বাংলা নিউজ > ঘরে বাইরে > নাইটক্লাবে গেলে ভবিষ্যৎ ঝরঝরে হয়ে যায়, এগুলো বন্ধ করা দরকার, দাবি মন্ত্রীর
নাইট ক্লাব বন্ধের দাবিতে সরব মন্ত্রী। প্রতীকী ছবি (REUTERS) (REUTERS)

নাইটক্লাবে গেলে ভবিষ্যৎ ঝরঝরে হয়ে যায়, এগুলো বন্ধ করা দরকার, দাবি মন্ত্রীর

  • তিনি আগে বলেছিলাম যোগ, যজ্ঞ আর হনুমান চালিশা কোভিড থেকে মানুষকে বাঁচাতে পারে।

এই পাব আর নাইট ক্লাব দুটোই ইন্দোরের সংস্কৃতিকে একেবারে নষ্ট করে দিচ্ছে। এগুলো বন্ধ হওয়া দরকার। জানিয়ে দিলেন সংস্কৃতি ও পর্যটনমন্ত্রী উষা ঠাকুর। বুধবার ইন্দোরে একটি অনুষ্ঠানে বক্তব্য রাখতে গিয়ে মন্ত্রী বলেন, পাব আর নাইট ক্লাবগুলোকে বন্ধ করে দেওয়া উচিত। এগুলো সংস্কৃতিকে একেবারে ধ্বংস করে দিচ্ছে। প্রশাসনের উচিত এর বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া। পাশাপাশি যে যুবকরা নাইট ক্লাব ও পাবে যায় তাদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়ার কথাও জানিয়েছেন তিনি। তিনি বলেন, এসব পাশ্চাত্য সংস্কৃতি। এতে ভবিষ্যৎ একেবারে ঝড়ঝড়ে হয়ে যায়। উচ্ছন্নে যায় যুব সমাজ। তবে মন্ত্রীর এই বক্তব্যকে ঘিরে ইতিমধ্যেই নানা কথা উঠতে শুরু করেছে। 

তবে এবারই প্রথম নয়। এর আগেও উষা ঠাকুরের বক্তব্যকে ঘিরে বিতর্ক দানা বেঁধেছিল। তিনি আগে বলেছিলাম যোগ, যজ্ঞ আর হনুমান চালিশা কোভিড থেকে মানুষকে বাঁচাতে পারে। এদিকে কংগ্রেস নেতৃত্বের দাবি, প্রচারে থাকার জন্য এসব বিতর্কিত কথা বলছেন মন্ত্রী। মধ্যপ্রদেশের কংগ্রেসের মুখপাত্র অজয় যাদব বলেন, যাদের তিনি ব্যবস্থা নেওয়ার জন্য বলছেন তাদের হাতে ক্ষমতা রয়েছে। তারা ব্যবস্থা নিতেই পারেন। বিজেপি শাসিত রাজ্য সরকার খালি সংস্কৃতি রক্ষা আর ঐতিহ্যরক্ষার কথা বলে মানুষকে বোকা বানায়। সকলেই জানেন বিজেপির শাসনের ১৫ বছরের মধ্যেই ইন্দোরে পাব আর নাইট ক্লাব সংস্কৃতির আমদানি হয়েছে। 

 

বন্ধ করুন