জম্মু ও কাশ্মীরের দুই প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রীর বিরুদ্ধে জননিরাপত্তা আইনে (পিএসএ) মামলা করল সরকার।
জম্মু ও কাশ্মীরের দুই প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রীর বিরুদ্ধে জননিরাপত্তা আইনে (পিএসএ) মামলা করল সরকার।

ওমর ও মেহবুবার বিরুদ্ধে জননিরাপত্তা আইনে মামলা, বাড়ল বন্দিত্বের মেয়াদ

শুক্রবার তাঁদের বন্দিত্বের মেয়াদ সম্পূর্ণ হওয়ার কথা ছিল। তার আগেই মেহবুবা মুফতি ও ফারুখ আবদুল্লার বিরুদ্ধে নতুন অভিযোগ এনে জননিরাপত্তা আইনে মামলা করল কেন্দ্র।

প্রধানমন্ত্রী তাঁদের বিরুদ্ধে দেশদ্রোহিতার অভিযোগ আনার কয়েক ঘণ্টার মধ্যে জম্মু ও কাশ্মীরের দুই প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রীর বিরুদ্ধে জননিরাপত্তা আইনে (পিএসএ) মামলা করল সরকার। এর আগে একই অভিযোগে মামলা করা হয়েছে আরও এক প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী ফারুখ আবদুল্লার বিরুদ্ধেও।

জম্মু ও কাশ্মীরে সংবিধানের ৩৭০ ধারা বাতিলের জেরে বিশেষ মর্যাদা প্রত্যাহার এবং রাজ্যকে ভেঙে দু’টি পৃথক কেন্দ্রশাসিত অঞ্চল গঠনের পরে নিরাপত্তাজনিত কারণে আটক করা হয় উপত্যকার তিন শীর্ষ নেতা-সহ রাজনীতিবিদ, সাংবাদিক ও সমাজকর্মীদের।

এর মধ্যে বেশ কয়েকজনকে মুক্তি দেওয়া হলেও বন্দিদশা ঘোচেনি তিন প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রীর। শুক্রবার তাঁদের বন্দিত্বের মেয়াদ সম্পূর্ণ হওয়ার কথা ছিল। তার আগেই মেহবুবা মুফতি ও ফারুখ আবদুল্লার বিরুদ্ধে নতুন অভিযোগ এনে জননিরাপত্তা আইনে মামলা করল কেন্দ্র।

বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় তাঁর মায়ের হাতে জনসুরক্ষা আইনে মামলার জেরে আটক করার নির্দেশ ধরানো হয়েছে। পরে তিনি টুইট করেন, ‘মেহবুবা মুফতি কিছিুক্ষণ আগে একটি পিএসএ জনিত নির্দেশ পেয়েছেন এবং তাঁকে বাড়ি ফিরতে দেওয়া হচ্ছে না। জম্মু ও কাশ্মীরের দুই প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রীর বিরুদ্ধে কঠোরতম পিএসএ জনিত অভিযোগ একনায়কোচিত বাহিনীর কাছ থেকে প্রত্যাশিতই ছিল। এরাই ৯ বছর বয়সীদের বিরুদ্ধে দেশদ্রোহিতার অভিযোগ এনেছে।’

সূত্রে খবর, বর্তমানে হরি নিবাসে আটক ওমর আবদুল্লার বিরুদ্ধে একই আইনে অভিযোগ আনা হয়েছে এবং তাঁর হাতেও আদালতের নির্দেশ পৌঁছে গিয়েছে।

সম্প্রতি জম্মু ও কাশ্মীরের তিন প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রীর বিরুদ্ধে সংসদে দেশদ্রোহিতার অভিযোগ তোলেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। তাঁর দাবি, ৩৭০ ধারা বাতিল হলে ভয়াবহ ভূমিকম্পে ভারত থেকে কাশ্মীর বিচ্ছিন্ন হবে বলে পূর্বাভাস করেছিলেন ওমর আবদুল্লা। যদিও এই অভিযোগ অস্বীকার করেছে ন্যানাল কনফারেন্স।

পাশাপাশি, মেহবুবা মুফতির উক্তি ‘মনে হচ্ছে কাশ্মীরকে ভারত ঠকিয়েছে। ১৯৪৭ সালে আমরা বোধহয় ভুল পক্ষকে বেছে নিয়েছিলাম...’ কেন্দ্র করেও রাষ্ট্রদ্রোহিতার অভিযোগ এনেছেন প্রধানমন্ত্রী।

বন্ধ করুন