা বাঁধছে তাতে, সমস্ত কোভিড সুরক্ষাবিধিকে জারি রেখে আরআরবি গ্রুপ ডি পরীক্ষা আয়োজন ঘিরে বহু সংশয় তৈরি হচ্ছে।

ভারতীয় রেলের আরআরবি গ্রুপ ডি ভর্তি পরীক্ষা ঘিরে আশঙ্কার মেঘ দানা বাঁধছে। বহু প্রতীক্ষিত এই পরীক্ষা ২৩ ফেব্রুয়ারি থেকে শুরু হওয়ার কথা। তবে তার আগে যেভাবে করোনার ওমিক্রন ভ্যারিয়েন্টের থাবা জোরালো হচ্ছে, তাতে আশঙ্কা থেকে যাচ্ছে এই পরীক্ষার দিনক্ষণ নিয়ে। উল্লেখ্য, দ্রুততার সঙ্গে দেশে ছড়াতে শুরু করে দিয়েছে ওমিক্রন। তার মাঝে আগামী বছরের শুরুতেই পরিস্থিতি কোনদিকে যায় তা নিয়ে রয়েছে উদ্বেগ।

উল্লেখ্য, রেলের গ্রুপ ডি পদে চাকরির জন্য ১ কোটি ১৫ লাখ আবেদনপত্র জমা পড়েছে। শূণ্যপদ রয়েছে ১.০৩ লাখ। এদিকে, যেভাবে দেশে ওমিক্রন সমস্যা দানা বাঁধছে তাতে, সমস্ত কোভিড সুরক্ষাবিধিকে জারি রেখে আরআরবি গ্রুপ ডি পরীক্ষা আয়োজন ঘিরে বহু সংশয় তৈরি হচ্ছে। এদিকে, ওমিক্রন পরিস্থিতিকে নজরে রেখে বিভিন্ন রাজ্যে একাধিক বিধি নিষেধ লাগু করা হয়েছে। বহু রাজ্যেই জারি হয়ে গিয়েছে রাতের কার্ফু। উল্লেখ্য, দেশে আপাতত ১৭ টি রাজ্য তথা কেন্দ্রশাসিত অঞ্চলে ছড়িয়ে পড়েছে ওমিক্রন। গোটা দেশে ওমিক্রনে আক্রান্ত রয়েছেন ৫১৮ জন। এঁদের মধ্যে শুধু মহারাষ্ট্রেই সংক্রমিত ১৪১ জন। এদিকে, দিল্লিতে আক্রান্ত ৭৯ জন।

২০২১ সালের শুরুতে দেশে করোনার যে ভয়ানক গ্রাফ দেখা গিয়েছিল, তার তুলনায় বছরের শেষে অনেকটাই স্বস্তিদায়ক দেশের বর্তমান করোনা গ্রাফ। গত ২৪ ঘণ্টায় দেশে করোনা আক্রান্ত ৬৯৮৭ জন। কোভিডের দ্বিতীয় স্রোতের নিরিখে এই পরিসংখ্যান কম হলেও, ওমিক্রনের দাপট ঘিরে রীতিমতো ভয়াবহ পরিস্থিতি তৈরি হয়ে গিয়েছে। এদিকে, রেলের গ্রুপ ডি পর্যায়ের এই পীরক্ষা ঘিরে ২০১৯ সালে বিজ্ঞপ্তি জারি করেছিল রেল। এরপর বারবার করোনা হানার জেরে পরিস্থিতি কার্যত ভয়াবহ চেহারা নেয়। এদিকে, কখনও পরীক্ষা এজেন্সির সংকট তো কখনও করোনা ইস্যুতে এই পরীক্ষা বারবার পিছিয়েছে। পরীক্ষার তারিখ ঘোষণা সোশ্যাল দাবিতে মিডিয়ায় বহু লেখালিখিও হয়। এরপর সরকার বহু প্রতীক্ষার পর ঘোষণা করে পরীক্ষার তারিখ। এদিকে, পরীক্ষার আবেদন পত্রে ভুল শুধরে নেওয়ার শেষ তারিখ ২৬ ডিসেম্বর দেওয়া হয়। ভুল ফটো আর ভুল স্বাক্ষরের কারণে এপর্যন্ত ৪৮৫৬০৭ টি আবেদন পত্র খারিজ করা হয়। ৯০ মিনিটের মাথায় ১০০ নম্বরের এই পরীক্ষায় জেনারেল রিজনিং থেকে শুরু করে জেনারেল ইন্টালিজেন্স সহ একাধিক বিষয়ে পরীক্ষার্থীদের দক্ষতার পরীক্ষা করা হবে।

 

 

বন্ধ করুন